পাতা:পঞ্চক মালা - বিজয় চন্দ্র মজুমদার.pdf/১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

পঞ্চকমালা।

ভ্রমিতে জীবন-পথে যৌবনের রথে——
সারাথী দেখাল মোরে,—চরিছে মরতে
জরা ব্যাধি মৃত্যু নর-গৌরবের দ্বারে।
কে দিবে মানবে শান্তি? কে তারে উদ্ধারে?


মানবের আনন্দের ক্ষেত্র-—মধুবনে,
হেরিলাম ‘মার’ আর ‘মার’-বধূগণে।
নহেক সুন্দর তা’রা; ভুষণে বসনে
প্রচ্ছন্ন করে গো অঙ্গ শীর্ণ অনশনে।
বিবসনা বাসনার হাসি নাই মুখে,
নয়নেতে দীপ্তি নাই তৃপ্তি নাই বুকে।


অবশ্য লালসা তথা অনবগুষ্ঠিতা,
বাঁধিয়া গলায় ফাঁস ধূলায় লুন্ঠিত।
‘মার’-পূজ্যা লজ্জাহীনা হেরিলাম রতি,—
বিঘ্ন-পঙ্কে নগ্নতনু কঙ্কাল মূরতি;
বিভৎস উৎসব-শব টেনে ছিঁড়ে খায়,
গৃধিণী প্রেতিনী সম ক্ষুধার জ্বালায়।

১০