পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/১৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষষ্ঠ অধ্যায়। § තම স্থাপন করেন। উপেন্দ্ৰনাথ সংস্কারকদিগের নেতা ছিলেন । ১৮৬৮ সালের মধ্যভাগে হঠাৎ একদিন, উপেন্দ্রের প্রথমা পত্নীর BDD DD SS SDBD BBB D DB DB DS SBBD DBB যে কলেরায় তাহার মৃত্যু হইয়াছে। তঁহার মৃত্যুর অব্যবহিত পরেই উপেন্দ্ৰনাথ একজন বিধবার পাণি গ্ৰহন করেন । এই মেয়েট ভবানীপুরে থাকিত। শিবনাথ উপেন্দ্রনাথের সহিত গিয়া তাহাকে চুরি করিয়া আনেন এবং তৎপব দিন উপেন্দ্রনাথের সঙ্গিত তাহার বিবাহ হয়। এই বিবাহের আনুসঙ্গিক ঘটনা আয়ুচরিতে বিস্তুত আছে । উপেন্দ্রনাথের পরিবারের জন্য শিবনাথকে অনেক দিন বিব্রত হইতে হইয়াছে। কত যে অর্থদণ্ড দিতে হইয়াছে তাহা বলা যায় না । উপেন্দ্ৰনাথ অবশেষে পীড়িত হইয়া সপরিবারে শিবনাথের স্কন্ধে পতিত হন । শিবনাথ তখন অতি কষ্টে স্কলারসিপেরা, অর্থ দ্বারা নিজের ব্যয় চালাইতেছেন, এই অবস্থায্য 'আব একটী পরিবারের সমুদায় ভার তঁহার স্কন্ধে পড়িল, তন্মধ্যে একজন পীড়িত। শিবনাথ ঋণগ্ৰস্ত হইয়া পড়িলেন। তাহার উপর আবার উপেন্দ্রের অনেকগুলি ঋণ র্তাহাকেই শোধ করিতে হইল। এই সময়কার ঋণ শোধ করিতে র্তাহাকে বহুকাল ধরিয়া অনেক কষ্টভোগ করিতে হইয়াছিল। উপেন্দ্রনাথকে সাহায্য করিতেন। বলিয়া লোকে তঁহাকে কত নিন্দ করিত-প্ৰতারক প্ৰবঞ্চকের আশ্রয়দাতা বলিত, কিন্তু শিবনাথ কিছুই গ্ৰাহা করিতেন না । উপেস্ট্রের পত্নী যে ক্লেশ পাইবেন, ইহা প্ৰাণে সহ্য হইত না । উপেন্দ্ৰনাথ পরে বিলাত গিয়া প্ৰবঞ্চনা করিয়া কারারুদ্ধ হন, সেই উপেন্দ্রনাথও শিবনাথের বন্ধু ছিলেন । এতগুলি ঘটনার যোগাযোগে ১৮৬৮ সােল শিবনাথের জীবনে চির স্মরণীয় হইয়া ছিল।