পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্ৰথম অধ্যায় । G সহিত আসিয়া এখানে বাস করিতে থাকেন। মজিলপুর গ্রাম “খানি শ্ৰীকৃষ্ণ উদগাতার বংশাবলী দ্বারা পূর্ণ হইয়া গিয়াছে। চন্দ্ৰকেতু দত্তের সঙ্গে যে সকল ব্যক্তি আসিয়াছিলেন, তাহার মধ্যে বিখ্যাত হারাণচন্দ্র রক্ষিত মহাশয়ের পূর্ব পুরুষও একজন। মজিলপুর গ্রামখানি বলিতে গেলে এই চন্দ্ৰকেতু দত্তের পরিবার পরিজন এবং তঁহার যজ্ঞ পুরোহিত শ্ৰীকৃষ্ণ উদগীতাকে অবলম্বন করিয়া গড়িয়া উঠে। সুতরাং মজিলপুরের ইতিহাসের সহিত চন্দ্ৰকেতু দত্ত ও শ্ৰীকৃষ্ণ উদগাতার নাম চির গ্রথিত। এই উভয় বংশের কীৰ্ত্তিকলাপে মজিলপুরের ইতিহাস পূর্ণ। ’ মজিলপুর একখানি ক্ষুদ্র গ্রাম,-ইহার কোন প্ৰাচীন ইতিহাস নাই। পটুগীজগণ এই পথে এদেশে আসিয়াছিলেন। কিনা জানা যায় না, তবে পুটুগীজ দিগের যাত্রা বিবরণে“ময়দা” নামে একস্থানের উল্লেখ দেখা যায়। বাস্তবিক মজিলপুরের উত্তর পারে। আজিও “মষদ” নামে এক গ্ৰাম আছে । শুনিতে পাওয়া যায় প্ৰাচীন কালে তথায় বন্দর ছিল । একথা বোধ হয় উপন্যাসের ন্যায় অলীক কাহিনী নয়, কারণ এই অঞ্চলে লাঙ্গল দিবার সময় মাটীর নীচে ভগ্ন জাহাজ, বোট ইত্যাদি জলযানের অনেক নিদর্শন পাওয়া যায়। প্রাচীন জলপথের সন্নিকটেই যে এই অঞ্চলের বসতি ছিল, তাহাতে আর সন্দেহ নাই। বােধ হয় যশোেহর । হইতে জলপথে সুন্দরবনের ভিতর দিয়া চন্দ্ৰকেতু দত্ত, এখানে । আসিয়া থাকিবেন। চন্দ্ৰকেতু দত্তের যজ্ঞপুরোহিত শ্ৰীকৃষ্ণ উদগত হইতে বংশ পরম্পরায় এই অঞ্চল দাক্ষিণাত্য বৈদিক ব্ৰাহ্মণে পূর্ণ হইয়া গিয়াছে। রাঢ়ী, বারেন্দ্র ও বৈদিক এই তিন শ্রেণীর ব্ৰাহ্মণ দিগের মধ্যে বৈদিক ব্রাহ্মণগণই বজন, ৰাজন, ও ।