পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/১৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


See শিবনাথ-জীবনী । ৫ই ফেব্রুয়ারি ২৩এ মাঘ মঙ্গলবার “অন্ত প্ৰত্যুষে উঠিয়া আনন্দমোহন বাবুর নিকট গমন করিলাম, তাহার সঙ্গে তিন বিষযেব কথা হইল, প্রথম Students fortnightly service, দ্বিতীয় বঙ্গমহিলা বিদ্যালয়ের ছাত্রীদিগের ধৰ্ম্মশিক্ষার ভার, তৃতীয় প্রতিনিধি সভা। তিনি Students service-এর সঙ্গে অত্যন্ত সহানুভূতি প্ৰকাশ করিলেন । তাহার সঙ্গে আলাপে স্তিব হইল যে আগামী এপ্রেলের প্রথমাবধি আমার কৰ্ম্ম পরিত্যাগ শ্ৰেয়ঃ । কারণ এ সকল কৰ্ম্ম অনন্যকৰ্ম্ম হইয়া না লাগিলে চালান দুষ্কর হইবে। 锋 锋 橡 স্কুলেব পর বাসায় গিয়া জমা গেল। ক্রমে মহলানবিশ, রাধাকান্ত বাবু, যদু বাবু, দ্বারিক বাবু, দুর্গামোহন বাবু, আনন্দমোহন বাবু জমিলেন। এখান হইতেই কেশব বাবুর আচবণের প্রতিবাদ করা অবশ্য কৰ্ত্তব্য বোধ হইল। পরদিন সন্ধ্যাব সময় আবার meeting কবা স্থির করিয়া সভা ভঙ্গ হইল। আমার উপর फ़िठेिgलि छश्रिहठ दिन डांद्र लश्लि।” ৬ই ফেব্রুয়ারি। বুধবার ২৪ এ মাঘ “পরে কেশব বাবুৰ নিকট যে protest পাঠাইতে হইবে তাহা লিখিতে বসিলাম। সেটা লেখা হইলে নগেন্দ্র বাবুকে দেখাইবার জন্য তঁর বাসাতে গেলাম । * * ** * * “অদ্য আমার জীবনের এক বিশেষ দিন। ভাবিয়া দেখিলাম যে, যেরূপ কাৰ্য্যের ভিড় উপস্থিত হইতেছে, সম্পূর্ণরূপে অনন্যকৰ্ম্ম হইয়া না লাগিলে, কাৰ্য্যও হইবে না, অথচ স্কুলের কাৰ্য্যের পর তাহা করিতে গেলে শরীরে সহিবে না । অনেক চিন্তার পর আর