পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/৩৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


See भिवभाथ-ॐीवनी । টালিয়া পড়িতেন, তথাপি প্ৰতিবেশীদের বাড়ীতে বেড়াইতে যাইতেন । ১৯১৯ সালের মাঘোৎসবের সময় 'প্ৰতিদিন প্ৰাতে মন্দিরে যাইবার জন্য ব্যাকুল হইতেন। তাকে কয়েক দিন প্ৰাতে উপাসনার সময় মন্দিরে লইয়া যাওয়া হইয়াছিল। ১২ই মাঘের দিন প্ৰাতে মন্দিরে উপাসনায় গিয়াছিলেন, সেখান হইতে আসিয়া উপরে সিড়িতে উঠিতে যেই চেষ্টা করিবেন, অমনি গড়াইয়া একেবারে নীচে আসিয়া পড়িলেন, গুরুতর আঘাত পাইলেন । মাথা, নাক, হাত পা, প্ৰভৃতি অনেক স্থান কাটিয়া গেল, ডান হাতের কব্জির হাড় সরিয়া গেল । তঁকে জিজ্ঞাসা করা হইল, কোথায়ও বেশী লাগিয়াছে কিনা, তাতে বিশেষ কিছু নয় বলিলেন, হাতে যে কিছু হইয়াছে তাহা বলিলেন না। মৃত্যুর কিছু দিন পূর্বে দেখা গেল যে কবাজার হাড় ঈষৎ সরিয়াছে, তাই এতদিন হাত দিয়া আর কিছু ধরিতে পারিতেন না, সৰ্ব্বদাই “হাতে ব্যথা” বলিতেন। কাপড় ছাড়াইবার সময় হাত ছুইতে দিতে চাহিতেন না । ১৯১৮ সালে অক্টোবর মাসে তার জ্যেষ্ঠ জামাতার মৃত্যু সংবাদ শুনিয়া তার কন্যাকে কয়েক লাইন অতি কষ্টে লিখিয়াছিলেন, সেই পৃষ্ঠার শেষ পত্র । এই শোক তঁর প্ৰাণে বড় গুরুতর লাগিয়াছিল, তিনি লাবণ্যপ্ৰভাকে একদিন বলিয়াছিলেন, “আমি কাহাকেও কিছু বলি না, চুপ করিয়া আছি, কিন্তু বিপিন আমায় মারিয়া গিয়াছে।” জামাতার মৃত্যুর অব্যবহিত পরেই নিজে ইনফ্লয়েঞ্জা রোগে মৃতকল্প হইলেন। সেইবারেও চিকিৎসকেরা জীবনের আশা ছাড়িয়া দিয়াছিলেন। কিন্তু হেমলতা টেলিগ্ৰাফ পাইয়া দারাজিলিং হইতে ছুটয়া আসিলেন, TBDB BBDBBLLL SYD DSDD BBDDS BBDDDSS SY