পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/৩৬৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুবিংশ অধ্যায়। সাধকরূপে-ধৰ্ম্মরাজ্যে । শুভক্ষণে ভারতের যুগসন্ধি স্থলে ঘোর অন্ধকারের ভিতর দীপ্তিময় নবসুৰ্য্যের ন্যায় মহাত্মা রাজা রাজমোহন রায় উদিত হইয়াছিলেন। ইতিহাস বলিতেছে ভারতের বাৰ্ত্তমান যুগ ব্রিটিশ BgS DDD D BBS DBDB DDBDSDi DBBBB S ধৰ্ম্ম-জগতেও রামমোহন রায় এক যুগ ধৰ্ম্মের। প্ৰবৰ্ত্তক। রামমোহন-যুগের প্রধান লক্ষণ হইল প্ৰাচ্য ও প্রতীচ্যের সম্মিলন। এই যুগ্মধৰ্ম্মে প্ৰাচ্য এবং প্রতীচ্য ধৰ্ম্মভাবের সংমিশ্রন ঘটিয়াছে। রামমোহন রায় এদেশে একমাত্র সত্যস্বরূপ, নিরাকার, চিন্ময়, পরব্রহ্মের মানসপুজা ঘোষণা করিলেন। তিনি উপনিষদের বিশুদ্ধ ব্ৰহ্মবাদ উদ্ধার করিয়া স্বদেশবাসীর নিকট প্রচার করিলেন। এ অমূল্যনিধি ভারতেই ছিল, কিন্তু কেবল যদি তাহাই হইত ইহাকে যুগাধৰ্ম্ম না বলিয়া সনাতন ধৰ্ম্ম বলিতাম। অতীতের গৌরব যতই থাক বৰ্ত্তমান কেহ উপেক্ষা করিতে পারে না। বর্তমান যুগের বিশেষ বিশেষ অভাব মোচনের জন্য এই যুগ ধৰ্ম্মেয় অত্যুদয়। এই যুগ ধৰ্ম্মের প্রবর্তক-মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়। যেমন গঙ্গা-যমুনার সঙ্গমস্থলে প্ৰয়াগতীর্থ তেমনি ভারতীয় ব্ৰহ্মবাদ ও পাশ্চাত্য ধৰ্ম্মভাবের সঙ্গম স্থলে ব্ৰাহ্মধৰ্ম্ম রূপ এই যুগ ধৰ্ম্মের আবির্ভাব। উপনিষদের বাণী হইল, BuDS DuD S BDBDS SDBDBDS DB YDSS SDBB সামাজিক ভাবে ধৰ্ম্মসাধনের ব্যবস্থা নাই। “যদি ধৰ্ম্মলাভ