পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/৩৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


«Nor R बिदनांथ-छोदनी । এবং প্রতিষ্ঠার বল বা পুরুষকার তার সহায় হইয়াছিল। জ্ঞানের আলোকে সত্যদর্শন করিয়াছিলেন, প্ৰেম এবং অনুয়াগের সহিত দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হইয়া তাহা সাধন করিয়াছিলেন। ব্ৰাহ্মসমাজের প্রথম এবং প্ৰধান ব্যক্তি মহাত্মা রাজা রামমোহন রায় ছিলেন শিবনাথের নিকট পুৱষকার ও মনুষ্যত্বের দৃষ্টান্তস্বরূপ! রামমোহনের স্বাধীনতাপ্রিয়তা, স্বদেশপ্রেম হৃদয়ের বিশালত শিবনাথ সমগ্ৰ প্ৰাণ দিয়া গ্ৰহণ করিাছিলেন । বর্তমান যুগে যে-কেহ এদেশে জীবনের সার্থকতা লাভ করিতে ইচ্ছা করেন, তাকে রামমোহনের পদাঙ্ক অনুসরণ করিতেই হইবে । রামমোহন। একমাত্র পরব্রহ্মের মানসপুজা ঘোষণা করিয়া গেলেন। মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ সেই পূজাকে আত্মার অন্নজল বলিয়া গ্ৰহণ করিলেন । সামাজিক সংস্কারের দিকে তিনি গেলেন না । ব্ৰহ্মানন্দ কেশবচন্দ্ৰ বলিলেন, “চিন্তায়, বাক্যে, কাৰ্য্যে, ঠার উপসনা করিতে হইবে । ধৰ্ম্মের ক্ষেত্র পরিবার ও সমাজ । হিন্দুধৰ্ম্ম ব্যক্তিগত সাধনের ধৰ্ম্ম ৷” ব্ৰহ্মানন্দ কেশবচন্দ্ৰ খ্ৰীষ্টায় ধৰ্ম্মের ভাব গ্ৰহণ করিয়া তাকে সামাজিকধৰ্ম্ম করিলেন । এই ভাবটী কেশবচন্দ্ৰ শিবনাথের ভিতর আশ্চৰ্য্যরূপে সংক্রামিত করিয়া দিয়াছেন। শিবনাথের ভিতর রামমোহন রায়, মহর্ষি দেবেন্দ্ৰ নাথ ও ব্রহ্মানন্দ কেশবচন্দ্রের প্রভাব दछु नाशना কাৰ্য্য করে। নাই। কিন্তু শিবনাথের ধৰ্ম্মজীবনের ভিতর সেরূপ আশ্চৰ্য্য সামঞ্জস্য দেখিতে পাওয়া যায়, এমন আর কাহারও ভিতর দেখি নাই। রামমোহনের হৃদয়ের বিশালতা পুরুষকার স্বাধীনতা প্রিয়তার সঙ্গে মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথের সৌন্দৰ্য্য জ্ঞান ও কবিত্ব,