পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কিন্তু যে তার কানাই বলাই নেহাত ছোট্ট ছেলে— তাদের তরে রেখেছিলেন মেলে বিধাতা যে প্রকাণ্ড এই ধরা ; অঙ্গে তাদের দুরন্ত প্রাণ, কণ্ঠ তাদের কলরবে ভরা। শিশুচিত্ত-উৎস-ধারা বন্ধ করে দিতে বিষম ব্যথা বাজে মায়ের চিতে । কাতর চোখে করুণ সুরে মা বলে "চুপ চুপ’ একটু যদি চঞ্চলত দেখায় কোনোরূপ । ক্ষুধা পেলে কান্না তাদেব অসভ্যতা ; তাদের মুখে মানায় নাকো চেচিয়ে কথা ; খুশি হলে রাখবে চাপি, কোনোমতেই করবে নাকে লাফালাফি । অপূর্ব আর পূর্ণ ছিল এদের একবয়সি ; তাদের সঙ্গে খেলতে গেলে এরা হত পদে পদেই দোষী । তারা এদের মারত ধড়াধবড়, এরা যদি উল্টে দিত চড় থাকত নাকে গণ্ডগোলের সীমা— উভয় পক্ষেরই মা কানাই বলাই দোহার পরে পড়ত ঝড়ের মতো, С) е