পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নিষ্কৃতি শিশু ছেলের সহস্র আবদার তেমনি করেই সুপ্রসন্ন মুখে মঞ্জুলী তার বাপের নালিশ দণ্ডে দণ্ডে শোনে, হাসে মনে মনে । বাবার কাছে মায়ের স্মৃতি কতই মূল্যবান সেই কথাটি মনে করে গর্বমুখে পূর্ণ তাহার প্রাণ— “আমার মায়ের যত্ন যে জন পেয়েছে একবার আর-কিছু কি পছন্দ হয় তার ! হোলির সময় বাপকে সেবার বাতে ধরল ভারি । পাড়ায় পুলিন করছিল ডাক্তাবি, ডাকতে হল তারে । হৃদয়যন্ত্র বিকল হতে পারে ছিল এমন ভয় । পুলিনকে তাই দিনের মধ্যে বারে বারেই আসতে যেতে হয় । মঞ্জুলী তার সনে সহজ ভাবে কইবে কথা যতই করে মনে ততই বাধে আরো ! এমন বিপদ কারো হয় কি কোনোদিন । গলাটি তার কাপে কেন, কেন এতই ক্ষীণ ! 8 ግ