পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


यांश्लों হাতে নিয়ে রিক্ত আপন থালা ; তবু বলে, চায় না বিজয়মালা । সিংহাসনে একলা বসে রানী মূর্তিমতী বাণী । ঝংকারিয়া গুঞ্জরিয়া সভার মাঝে আমার বীণা বাজে । কখনো বা দীপকরাগে চমক লাগে, তারা বৃষ্টি করে ; কখনো বা মল্লারে তার অগ্রগধারার পাগল-ঝোরা ঝরে । তার-সকলে গান শুনিয়ে নতশিরে সন্ধ্যাবেলার অন্ধকারে ধীরে ধীরে গেছে ঘরে ফিরে । তারা জানে, যেই ফুরাবে আমার পালা আমি পাব রানীর বিজয়মালা । আমাদের সেই তরুণ সাথি বসে থাকে ধূলায় আসন-তলে ; কথাটি না বলে । দৈবে যদি একটি-আধটি চাপার কলি পড়ে খলি & Co.