পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মালা হল অবসান । তখন রানী আসন হতে উঠে আমার করপুটে তুলে দিলেন শূন্ত করে থালা অণপন বিজয়মালা । পথে যখন বাহির হলেম মালা মাথায় প’রে মনে হল, বিশ্ব আমার চতুদিকে ঘোরে ঘূর্ণিধুলার মতো । মানুষ শত শত ঘিরল তামায় দলে দলে— কেউ বা কৌতুহলে, কেউ বা স্তুতি চছলে, কেউ বা গ্রানির পঙ্ক দিতে গণয় ! হায় রে হায়, এক নিমেষে স্বচ্ছ আকাশ ধূসর হয়ে যায় । এই ধরণীর লাজুক যত সুখ ছোটোখাটে। আনন্দেরই সরল হাসিটক নদীচরের ভীরু হংসদলের মতো কোথায় হল গত । অামি মনে মনে ভাবি, “একি দহ নজ্বালা অামার বিজয়মালা ?” ç •,