পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পলাতক সইত না একবারে— তবু গেছি প্রিন্সিপালের দ্বারে বিনি মাইনেয়, নেহাত পক্ষে আধা মাইনেয়, ভর্তি হবার জন্যে। এক সময়ে মনে ছিল, আধেক রাজ্য এবং রাজার কন্তে পাবার আমার ছিল দাবি ; মনে ছিল, ধনমানের রুদ্ধ ঘরের সোনার চাবি জন্মকালে বিধি যেন দিয়েছিলেন রেখে অামাব গোপন শক্তি-মাঝে ঢেকে । তাজকে দেখি, নব্যবঙ্গে শক্তিটা মোর ঢাকাই রইল, চাবিট তার সঙ্গে । মনে হচ্ছে, ময়নাপাখির খাচায় অদৃষ্ট তার দারুণ রঙ্গে ময়ুরটাকে নাচায় ; পদে পদে পুচ্ছে বাধে লোহার শলা— কোন কৃপণের রচনা এই নাট্যকলা ! কোথায় মুক্ত অরণ্যানী, কোথায় মত্ত বাদল মেঘের ভেরী এ কী বাধন রাখল আমায় ঘেরি ! ঘরে ঘূবে উমেদারির ব্যর্থ তাশে শুকিয়ে মবি রোদন্ডুরে আর উপবাস । প্রাণটা হাপায়, মাথা ঘোরে, তক্তপোশে শুয়ে পড়ি ধপাস ক’রে । হাত-পাখাটার বাতাস খেতে খেতে 이 3