পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/২০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> ぬー পাল ও বর্জিনিয়া। কেবল তাহ পশ্চাদ্বন্ত্ৰী লঙ্গরের সহিত একগাছা রশিভেই আবদ্ধ রহিল মাত্র। ক্ষণকাল পরে তস্কপ অার এক ৰেগে আহত হইবামাত্র তাহাও ছিন্ন হইল এবং সেই জাহাজখানা তীরের অনতিদূরস্থ এক মগ্ন শৈলের উপরি নিক্ষিপ্ত হইল । জাহাজখানা মগ্ন শৈলে নিক্ষিপ্ত হইবামাত্র আমরা সকলেই “গেল রে! সৰ্ব্বনাশ হইল”। বলিয়া উচ্চৈঃস্বরে চীৎকার করিয়া উঠিলাম। তখন পাল একেবারে জ্ঞানশূন্য হইয়া নিৰ্ভয়ে দ্রুতবেগে সমুদ্রের অভিমুখে ধাবমান হইল। আমি অমনি তাহার হাত ধরিলাম এবং কহিলাম “বাছা ! তোমার এ কি দুবুদ্ধি! তুমি এখানে কি প্রাণ হারাইতে যাইতেছ। ’ আহ ! সে কি তখন আমার সে কথা শুনে, নিরাশ হইয় তাহার বুদ্ধিশুদ্ধি এককালে লোপ পাইয়াছিল । ধরিবামাত্র সে নিতান্ত বিরক্ত হইয়া আমার হাড় ছাড়াইতেই কহিতে লাগিল “ছাড় । আমাকে ধরিও না,ঐ বর্জিনিয়া গেল, এখন উহাকে ৰাচাইতে দাও । অামি এখন আর এখানে থাকিতে পারি না, দেখিয়া অামার বুক ফাটিয়া যাইতেছে’ । ভখন পাল গেলেই মরিবে তাহার সন্দেহ নাই, ইহা আমরা বিলক্ষণ জানিতাম, তাহাতে আমি ও দমিশ্র আপাততঃ কোন উপায় দেখিতে না পাইয়া, সে যেই ডৰিবে অমনি টানিয়া আনিব এই যুক্তি করিয়া, একগাছ কাছি দিয়া তাহার কোমরট ভাল করিয়া বাধিয়। ছাড়িয়৷ দিলাম এবং সেই কাছির অগ্রভাগ ধরিয়া থাকিলাম । তখন পাল বেগে সেন্টজিরানের অভিबूथ थादभांन श्ड्रेल 4ब९ अनउिदिल८बड़े गयूcजब्र