পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


..}^\\

  • , البره : ان * لا يلا.

~ JJ) S) ২৯শ ভাগ । ২য় খণ্ড " কাত্তিক, ২৩৩৬ { “সত্যমৃ শিবমৃ স্বন্দরমূ” guarpara Jakriso" o "bir L{rא?" “নায়মাত্মা বলহীনেন লভ্যঃ"aaa se » BG & © iu: ーガ○ ১ম সংখ্যা

  • শিবাজীর দক্ষিণ-বি জয়

স্তর যদুনাথ সরকার, সি-আই-ই এক সময়ে বিখ্যাত বিজয়নগর-সাম্রাজা কৃষ্ণা নদীর পরপারে সারা দাক্ষিণাত্য জুড়িয়া পূৰ্ব্ব সমূদ্র হইতে পশ্চিম সাগর,—-অর্থাৎ মাদ্রাজ হইতে গোয়া—পৰ্য্যন্ত বিস্তৃত ছিল। কিন্তু ১৫৬৫ খৃষ্টাব্দে দক্ষিণের মুসলমান স্বলতানের একজোট হইয়া বিজয়নগরের সম্রাটকে যুদ্ধে নিহত করিয়া তাহার রাজধানী লুঠ করিলেন। তাহার উত্তরাধিকারিগণ রাজধানী একস্থান হইতে অপর স্থানে সরাইতে লাগিল, কিন্তু ঐ যুদ্ধের পর হইতে সাম্রাজ্যে ভাঙ্গন ধরিল ; কতক প্রদেশ মুসলমানের কাড়িয়া লইল, আর কতক প্রদেশ স্বাধীন হইল। বিজয়নগরের শেষ সম্রাট । শ্রীরঙ্গ রায়ল ) সৰ্ব্বস্ব হারাইয়া তাহার সামন্ত ভ্রীরঙ্গপটনের রাজার দ্বারে আশ্রয় মাগিলেন ( ১৬৫৬ )। ইতিমধ্যে বিজাপুর ও গোলকুণ্ডার স্থলতানেরা বিজয়নগরের করদ-রাজাদিগের হাত হইতে বৰ্ত্তমান মহীশূর দেশ ও মাত্রাঙ্গ উপকূলের প্রায় সমস্তটাই কড়িয়া ইলেন । পূর্বের একছত্র সম্রাটের হারাইয়া, নিজ নিজ ক্ষুদ্র গম্ভীর মধ্যে পূর্ণ কর্তৃত্বের অভিমানে অন্ধ স্বার্থপর প্রাদেশিক হিন্দুরাজারা সঙ্ঘবদ্ধ হইতে পারিল না। প্রত্যেকে পৃথক পৃথক লড়ি৷ সহজেই মুসলমানের কাছে রাজ্য হারাইল অথবা বশ মানিল। এইরূপে ১৬৩৭ হইতে ১৬৫৬ সালের মধ্যে কুতুব শাহ গোলকুণ্ডার দক্ষিণ-পূৰ্ব্বে অগ্রসর হইয়া কাড়াপা এবং উত্তর-আর্কট জেলা (পালার নদীর উত্তরের অংশ ) এবং মাদ্রাজের সমুদ্রকুল অঞ্চলে শ্বিকাকোল হইতে সাদ্রাজ বন্দর (মাদ্রাজের প্রায় ৫০ মাইল দক্ষিণ) পৰ্য্যম্ভ দখল করিলেন। ইহার নাম হইল “হায়দরাবাদী কর্ণাটক।” ঠিক ইহার দক্ষিণে,—পালার হইতে কাবেরী নদী পৰ্যন্ত সমভূমি এবং প্রায় সমস্ত মহীশূর জুড়িয়া আদিল শাহ রাজ্য বিস্তার করিলেন। তাহার নাম হইল “বিজাপুরী কর্ণাটক।” অর্থ শস্য ও লোক-সংখ্যায় এই কর্ণাটক দেশ ভারতে জঙ্কি অত্যন্ত উৰ্ব্বর ; স্থানীয়