পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১ম সংখ্যা ] সময় লাগিবে। অথচ, এই দীর্ঘকাল স্বদেশ ছাড়িয়া স্বয়ূর কর্ণাটকে থাকিলে, শত্রুরা সেই স্থযোগে তাহার রাজ্যে মহা অনিষ্ট ঘটাইতে পারে। এই কারণে শিবাজী মুঘলসরকারের সহিত ভাব করিবার জন্য ব্যগ্র হইলেন । ১৬৭৬ সালের শেষভাগে মুঘল ও বিজাপুরের যেরূপ অবস্থা তাহাতে শিবাজীর খুব স্থবিধা হইল। বিজাপুরে নূতন উজীর বহলোল খাঁর আফঘান দল এবং তাহাঁর শক্ৰ দক্ষিণী ও হাবশী ওমরাদের মধ্যে খুনোখুনী বিবাদ বাধিয়া গিয়াছিল। মুঘল স্ববাদার বাহাদুর খ। বহলোলের উপর চট ছিলেন ; তিনি এই সুযোগে দক্ষিণীদের পক্ষ লইয়া বিজাপুর আক্রমণ করিলেন (৩১ মে, ১৬৭৬) এবং এই যুদ্ধে এক বৎসরেরও অধিক কাল ব্যাপৃত রছিলেন । সে সময়ে কেহই শিবাজীর দিকে তাকাইবার অবসর পাইল না । বাহাদুর দেখিলেন, বিজাপুর আক্রমণের পূর্বে শিবাজীকে হাত করিতে না পারিলে, র্তাহার নিজের শাসনাধীন প্রদেশ অরক্ষিত অবস্থায় থাকিবে। আর, শিবাজীও দেখিলেন যে যখন তিনি কর্ণাটক লইয়া জড়াইয় পড়িবেন তখন মুঘল স্ববাদার শক্ৰত করিলে মহারাষ্ট্র দেশের খুবই অনিষ্ট হইবে। অতএব “তুমি আমাকে জালাইও না, আমিও তোমাকে ছুইব না” এই শর্তে দুই পক্ষ বন্ধুত্ব করিলেন। শিবাজীর দূত নিরাঙ্গী রাবজী পণ্ডিত গোপনে বাহাদুর খাকে অনেক টাকা ঘুষ এবং প্রকাশ্বে বাদশাহের জন্য কিছু টাকা কর বা উপহার দিয়া সন্ধির লেখাপড়া শেষ করিলেন। ভাগ্য চিরদিনই উদ্যোগী পুরুষসিংহের উপর প্রসন্ন। শিবাজীর কর্ণাটক-জয়ের পক্ষে এক মহা সহায় জুটল। রঘুনাথ নারায়ণ হনুমন্তে নামক একজন সুদক্ষ অভিজ্ঞ এবং প্রভাব-প্রতিপত্তিশালী ব্রাহ্মণ শাহজীর সময় হইতে पाकfछौब्र चखिडांवक ७वर खेछौब्र ह्हेंञ्च कर्जीकैक-ब्रांखा শাসন করিয়া আসিতেছিলেন। ফলতঃ রঘুনাথ ও র্তাহার ভ্ৰতি জনাদনকে লোকে ঐ দেশের রাজার মতই জ্ঞান ब्रिउ । बाक्लायौ बङ्ग श्रेञ्च निवश्रङ भोजन७ाग्न পইলেন এবং রঘুনাথের নিকট হইতে রাজস্বের হিসাব তলৰ করিলেন। রঘুনাথ এত বৎসরে প্রভূর অগাধ শিবাজীর দক্ষিণ-বিজয় . بي( টাকা আত্মসাৎ করিয়াছিলেন ; ঈর্ষাবশে আন্ধান্ত মন্ত্রীরা সে কথা প্রকাশ করিয়া দিল । এতদিন একাধিপত্য করিবার পর, হিসাব দিতে বা হুকুমে চলিতে রঘুনাথ অপমান বোধ করিলেন । তিনি উজীরীতে ইস্তফা দিয়া কাশী যাত্রা করিবার ভাণে তাঞ্জোর হইতে সপরিবারে চলিয়া আসিলেন । এই সংবাদ পাইয়া শিবাজী তাহাকে অতি সমাদরে আহবান করিলেন এবং নিজ রাজ্যে চাকরি দিলেন। রঘুনাথ তাহাকে কর্ণাটকের জায়গা-জমি ও কৰ্ম্মচারীদের নাড়ীনক্ষত্র সুব বলিয়া দিলেন, এবং নিজ বংশের এতদিনকার প্রতিষ্ঠা-প্রতিপত্তি দিয়া শিবাজীর কর্ণাটক-আক্রমণে বিশেষ সাহায্য করিতে লাগিলেন। পেশোয়াকে নিজ প্রতিনিধি করিয়া বসাইয়া, কোকনপ্রদেশের শাসনভার অল্পাঞ্জী দত্ত (স্বরণীসূ )কে দিয়া, এবং উভয়ের অধীনে এক একটি বড় সৈন্যদল রাখিয়া,— ১৮৭৭ সালের জাহারির প্রথমে শিবাজী রায়গড় হইতে রওনা হইলেন। - ইতিমধ্যে র্তাহার দূত প্রহ্লাদ নিরাজী গোলকুণ্ডারাজ কুতুব শাহকে শিবাজীর সহিত সাক্ষাৎ করিতে রাজি করাইয়াছিলেন। প্রথমে স্বলতানের ভয় হইয়াছিল পাছে আফজল বা শায়েস্তা খার মত র্তাহার দশা ঘটে ! কিন্তু প্ৰহলাদ নানা প্রকার ধৰ্ম্মশপথ করিয়া তাহাকে বুঝাইলেন যে শিবাজী কখনও বিশ্বাসঘাতকতা করিবেন না। আর; মাদন্নাও সেই মত সমর্থন করিলেন এবং রাজাকে দেখাইয়া দিলেন যে শিবাজীকে কাছে জানিয়া বন্ধুত্ব পাক৷ করিতে পারিলে ভবিষ্যতে মুঘল-আক্রমণ হইতে গোলকুণ্ড রক্ষা করার নিশ্চিত উপায় হুইবে । 嫣 নিজ চোখে চোখে দৈন্তদের শৃঙ্খলার সহিত চালাইয়া, প্রত্যহ নিয়মিত কুচ করিয়া শিবান্ধী এক মাসে হায়দরাবাদ শহরে আসিয়া পৌছিলেন (ফেব্রুয়ারির ●थंथंध गर्श्वांश् ) । डिनि कफ़ इकूभ खांब्रि করিয়াছিলেন যেন তাহার সৈন্ত বা চাকর-বাকরদের কেহ পথে কোন গ্রামবাসীর জিনিষে হাত না দেয় বা স্ত্রীলোকের মানহানি न। क८ब्र । «यंथाभ छू-क्रॉब्रछन भांब्रांठों ७हे निब्रभ छत्र করিয়াছিল বটে, কিন্তু অপরাধীদের ফালী অথবা হাত পা কাটিয়৷ সাহ! দেওয়ায় এমন ভয়ের সঞ্চার হইল ষে এই