পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৩০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় সংখ্যা ] به جای جابجایی بیت= ব্ৰজনাথের বিবাহ RSS —কৰে আসবে তা ত আমরা কিছু জানি নে । ষ-ঠাকরণ আমাদের কিছু বলে দেননি, আর বাবুর गप्न जानांबाबूब कि रूषा इञ्च श्रांशबा ठा ८रुधन करब्र' জানব । দাদাবাৰু না কি কলকাতায় যাবে। —কেন ? —সেইখানে নাকি কারবার করবে। সবাই বলে দাদাবাৰু খুব কারবার বোঝে। এই দেখ না, হিজলী থেকে কত টাকা এনেচে । —তাত শুনেচি। কলকাতায় কি একলা থাকবে, না ইন্দুকেও নিয়ে স্বাবে ? —দাদাবাৰু ম-ঠাকরুণকে বলছিল, কলকাতায় একখানা বড় বাড়ী করবে, সবাইকে নিয়ে যাবে, ছোট দাদাবাৰু সেখানেই পড়বে | কৰ্ত্তা বোধ হয় যাবেন না । র্তার বয়স হয়েচে, এ বয়সে দেশ ছেড়ে কোথাও যাবেন নী ৷ —জামাইয়েরা কয় ভাই বোন ? —দুই ভাই, এক বোন। দিদিমণি শ্বশুরবাড়ী, একটি ছেলে । বউমা গেলে পর তাকে বোধ হয় নিয়ে আসবে। একটা কথা বলব ? —কি বলবে বল । –বাৰু বউমাকে ৰে গয়না দিয়েচেন দাদাবাবু নিজে পছন্দ করে” সে সব গড়িয়ে দিয়েচে । আমাদের বড় সাধ সেই গয়না একবার বউমার গায়ে দেখি । —এ আর কি এমন বড় কথা ! তোমরা বস, পান খাও, আমি তাকে গয়না পরিয়ে নিয়ে আসচি । তত্বের সঙ্গে ইন্দুলেখার যে-সকল গহনা আসিয়াছিল তাহা হেমাঙ্গিনীর দেরাজে তোলা ছিল। দেরাজ খুলিয়৷ তিনি ইস্কুলেখাকে ভাকিলেন। ইন্দুলেখাকে গহনা পরানো হইবে শুনিয়া স্বরম ও অপর মেয়ের ছুটিয়া আসিল । হরিমতীও আসিয়া দাড়াইলেন । তত্বের সঙ্গে খুব ফিকে গোলাপী রংয়ের সাড়ী ছিল, হেমাঙ্গিনী কস্তাকে সেইখানি পরাইলেন। তাহার পর একে একে অলঙ্কার গায়ে সাজাইয়া দিলেন। সমস্ত *ीक्री जरफ़ाब्री श्रृंझ्न, cभाüो ८भा? जवफ़छच किडू नाहे । হাতে জড়োয় চুড়ি, জড়োয় বাল, গলায় বড় বড় মুক্তার সাত নলা হার, মাঝখানে একখানা বড় পান্নার পদক । কাণে হীর আর চুনির দুল, মাথায় হীরার কাপট জার ছোট ভাজ। পায় চরণ-পদ্ম আর পাইজর। হেমাঙ্গিনী ইন্দুলেখাকে মাথায় ঘোমটা দিতে দিলেন না, বলিলেন,— ওরা দেখতে চাইচে, ভাল করে দেখুক । হরিমতী স্কুরমার গাল টিপিয়া দিয়া বলিলেন,—কি স্বরো, গয়না দেখে তোর হিংসে হচ্চে না ? —পিসিমার যেমন কথা ! আহলাদ হবে না হিংলে হবে ? —তোরও যদি রাতারাতি ঐ রকম একটি বর জোটে তা হলে বেশ হয়। —আমন কর ত পিসিমা পালিয়ে যাব । হেমাঙ্গিনী ইন্দুলেখার হাত ধরিয়া ঘরের বাহিরে লইয়া আসিলেন। . অলঙ্কারে প্রতিফলিত আলোক, নম্ৰমুখী কন্যার অতুল রূপরাশি, মৃদ্ধ পদবিক্ষেপে নূপুরশিঙ্গন। সকলে ইঙ্গুলেখাকে ঘিরিয়া দাড়াইয়া মুগ্ধ হইয়া তাহাকে দেখিতে লাগিল । একবিংশ পরিচ্ছেদ cगांभप्लांध्र शांशंब्रां पठस्र लद्देश्ध जिग्रांझिल ठांझांब्रां फेनूनtफ़ किब्रिध्ना शिञ्च छदश्चन्त्रौब्र कां८छ् नकल कषी বলিল। বন্ধু অসামান্ত স্বন্দরী শুনিয়া তাহার ত জানৰ হুইলই, তাহার উপর কুটুম্ব ভাল হইয়াছে শুনিয়া তাহার আরও আনন্দ হইল। পুরাতন দাসীকে জিজ্ঞাস করিলেন, বাড়ীর কর্তাকে কেমন দেখলি ? —তিনি ত একবার দেখা দিয়েই সরে' গেলেন, আর তাকে বড়-একটা দেখতে পাইনি। তাকে দেখলে মনে হয় না যে তোমার বউ তার মেয়ে। গোফ জোড়া ছটো মুড়ো বাটার মতন, চোখ যেন কপালে চড়ে’ আছে, একবারও মুখে হাসি দেখলাম না। কিন্তু তোমার বেহান একেবারে মাটির মান্থব, আমাদের কত ষদ্ধ করলেন, কত ঘটা করে খাওয়ালেন। আমি বলতেই মেয়েকে গয়না পরিয়ে সাজিয়ে নিয়ে এলেন। মেয়ের কি যে রূপ, কেমন নরম স্বভাব, দেখলেই বুঝতে,