পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৩০২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় সংখ্যা ] ব্ৰজনাথের বিবাহ ২৬৩ দেখিলেন সতের আঠারোজন সশস্ত্র লোক মশাল জালিয়া বাড়ীর দরজার কাছে দাড়াইয়াছে । বরদাকান্ত পুলিশের লোককে যেরূপ ভয় করিতেন, ডাকাতকে তেমন ভয় করিতেন না। করিবার কথাও নয়। তিনি রাগিয়া উঠিয়া দাড়াইলেন, বলিলেন— আমার বাড়ীতে এ কি এ ? আমি কে তোমরা छांन ? একজন উত্তর করিল,—বিলক্ষণ জানি । আপনি ভোলাবাৰু। —কোন সাহসে তোমরা এখানে এসেছ ? —সর্দারের হুকুম। —কে তোমাদের সর্দার ? —হরেরাম সর্দার । —সেও এখন বুড়ো হয়েচে, তার নামও কেউ জানে না। আমার বাড়ীতে কি মতলবে এয়েচ ? ডাকাতি করবে ? —রাম, আমরা কাণাকড়িও নেব না। সর্দার বলে দিয়েচে, কে একজন বাৰু এখানে আসবে, তাকে কেউ কিছু না বলে তাই আমাদের দেখতে হবে । —তোমরা পথ ছাড়, আমি বাহিরে যাব। দুইজনে বরদাকান্তর পথ রোধ করিল। যে র্তাহার সঙ্গে কথা কহিতেছিল সে বলিল,—রলে বাবু, অত ব্যস্ত হও কেন ? একটু সৰুর কর। বরদাকান্ত দেখিলেন, ব্ৰজনাথ দিব্য জামাইয়ের সাজে বাড়ীতে প্রবেশ করিল । বরদাকান্তর দিকে না চাহিয়৷ সোজা বাড়ীর ভিতর চলিয়া গেল। জামাইকে অভ্যর্থনা বা সম্ভাষণ করিবার সমস্ত আপন আপনি চুকিয় গেল। কিন্তু অপমান হইল কাহার ? জামাইয়ের ত নয় । ব্ৰজনাথ চলিয়া গেলে পর সে দুই ব্যক্তি বরদাকান্তর পথ ছাড়িয়া দিল । যে বরদাকান্তর সঙ্গে কথা কহিয়াছিল সে বলিল,—দেখো বাৰু, যেন কোন গোলমাল না হয়, তা হলে আমরা বাড়ীর ভিতর যাব, সর্দারের হুকুম। बब्रमांकांख ब्रांत्रिब थांबून कायक्लाहेष्ठ लांनिध्णन, বাড়ীর ভিতর গেলেন না। দ্বাবিংশ পরিচ্ছেদ জামাই আসিবে বলিয়া বাড়ীর ভিতর সকলে ভারি ব্যস্ত। কোন সংবাদ না আসিলেও জামাই অস্ততঃ এক রাত্রি শ্বশুরবাড়ীতে কাটাইবে এ আশা সকলেই করিয়াছিল। সন্ধ্যার সময় মেয়েরা যেখানে সাজগোজ করিতেছিল হরিমতী সেইখানে উপস্থিত হইয়া বলিলেন, —ষ্ঠাখ, বিয়ের রাত্রে আমি এখানে ছিলাম না, বাসরও জাগিনি । আজ আমি জামাইয়ের সঙ্গে ছুটো কথা कश्व । जांख चांभि *ान्निनि । স্বরম বলিল,—ও কি কথা, পিসিমা । তুমি কি জামাই-বাবুর সঙ্গে তামাসা করবে না কি ? তুমি ষে শ্বাশুড়ী হও । —সে কাল হব । আজ আমি তোদের দলে । —আমি বলে’. দেব তুমি শ্বাশুড়ী হয়ে ঠানদিদি সেজেচ । - — আমি বলব ইন্দুর বিয়ে হয়েচে বলে তোর হিংসে হয়েচে, তুই বিয়ে-পাগলী হয়েচিস। —ও সব কি ছাই কথা ! ও রকম করলে জামি পালিয়ে যাব । & এই রকম কথাবাৰ্ত্তার মাঝখানে একজন ঝি ছুটিয়া আসিল । তাহার মাথার কাপড় খসিয়া গিয়াছে, ভয়ে চক্ষু কপালে উঠিয়াছে। কঁাপিতে কঁাপিতে বলিল,— সৰ্ব্বনাশ হয়েচে । বাড়ীতে ডাকাত পড়েচে । ভয়ে সকলে চীৎকার করিয়া উঠিল। রাধানাথ ঠাকুর হেমাঙ্গিনীর সঙ্গে কথা কহিতেছিল, গোলযোগ শুনিয়া তাড়াতাড়ি আসিয়া জিজ্ঞাসা করিল, কি হয়েচে ? —ডাকাত পড়েচে । —পাগল না কি ! সদ্ধারাত্রে কি ডাকাত পড়ে ? আর এ বাড়ীতে ডাকাতের ভয় নেই । তোমরা গোলমাল করে না, আমি দেখে আসচি। ब्रांथांनार्ष बांश्रिब्र बाहे८७८झ्, नब्रज cशांछांद्र अजनां८षब्र সঙ্গে দেখা। রাধানাখ বলিল,—এস, এস, জামাইবাৰু, বাড়ীর সকলে তোমার পথ চেয়ে রয়েচে । বাইরে কিসের গোল ।