পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


曾心8 প্রবালী-মাঘ, లిONు [ ২৯শ ভাগ, ২য় খণ্ড একটা স্থল প্রমাণ দেখুন। সমগ্র ভারতের জন্ত ব্যবস্থাপক সভার বেসরকারী সভ্যদের চেষ্টায় বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন প্রভৃতি যে-সব কল্যাণকর আইন হইয়াছে, কোন বাঙালী সভ্য তাহার একটিরও রচয়িত ও প্ৰবৰ্ত্তক নহেন । লাহোরে ও অস্তুত্র সমগ্রভারতীয় কতকগুলি সভায় অধিবেশন হুইয়াছিল। ভারতবর্ষের লোকসংখ্যার ষষ্ঠাংশ বাঙালী। এই সকল সভার নেতা ও প্রধান কৰ্ম্মীদের মধ্যে যষ্ঠাংশ বাঙালী থাকিবেন এরূপ আশা করা যায় না ; কারণ যখন যে-প্রদেশে সভাগুলি হয়, অধিকাংশ কৰ্ম্মী সেই প্রদেশের লোকই হইয়া থাকেন। কিন্তু সেই প্রদেশের বাহিরের মত নেতা ও প্রধান কৰ্ম্মী তথায় উপস্থিত হইবেন, তাহার বঠাংশ বাঙালী হইবেন, ইহা আশা করা অকুচিত নহে। আমরা বলিতেছি না, প্রত্যেক প্রদেশের লোকসংখ্যার অনুপাতে বাহির হইতে নেতা ও কৰ্ম্মী লওয়া উচিত ; কারণ সেরূপ অসঙ্গত প্রস্তাব ভিন্ন ভিন্ন ধৰ্ম্ম সম্প্রদায়ের লোকসংখ্যা অনুসারে চাকুরী দিবার প্রস্তাব বা রীতির মতই আছুমোদনের অধোগ্য । আমাদের আকাঙ্ক্ষা এই, যে, সমগ্রভারতীয় কাজে বাঙালীরা এরূপ উৎসাহ, বিচক্ষণতা, কষ্ঠিতা ও তৎপরতা দেখাইবেন, যে, স্বভাবতই তাহারা ঐরূপ কাজে উপযুক্ত সংখ্যায় নিৰ্ব্বাচিত হইখেন। পৌষমাসের সারা দেশের কাজে লাহোরে বাঙালীর স্থান বাংলার লোক-সংখ্যার चशशाङ पcष8 श्शि न। जांधब बउ घूब জানি, কয়েকজন মাত্র বাঙালী কয়েকটি সভার নেতৃত্ব করিয়াছিলেন । তাহাঁদের নাম ও কাজ— আচাৰ্য্য প্রফুল্লচন্দ্র রায়—কংগ্রেসপ্রদর্শনী খোলা, এবং লাইব্রেরী কনফারেন্সের সভাপতিত্ব। ডাক্তার বিধানচন্দ্র রায়—চিকিৎসা কনফারেন্সের সভাপতিত্ব । শ্ৰীমতী স্বহাসিনী নাম্বিয়ার (ডাঃ অঘোরনাথ চট্টোপাধ্যায়ের কল্প ও শ্ৰীমতী সরোজিনী নাইডুর ভগ্নী )— নওজুয়ান ( যুবক ) সভার সভানেত্রীত্ব । ঐবিমলানন্দ নাগ— খৃষ্টীয় কনফারেন্সের সভাপতিত্ব। ঐরামানন্দ চট্টোপাধ্যায়— একেশ্বরবাদীদিগের কনফারেন্সের সভাপতিত্ব এবং জাভপাত-তোড়ক ( জাতিভেদ ও পংক্তিভেদ নাশক ) মণ্ডলের কনফারেন্সের সভাপতিত্ব। ম্যাঞ্চেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক রাধাকৃষ্ণন ধাৰ্ম্মিক ও দার্শনিক বিষয়ে বক্তৃতা দেওয়াইবার জন্ত বিলাতে ছিৰাট ট্রাষ্ট্র, প্রতিষ্ঠিত হয়। অনেক বিখ্যাঙ্ক লোক হিবাৰ্ট লেকৃচ্যর দিয়াছেন। ভারতীয়দের মধ্যে সৰ্ব্বপ্রথম ঐযুক্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কয়েকটি হিবাট লেকৃচ্যার हिज्र निभन्जिङ श्न । चश्इडाँथयूङ डिनि ७ श्रृंशीश्व তাহা দিতে পারেন নাই। তাহার পর কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শনের অধ্যাপক শ্ৰীযুক্ত সৰ্ব্বপল্লী রাধাকৃষ্ণন আহুত হন। তিনি সম্প্রতি ম্যাঞ্চেষ্টার বিশ্ববিদ্যালযে "An Idealist View of Life" (xian towa Tow আদর্শামুসারী একটি অভিমত ) বিষয়ে চারিটি বক্তৃত করেন। লওনের একেশ্বরবাদীদের কাগজ ইন্‌কোয়ারারে এই বক্তৃতাগুলির খুব প্রশংসা বাহির হইয়াছে। ঐ কাগজের ২১শে ডিসেম্বরের সংখ্যায় লিখিত হইয়াছে – “Throughout the course . the audiences wer. large and highly appreciated , the eloquence, humour and learning of the lecturer. Professo; Radhakrishnan spoke_on the modern challenge ti religious beliefs offered by , the sciences, thi ways of escape provided by dogmatic. denial and dogmatic affirmation, the nature of religious experi. ence, and finally the , confirmation of intuition in the spheres of intellectual endeavour, aesthetics and ethics.” 歌 鹏,暇晶,姆 譬锡 ■ “Few lectures given at the University, in living memory have awakened such, keen interest and evoked such warm enthusiasm.” বন্দবিলায় সত্যাগ্ৰহ বন্দবিলায় ইউনিয়ন বোর্ড স্থাপনে তথাকার লোকদের আপত্তি সত্ত্বেও গবন্মেণ্ট সেখানে বোর্ড স্থাপন করিয়৷ ট্যাক্স আদায় করিতে প্রবৃত্ত হন। তাছারা ট্যাক্স না দেওয়ায় সম্পত্তি ক্রোক ও নিলাম এবং অন্তবিধ উৎপীড়ন চলিতেছে। ইউনিয়ন বোর্ড দ্বারা যদি লোকদের হিত হয়, তাহা হইলে তাহাদিগকে তাহা বুঝাইয়া বোর্ড স্থাপন করাই কৰ্ত্তব্য ছিল। সরকার বাহাদুরের ক্ষমতা আছে। কিন্তু ক্ষমতা থাকিলেই বলপ্রয়োগ দ্বারা সব কাজ করিবার চেষ্টা করা বুদ্ধিমত্তা ও রাজনীতিজ্ঞতার পরিচায়ক নহে। উৎপীড়ন ও ক্ষতি সত্বেও ষে লোকেরা সত্যাগ্রহে দৃঢ় আছে, তাহ প্রশংসার বিষয়। উপকূলের নিকটস্থ সমুদ্রে জাহাজ চালন ইষ্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানীর রাজত্বের জারভের সময়েও ভারতবর্ষের সমূত্রোপকূলে হাজারটি বন্দর ছিল এবং লক্ষ जक cणांक बाशख निर्वां★, खांशंख छांलन, छाहांब cयाञ्चाहे ও মাল খালাস প্রভৃতি কাজ করিয়া রোজগার করিত। তাহার পর কোম্পানীর ও ইংরেজ বণিকদের কৃপায় বঙ্গরের সংখ্যা সামান্ত কয়েকটিতে পৌছিয়াছে, দেশী cणांक्रनग्न बांशंख धूब कबिब्बांtझ ७श्वर छांब्राउ ७कठि७