পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৯৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\b8 R প্রবাসী-ফাঙ্কন, ১৩৩৬ [ ९s* छांनं, २व्र थ७ গিয়া অবস্থাটা বুৰিয়া আসিল । দেবব্রত নিজেই সব স্বীকার করিয়াছে সাক্ষ্য প্রমাণের প্রয়োজন হয় নাই, কিন্তু সমীরের জানালা খুলিয়া দেওয়ার কথা কিছুই বলে নাই। বলিয়াছে সোমবারের খুব ভোরে চুপি চুপি লুকাইয়া বোর্ডিংয়ে সে চুকিয়াছিল, কেহ টের পায় নাই। স্কুল বসিলে ক্লাসে ক্লাসে হেডমাষ্টারের সাকুলার গেল যে, টিফিনের সময় স্কুলের হলে দেবব্রতকে বেত মারা হইবে, সকল ছাত্র ও টিচারদের সে সময় সেখানে উপস্থিত থাক। চাই । সমীর গিয়া রমাপতিকে বলিল—আপনি একবার বলুন না রমাপতি-দা হেডমাষ্টারকে, ও ছেলেমাহুষ ধাকৃতে পারে না বাড়ী না গিয়ে, আপনি তো জানেন ও কি রকম home-sick ? মিথ্যে মিথ্যে ওকে তিন শনিবার ছুটি দিলে না সেকেন মাষ্টার, ওর কি দোষ • উপর-ক্লাসের ছাত্রদের ডেপুটেশনকে হেডমাষ্টার ইাকাইয়া দিলেন। টিফিনের সময় সকলে হলে একত্র হইলে দেবব্রতকে আনা হইল। ভয়ে তাহার মুখ শুকাইয়া ছোট হুইয়া গিয়াছে। হেডমাষ্টার বজ্ৰগম্ভীর স্বরে ঘোষণা করিলেন যে, এই প্রথম অপরাধ বলিয়া তিনি শুধু বেত মারিয়াই ছাড়িয়া দিতেছেন নতুবা স্কুল হইতে তাড়াইয়া দিতেন। অপু দেখিল হেডমাষ্টার হইতে সকল টিচারই দেবব্রতকে বোডিং-পালানো দুরন্ত, উচ্ছ জ্বল বালকের উদাহরণ বলিয়া ধরিয়া লইতেছেন, তাহার আসল মনের রূপটি কেহই বুঝিবার চেষ্টাও করিলেন না। রীতিমত বেত চলিল। কয়েক ঘা বেত খাইবার পরই দেবব্রত চীৎকার করিয়া কাদিয়া উঠিল। হেডমাষ্টার গর্জন করিয়া বলিলেন,—চুপ ! bend this way, bend—মার দেখিয়া বিশেষ করিয়া দেবব্রতের কাল্পায় অপুর চোখে জল আসিয়া গেল । অপু উঠিয়া বারান্দায় গেল। ফিরিয়া আসিতে সমীর ধমক দিয়া চুপিচুপি বলিল—তুই ও-রকম কাচি ८क्न चशूर्क ? थांबू न-cश्छयाडेब्रि बद्रव - இ. সরস্বতী পূজার সময় তাহার আটজান চান ধরাতে জপুৰত্ব বিপদে পড়িল । মাসের শেষ, হাতেও পয়সা cङबन नहेि, चषक cन ब्रूष कांशदकe 'न' बनिष्ठ পারে না, সরস্বতী পূজার টাঙ্গা দিয়া হাত একেবারে थानि झझेब cगंण । 8यकांद्दल नृशैब्र बिछांना कब्रिज-- খাবার খেতে গেলিনে অপূৰ্ব্ব ? সে হাসিয়া ঘাড় নাড়িল । সমীর তাহার সব খবর রাখে, বলিল—আমি বরাবর দেখে আসূচি অপুৰ্ব্ব হাতের পয়সা ভারী বে-আন্দাজ খরচ করি তুই—বুঝে স্কজে চললে এ রকম হয় না— আটআনা চাদা কে তোকে দিতে বলেচে ? অপু হাসিমুখে বলিল—আচ্ছা, আচ্ছা যা তোকে আর শেখাতে হবে না—ভারী আমার গুরুঠাকুর— সমীর বলিল—না হাসি নয়, সত্যি কথা বলচি । আর ওই ননী, তুলে, রাসবেহারী ওদের ও-রকম বাজারে নিয়ে গিয়ে খাবার গাওয়াস কেন ? অপু তাচ্ছিল্যের ভঙ্গিতে বলিল-যাঃ বকিস্নে— ওরা ধরে খাওয়াবার জন্যে তা করবো কি ? সমীর রাগ করিয়া বলিল—খাওয়াতে বল্লেই অমূনি খাওয়াতে হবে ? ওরাও দুষ্টুর ধাড়ি, তোকে পেয়েচে ওই রকম ভাই । অন্ত কারুর কাছে তো কই ঘেসে না ! আড়ালে তোকে বোকা বলে তা জানি ? - ই্যা বলে বৈকি ! —আমার মিথ্যে কথা বলে লাভ ? সেদিন মণি-দার ঘরে তোর' কথা হচ্ছিল—ওই বদমায়েস রাসবেহারীটা বলছিল—ফাকি দিয়ে খেয়ে নেয়,—আর ও সব কলার লোজেঙুল কিনে এমে বিলিয়ে বাহাদুরী কর্ডে কে বলেচে তোকে ? সমীর নিতান্ত মিথ্যা বলে নাই। জীবনে এই প্রথম নিজের খরচপত্র অপুকে নিজে বুঝিয়া করিতে হইতেছে, ইহার পূৰ্ব্বে কখনও পয়সাকড়ি নিজের হাতের মধ্যে পাইয়া নাড়াচাড়া করে নাই- কাজেই সে টাকা পয়সার ওজন বুঝিতে পারে না। স্কলারশিপের টাকাइहेरङ ८दां6ि१७ब्र शब्रछ भिन्नैोहेब्रा छैांकांझहे शङथब्रद्दछब्र জন্ত বঁাচে--এই দেড় টাকা দু’টাকাকে সে টাকার হিসাবে না দেখিয়া পয়সার হিসাবে দেখিয়া থাকে। ইতিপূৰ্ব্বে কখনও আটটা পয়সা একত্র হাতের মধ্যে পায় নাই— একশে কুড়িটা পয়সা তাহার কাছে কুবেরের ধনভাণ্ডারের