পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মল্পজগতে ভারতের স্থান ব্যায়ামাচাৰ্য্য ঐশ্বামন্বন্দর গোস্বামী ভারতে যে-সব মল্পের উদ্ভব হইয়াছে তাহারা বর্তমান মল্পজগতকে কতটা আলোড়িত করিয়াছেন এবং তাহার ফলে মল্পজগতে ভারতের স্থান কোথায় নির্দিষ্ট হইয়াছে, এই প্রবন্ধে তাহারই কথা আলোচনা করিব । বর্তমান ভারতের অগ্রণী মল্পগণ যখন স্যানডোর খ্যাতি-প্রতিপত্তি ইউরোপের সীমা অতিক্রম করিয়া এসিয়া আমেরিকার প্রান্তে শ্রত হইতেছিল তখন ভারতের মল্লভূমিতে গোলাম, দেবীচৌধুরী ও রামমূৰ্ত্তি—এই ত্ৰিমূৰ্ত্তির আবির্ভাব ঘটে। ইহারা ভারতীয় ব্যায়াম-পদ্ধতির উপযোগিতা ও উৎকৃষ্টতা এবং ভারতবর্ষীয় মল্পগণের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিপাদনের জন্ত বিশেষ ভাবেই উৎস্থক ছিলেন। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য উভয়বিধ ব্যায়াম-পদ্ধতির পরস্পর তুলনামূলক আলোচনার পক্ষে ইহা একরূপ সন্ধিক্ষণ বলা যাইতে পারে। র্যাহারা এসম্বন্ধে প্রকৃত তথ্যান্বেষী তাহাদের পক্ষে অপূৰ্ব্ব স্থযোগ সমুপস্থিত झ्झेब्रांछ्जि । বিশ্বজয়া গোলাম ; জাতিবর্ণনির্বিশেষে সকলকে যুদ্ধার্থ আহবান ১৮৯৪ খৃষ্টাম্বে তুরস্বদেশীয় তিনজন স্ববিখ্যাত মল্প প্যারিসে উপস্থিত হন। র্তাহাদের নাম ইম্ফ ইসমাইল, নৌবুলা এবং কার-ওসমান। ইস্কফের উচ্চতা -২",ভার ২৬৯ পাউও, বক্ষস্থল ৫১২ এবং গ্রীবা ১৮২% নৌবুলার উচ্চতা এবং ভার যথাক্রমে ৬-৬ এবং ৩৩•* fাউও ; আর কার-ওসমানের উচ্চতা ছিল ৫-১০৫ শরীরের গর ২২০ পাউণ্ড এবং বক্ষস্থল ৫১ং"। ইহারা তিনজনেই Smooth type-cestys i tri gör, Roxx Fttvin র্বিাপেক্ষা শ্রেষ্ঠ মল্ল সাবেসকে (Sabes)—ধtহার সহিত ৱল পরীক্ষা করিতে তখন কেহই সমর্থ ছিল না—কয়েক সকেণ্ডের মধ্যেই পরাজিত করেন । তারপর ইস্বফ সমগ্র ইউরোপ এবং আমেরিক পরিভ্রমণ করিয়৷ যে-যে, মল্প তাহার সহিত বল-পরীক্ষা করিতে সাহসী হইয়াছিল তাহাদের সকলকেই ভূতলশারী করেন। তারপর মহা বলশালী ভীমকায় তুরস্বদেশীয় মন্ত্র কুরডেরেলি ইউরোপে পদার্পণ করেন। তাহাকে দেখিয়া পাশ্চাত্য মল্পজগৎ ভয়ে ও বিস্ময়ে স্তম্ভিত হয় এবং তিনি সকলকেই তাহার সহিত বলপরীক্ষার জন্ত পুনঃ পুনঃ আহবান করিলেও কেহই তাহার সম্মুখীন হইতে সাহসী হন নাই। তারপর পৃথিবীর মধ্যে সৰ্ব্বাপেক্ষা বিজ্ঞানসম্মতভাবে মল্লযুদ্ধ পটু গোলাম ভ্রাত কাল্লু এবং রহমানের সহিত ১৯•• খৃষ্টাব্দে প্যারিসে দেখা দেন। ইউরোপীয় রজভূমিতে ভারতীয় মল্পের ইহাই সৰ্ব্বপ্রথম আবির্ভাব । "বিশ্বজেতা” উপাধিলাভের জন্ত গোলাম ১৯০০ সালের ২৯শে মে তারিখে পাশ্চাত্যের যাবতীয় মল্পগণকে প্রতিযোগিতায় আছান করেন। পণ্ডিত মতিলাল প্রতিভূস্বরূপ তত্রস্থ ভেলে নামক ধনাগারে পনের হাজার ফ্র গচ্ছিত রাখেন। কিন্তু একজন ইউরোপীয় মল্পও সে আহানে সাড়া দিতে অগ্রসর হয় নাই। অবশেষে— “লাগু দ্যে লা প্রেস"-এর পরিচালক ভাইকাউণ্ট অফ. চেম্বার, তুকীমল্ল কুরডেরেলির পক্ষ হইতে • • • • ফ্রী বাজি রাখিয়া উভয়ের মধ্যে শক্তিপরীক্ষার স্থযোগ করিয়া দেন। বুলভার অফ ক্লিসির বিস্তৃত ক্ষেত্রে এই দ্বন্দ্বযুদ্ধ সংঘটিত হয়। কুচবিহারাধিপতি ছিলেন মীমাংসক । যুদ্ধ উপস্থিত হইবামাত্রই গোলাম লম্ফপ্রদানপূর্বক ডেরেলির উপর পড়িয়া তৎক্ষণাৎ তাহাকে ভূতলশায়ী করেন ও ভেরেলির দুই স্কন্ধদেশ ভূমিলগ্ন করিয়া রাখেন। কিন্তু কতকগুলি লোকের পক্ষপাতিত্বে অনেক তর্কবিতর্কের ফলে পুনঃপরীক্ষাই স্থির হয় ।