পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৭২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৫ম সংখ্যা ] মল্পজগতে ভারতের স্থান ৭১৯ বাহ আকুঞ্চিত ২৪ই"। দুঃখের বিষয়, তাহার অঙ্গের দৈর্ঘ্য *** *s অক্ষাদ্য অংশের পরিমাণ যে কত ছিল তাহার নিদর্শন কব জী •tem vt ai I fwa e *tw, vsû Smooth type গ্রীব sఆ’ এত বড় আর এতটা শক্তিশালী মল্ল এক কিঙ্কর ব্যতীত বক্ষ ( স্বাভাবিক অবস্থায় ) 88+os” পৃথিবীতে আর কেহ জন্মগ্রহণ করেন নাই। আর এই ষে কটি ૭૨-ક્ત’ এত শক্তি ও এত বৃহদাকার শরীর—ইহাও কেবলমাত্র বাহু ( মাকুঞ্চিত ) پھی۔ بھلا" ” ভারতীয় প্রথাকুযায়ী ব্যায়ামাভ্যাসের ফল । পুরোবাহু ులిప్టె" ভার-উত্তোলনে ভারত কি প্রকার আদর্শ উরু २७३** স্থাপন করিয়াছে *ficघ्रन्न निश्च ( calf ) st흘" বর্তমান পাশ্চাত্য ভার-উত্তোলনকারিগণ পৈশিক শক্তির ষে আদর্শ স্থাপন করিয়াছেন তাহা স্পষ্টই প্রমাণ করে যে, মানব উপযুক্ত সাধনা দ্বারা কত অধিক শক্তি লাভ করিতে পারে। আর এই পাশ্চাত্য পদ্ধতি ও তাহা হইতে উৎপাদিত শক্তির আদশের সহিত ভারতীয় পদ্ধতি ও আদর্শের তুলনা করিলে আমরা দেখিতে পাই যে, ভারতীয় পদ্ধতি শক্তির আদর্শকে কত উচ্চতর সোপানে উত্তোলিত করিতে সমর্থ হইয়াছে। প্রাচীন ভারতে পেশীর আয়তন এবং শক্তি উভয়েরই বৃদ্ধিসাধনে ভার লইয়া ব্যtয়ামের প্রবর্তন হয় । তারপর মধ্যযুগে ভারতে যদিও এই প্রকার ব্যায়াম প্রচলিত থাকে, তত্ৰাচ তাহার অবনতি ঘটে। দুঃখের বিষয়, বর্তমান ভারতে ভারতীয় মল্পবিদ্যার এই অঙ্গ প্রায় লুপ্ত হইতে বসিয়াছে। সেই জন্যই বৰ্ত্তমান ভারত বহুসংখ্যক খ্যাতনামা ভার-উত্তোলনকারী মল্প-সমাজে উপস্থিত করাইতে পারে নাই। তবু বিস্ময়ের বিষয় এই যে, এমতাবস্থাতেও ভারতীয় প্রথায় স্বই ভারতীয় পদ্ধতিতে শিক্ষিত ভারতের সস্তান দেবী চৌধুরী র্তাহার অমান্থষিক ভারোত্তোলন ক্ষমতায় জগতকে স্তম্ভিত করিতে সমর্থ হইয়াছিলেন। র্তাহার অমান্থবিক শক্তির তুলনা জগতে মেলা ভার। র্তাহার শক্তির পরিমাণ নির্ণয় করিতে হইলে আমাদের পাশ্চাত্য বলশালিগণের সম্বন্ধে কিঞ্চিৎ আলোচনা করিতে হুইবে । স্বঠাম জ্ববিদ্যন্ত দেহের আদর্শ স্তাণ্ডো। আধুনিক যুগে ব্যায়াম-জগতে স্তাণ্ডোর দ্বান অসাধারণ। "Muscular Type-এর মধ্যে স্তাণ্ডোর স্বগঠিত দেহু ছিল অতুলনীয়। দৈহিক ওজন ১৮০ পাউণ্ড । পূৰ্ব্বেই বলিয়াছি, দেহের গঠনসৌন্দর্ঘ্যে র্তাহার সমকক্ষ কচিৎ দৃষ্ট হয় ; আর উপযুক্ত উপায় অবলম্বন रुjांब्रांत्रां5iई] =ौश्चांभवृश्चद्ध cजीचां★ौ করিলে শরীরকে যে এমনই স্বন্দরভাবে গড়িয়া তোল স্বায় তাহার পথপ্রদর্শক ও প্ৰবৰ্ত্তক স্যাণ্ডো । বলা বাহুল্য, সমগ্র শারীরসাধক তাহার নিকট চিরঞ্চণী । এই প্রসঙ্গে ইহা স্বীকার করিতে আমরা বাধ্য যে, বর্তমানে