পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আচাৰ্য্য অক্ষয়কুমারের স্মৃতি-পূজা শ্ৰীক্ষিতীশচন্দ্র সরকার, এম-এ, বি-এল ১৮৬১ খৃষ্টাব্দের ১লা মাচ্চ শুক্রবার অপরাহ্লে নদীয়া জেলার নওপাড়া থানার ভাস্থগত সিমলা গ্রামে ভগবানচন্দ্র মজুমদার মহাশয়ের বাড়ীতে অক্ষয়কুমারের জন্ম হয়। মীরপুর রেলষ্টেশনের অনতিদূরে গৌরী নদীর তীরেক্ট গ্রামটি অবস্থিত । ভূমিষ্ট হুইবার পরলোকগত অক্ষয়কুমার মত্রের পর মৃতজ্ঞানে অক্ষয়কুমার পরিত্যক্ত হইতেছিলেন, এমন সময় মীরপুর কুঠির এক ইংরেজ ধাত্ৰী আসিয়া র্তাহাকে সঞ্জীবিত করেন। তাহার পিতা স্বৰ্গীয় মথুরানাথের পূর্বপুরুষগণ বরেন্দ্র অঞ্চলে মৈত্র গ্রামের অধিবাসী ছিলেন। এখন তাহা না থাকায় অক্ষয়কুমার পাণিনির হুরান্তসারে মৈত্ৰেয় উপাধি দ্বারা বংশ-পরিচয় প্রদান কর। কৰ্ত্তব্য জানিয়া “মৈত্র” স্থানে "মৈত্ৰেয়” তাহার উপাধি ব্যবহার করিতেন। পিতামহ শিক্ষা পরিবেষ্টি শুধয়কুমার উমাকাস্থের সঙ্গপশ্মিণী খামমোহিনী নীলকরের অত্যাচারে বিপৰ্য্য স্থা হইয়। স্বামীর ভদ্রাসন ত্যাগ করিয়া পুস্ত্রকন্যাসহ নদীয়া জেম্মু পিত্রালয়ে আসিবার পর হইতে, অক্ষয় পুরালিপি পাঠরত অক্ষয়কুমার কুমারের পিতা কুমারগালীর বাসিন্দী হইয়াছিলেন। বাল্যজীবনের সাহিত্যগুরু কাঙ্গাল হরিনাথ *