পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/১০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ుసాషా - - - মাতা কোন থানে। সৌন্দর্যাগৌরববৰ্জ্জিত শুন্দরা ললনা যে শুষ্টির একটি অপূৰ্ব্ব জাল তাহ বোধ কলি স্বীকাৰ্য্য ধব৷ লাইতে পালে এক স্থ পক্ষে আমাদের গৌরবগৰ্ব্বিত সুন্দীতেই প্রযুক্ত । বক্তব্য সৌন্দয়াএ স্থলে সৌন্দর্যের গৌরবষ্ট সুন্দলীক মত্তত ; যাঙ্গার সৌন্দর্যোর গৌরব দত বেশী তাহার সৌন্দৰ্য্য তত উত্তেজনাকারী । ইয়া হইতে প্রতিপন্ন BBB S BBB BB BB BBBB BBB BBS সুন্দরী ইন্থ অস্বীকার করিবেন তাহকে যশোর থাম্মোমিটার দ্বারা পরীক্ষা কব ভিন্ন এ প্রশ্নের মীমাংসা কষ্টতে পারে না। অনেকে মনে করিতে পারেন যে, স্নন্দী ললনার সৌন্দর্য্যগৌরব লজ্জা ও সঙ্কোচের আকারে প্রকাশিত হয় ; এবং লক্ষ ও সঙ্কোচ গৰ্ব্ব নহে,—স্নিগ্ধতা -মাত্র । কিন্তু লজ ও BBBB BBBB BBBBBBB B S BBB BBBSBBB তাঙ্গাতে উস্তাপের আতিশযা প্রকটিত করে । সলজ্জ সৌন্দৰ্য্য বেশ মাতার, কারণ তাহাব স্বাভা শরিক উত্তেজনা বেশ । এ সম্বন্ধে শাস্ত্রের বচন পলিচার্য নহে,–এ স্থলে তাতার বিচার চলিতে পারে । শাস্ত্রে অাছে ‘খামাঙ্গিনী স্থা বটচ্ছায়ার স্থার ( ঘোরা ও নিবিড় নহে, কিন্তু – শীতলা মে বটে। তবে কি— হেগৌরঙ্গিনীগণ, দোহাই আপনাদেব, আমাকে মার্জনা করিবেন ; আমি শাস্ত্রকার নছি, শাঙ্গের ব্যাপা করিতেছি । ) গৌরঙ্গিনী গী উষ্ণদেহা টীকাকাৰ শাস্ত্রবচনের বাগ এইরূপ কলিতেছেন বটে ; কিন্তু ইহার পরীক্ষা ও সীমানা হওয়া দরকার। যদি কথাটা ঠিক হয় তবে তাহা হইতে ইষ্ঠ প্রতিপয় হয় যে, সৌন্দর্যের মাত৷ ( উত্তেজনা বা উষ্ণতা ) সৌন্দর্যেরই বিকাশ মাত্র,-সৌন্দর্যোর তাৰ্থই মাতা বা উত্তেজনা, মাতালে। কেবল অবস্থির ক্রিয়া মাত্র। আলোক এবং উত্তাপের দ্যায় সৌন্দর্ঘ্যের উত্তেজনা আপলাতেই জন্মে, এবং ক্রমে তরঙ্গাকাপে ব্যাপ্ত হইয়। অল্পের মস্তিষ্কে প্রবেশ করে ও তায়ণকে উত্তেজিত করে । S BBBB BBBBBB BBB BBBB BBBB BBBBB BB DD স্বস্তকে কেশের ও সন্নিধানে গৌরঙ্গিনীর অপ্রতুল ছিল নৃঃ তাই ঐ কেশের সহিত উক্ত গৌরঙ্গিনীর হস্তের একটা অব্যস্তাব আকৰ্দশজননের BBBB SDBBB BBB BBBS BB BBBB BBB BBBB হইয়ছিলেন, এবং সেই হেতু হামাঙ্গিনীর কথা লিপিগু গৌরঙ্গিনীর কৃপা উক্স ব্লপিয়ছেন। ইতি টীকাকাৰ । প্রবাসী । [ ৫ম ভাগ। এ কথাটার পলীক্ষা হওয়া আবশ্বক, এবং যশোব পালোমিট, ইহার একমাত্র উপায়। কিন্তু যিনি এই পদাঙ্গাকাঙ্গে । প্রয়াসী হইবেন, জনৈক কুঙ্কুরদর্ণশত ব্যক্তির প্রতি ঈসপের উপদেশের স্থায়, ষ্টাতার প্রতি আমার এই উপদেশ ৷ে পরীক্ষাটি নিজলে করাষ্ট শেয়: । শ্রীহপল্লচন দত্ত । তালহ ও জোৰয়র আলীর থলিফা পদলাভের অল্পদিন খোলফায় রাশেদিন । আলী । | &&& j; প্রসমানের মৃত্যু হইলে মদিনাৰ জনসাধারণ আলকে খলিফার পদগ্ৰহণ করিতে নিৰ্ব্বন্ধ সহকালে অম্বরোধ কৰিল । এষ্ট সময় তালহা গুঞ্জোবরর মদিনীয় দুইজন শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ছিলেন। আলীর পলেই তাহাদের দুইজনের অন্ততমের খলিফা পদলাভের সম্ভাবনা ছিল। তাহারা সন্মতিজ্ঞাপন না করিলে এবং পকাশ্য সভার মনোনয়নের প্রস্তাব উত্থাপিত না হৃষ্টলে আলী খলিফার পদ গ্রহণ করিতে অসম্মত ইষ্টলেন । দিনার কতিপর প্রধান ব্যক্তি জনসাধারণকে মসজিদে আহ্বান করি লেন । মদিনাবাসিগণ তথা সমবেত হইলে তাণী সভাস্থলে প্রবেশ করিলেন। তাহtয় গায়ে সরল অঙ্গরাপা, কটিতে অঙ্গরাপায় বন্ধন", মস্তকে স্থল পাগড়া এবং হস্তে যষ্টিরূপে ব্যবঙ্গত ধৰ্ম্মবাণ ছিল । অতঃপর ত্রাঙ্গকে পলিফার পদে বুত করিবার প্রস্তাব উত্থাপিত হইল । তালহ ৪ জোবয়ুল তাহার বগুত অঙ্গীকাল কবির হস্তপ্রসারণ করলেন। আলী কঠিলেন, “হে বস্তৃদ্বয়, তোমাদের মনও কি হস্তের অনুসরণ কবিয়াছে সরলভাবে মনোগত ভাব প্রকাশ কর । যদি তোমরা আমার নিয়োগে অসন্তুষ্ট হও এবং তোমাদের মধ্যে কেহ গলিফার পদের অভিলাষী থাক, তবে প্রকাশ কর, আমি বশ্বত অঙ্গীকার কলিতেছি ।" তাছার বলিলেন, “আমরা সৰ্ব্বাস্ত:করণে আপনাকে সমর্থন কবিBBB S BBB BBB SBBB S BBBBS KKBB BBS কিন্তু কার্যাকালে তলস্থ ও জ্যেষয়ব আলীকে সমর্থন করেন নাই। আলী মহাপুকম্বেল জাপাল এল বহু সদগুণে - শহণ করিলেন । - - , ৪র্থ সংখ্যা । ] -- অলঙ্কত ছিলেন । তিনি কি মোহাম্মদের সহিত মেহের বন্ধন, কি গুণগ্রাম, সৰ্ব্ব বিষয়েই থলিফার পদের যোগ্য ছিলেন। তালহা ও জোৰয়রের বিরুদ্ধাচরণ লক্ষা করিয়া ফরাসী ঐতিহাসিক সেডিলট আক্ষেপ সহকারে বলিয়াছেন, “ঘনে হয়, ঈgশ নিৰ্ম্মল ও সমুজ্জ্বল মহত্বের নিকট সকলেষ্ট মস্তক অবনত করিয়াছিল, কিন্তু তাঙ্গ হইতে পারে নাই!” পরেই মক্কার গমন করেন । এই সময় মোহাম্মদের প্রিয়তম৷ পত্নী আয়েশী তথায় বাস করতেন। তাহার সঙ্গে আলীর মনোমালিন্ত ছিল । আলোকের নীচেই অন্ধকার, মহাপ্রাণ মোহাম্মদের প্রিয়তমা পত্নী বিদ্বেষপরায়ণা ছিলেন। তালহা ও জোবয়ব মক্কার উপস্থিত হইয়া আয়েশীর বিদ্বেষ উদ্দীপ্ত করির তুলেন । আয়েশ তাহদের সহিত মিলিত হন, এবং আলীকে পাদস্ত কবির উদেশে প্রথমতঃ ইরাক অধিকার করিতে সঙ্কল্প করেন। এই উদ্দেশু সাধন জন্য নিম্নলিখিত ঘোষণা প্রচারিত হইয়াছিল –“মহান পরমেশ্বর ভরসা ! বিশ্বাসী দলের জননী স্বরূপ আরেশ স্বয়ং মুসলমানের অগ্রণী তালহা এবং জোবয়বের সহিত বশোর গমন করিতেছেন। যে সকল বিশ্বাসী ইসলাম ধৰ্ম্ম রক্ষা করিতে এবং ওসমানের মৃত্যুর প্রতিশোধ লইতে অভিলাষী, তাহার উপস্থিত হইলেই তাহাদিগকে যাত্রার উপযোগী উপকরণ দেওয়া যাইবে।” অতঃপর তালহা ও জোব্যর বিপুল সৈন্ত সংগ্রহ পূৰ্ব্বক স্বায়েশাকে সঙ্গে লইয়া ইরাকের প্রধান নগরী বশোরার অভিমুথে যাত্রা করেন । (১) ওসমানের হত্যায় সংস্কষ্ট বলিয়া আলী প্রকাপ্ত ঘোষণাপরে অভিযুক্ত হন। তালহ ও জেবিয়র এই অভিযোগ অবলম্বন করিয়া আপনাদের অভীষ্ট সিদ্ধ করিতে প্রবৃত্ত হন। ওসমানের হত্যার পর হইতেই তীয় পরিবারের লোকেরা আলীকে তৎসংস্কৃষ্ট বলিয়া মনে করে। র্তাহার দুইট কার্য্যে সাধারণ মোসলমানের অনেকের মনেও সন্দেহ উপস্থিত হয় ; আলী খলিফার পদে বৃত হইবার অব্যবহিত পরেই তালং o (১) মক্কার স্ত্রীলোকের কিয় পৰ্যন্ত স্থায়শার সঙ্গে সঙ্গে গমন ক্ষরিয়াছিল। তাছারী কিরিয়া আদিবার সময় ইসলামের দুর্দশার স্বচনা 'cধিয়া উচ্চৈঃস্বরে স্লোদন করিয়াছিল। ইতিহাসে এই দিন The day of Tears অর্থাৎ অশ্রুর দিন নামে প্রসিদ্ধ হইয়াঁছে। বস্তুত: ইসলামের এইরূপ দুদিন আর কখনও আগত হয় পাই । - - খোলফায় রাশেদিন । - o ఫిరి - ও গ্রেবয়র তাঁহাকে ওসমানের হত্যার অনুসন্ধান করিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু আলী তাহাধের এই অনুরোধ রক্ষা করেন নাই । ইহার পথ ওসমানের হত্যার অঙ্গুসন্ধানোদেশে তালহা কুফার ও জোৰয়র মিশরের শাসনকর্তৃত্ব প্রার্থন করেন। আলী তাহদের এই প্রার্থনাও অগ্রাহ করেন। যাহা হউক, প্রাগুক্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন ছিল, ইহা নিঃসন্দেহে বল। যাইতে পারে। অসন্তুষ্ট মোসলমানগণ মদিন অবরোধ করিলে আলীর পুত্র হাসন ও হোসন, তাহার পুত্র মোহাম্মদ এবং জোবয়রের পুত্র আবদুল্লা ওসমানের গৃহরক্ষা করিতে নিযুক্ত হন। তাহারা প্রবল পরাক্রমে শত্রুর গতিরোধ আরম্ভ করেন এবং প্রথমে স্বকাৰ্য্য সাধন কবিতে সমর্থও হন। তৃতীয় দিবস বিরোধী দল ওসমানের গৃহে অগ্নিপ্রদান করিয়া আপনাদের পথ পরিষ্কৃত করে। এই সময় হাসন তাহদের হস্তে আহত হন। আলী ওসমানের শোচনীয় মৃত্যুসংবাদ শ্রবণ করিয়া একান্ত ব্যথিত হন, এবং ওসমানের রক্ষার্থ প্রাণপাত না করাতে হাসন, হোসন, মোহাম্মদ ও আবদুল্লাকে তিরস্কার করেন। কিন্তু তালহা বলেন, “আপনি কেন ক্রুদ্ধ হইয়াছেন ? মারওয়ানকে বাহির করিয়া দিলেই এই দুর্ঘটনা ঘটিত না ।” ওসমানের মৃত্যুর পর মদিনীর জনসাধারণের সনিৰ্ব্বন্ধ অনুরোধে এবং তালহা ওজোবয়ুরের সম্মতিতে আলী খলিফার পদগ্রহণ করেন। আলীর নিয়োগের অব্যবহিত পরেই তালহ! ও জোবয়র তাহাকে ওসমানের মৃত্যুর মূল অনুসন্ধান করিতে অনুরোধ করেন। আরভিং সাহেব লিথিয়াছেন, এই অমুসন্ধান বাপদেশে মদিনীয় দলাদলির স্বষ্টিই তালহ ও জোবয়রের উক্ষেপ্ত ছিল । আলী তাহাদের মনোগত উদ্দেশ্যের বিষয় পরিজ্ঞাত ছিলেন বলিয়াই এই অনুরোধ বৃক্ষা করিতে অস্বীকৃত হন । ইহার পর তালহা কুফার ও জোবন্ত্রর মিশরের শাসনকার্য্যে গমন করিতে অভিলাষ প্রকাশ করেন। আলী এবারও তাহাদের অভিলাষ পূর্ণ করেন নাই। তিনি বলেন, “তোমরা বিচক্ষণ মন্ত্রণাদাতা : এই সঙ্কটকালে তোমাদিগকে মনি হইতে দূরে প্রেরণ করিতে পারি না।" অতঃপর প্তাহারা মক্কায় গমন পূর্বক আলীর চিরশত্র আয়েশার সঠিত মিলিত হইয়া ওসমানের হত্যার প্রতিশোধ লইবার বাপদেশে বিদ্রোহ অবলম্বন করেন । এই সময় কোন এক উপলক্ষ্যে |