পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/১৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩১২ তাহাই সংগ্ৰহ করিয়াছেন। ইত্যাদি ” পলে তালুকদারের সঙ্গে তাহার প্রমাণনির্ভর বিচারপ্রণালী, নাজির, বেলিফ ও পঞ্চায়তের অত্যাচার, গবর্ণমেণ্টের শাসননাত সম্বন্ধে এবং প্রজাদিগের দারিদ্র্য বিধয়ে বিতণ্ডা আরম্ভ হইল । আমি নিদ্রাজাগরণের মধ্যে সকল কথা শুনি নাই ও স্মরণ রাখতে পারি নাই। উজ্জয়িনী, চিতোর, উদয়পুর দেগিব বলিয়া আমেদাবাদে যাইতে পারি নাই। বড়োদা হইতে যষ্টিয়া ফিরিয়া আসিব ইচ্ছা করিপ্লাছিলাম, কিন্তু স্নবিধা ঘটে নাই । উজ্জয়িনীতে যাইয়া ডাকবাংলায় আশ্রয় লইলাম । প্রতি তীর্থস্থানে পাওদের কবলগত হওয়াকে আমি বড় ডরাই । ৱরোপা হইতে বরাবর চিতোর যাওয়াই স্নবিধ, কিন্তু— “বক্রঃ পঙ্গ যাপি ভক্ত: প্রস্থিতন্তোত্তরাশাং সৌধেৎসঙ্গপ্রণয়বিমুখো মান্ম ভুরুজ্জয়িন্তাঃ। বিছান্দামঙ্কল্পিতচকিতৈপ্তত্র পৌরাঙ্গনানা গোলাপাঙ্গৈযদি ন রমসে লোচনৈর্বঞ্চিতোংলি।” স্মরণ করিয়া উজ্জয়িনী যাওয়ার প্রলোভন সংবরণ করিতে পারি নাই। এই সেই বিক্রমাদিত্যের উজ্জয়িনী, কালিদাসের লীলাক্ষেত্র, নবরত্বের আশ্রয়-মিংহাসন। কালিদাস একদিন ইহার এঁতে মুগ্ধ হইয়া বলিয়াছিলেনঃ– "স্বল্লভূতে স্বচরিতফলে স্থগিনাং গাং গতানা শেষৈঃপুণ্যেহৃতমিব দিব; কাস্তিম খণ্ডমেকন্তু " এখন আর উজ্জয়িনীর সে ঐ নাই, সে ঐশ্বৰ্য্য মাষ্ট, সরস্বতীর বীণাঝঙ্কার আয় শ্রত হয় না। আছেন শুধু কালিদাসের কাব্যক্ত টমহিমা মহাকাল এবং ওঁকারেশ্বর মন্দির এবং সেই প্রবাহিনী ক্ষীণকায় শিপ্রা। কত স্মৃতিতে চিন্তু উদ্বেল হইয়া উঠিল ; এই স্থান র্যাহাঁদের স্থতিবিজড়িত হইয়া মহিমান্বিত হইয়া উঠিয়াছে, তাহদের হইতে এত দুরেও আমি মানসূচক্ষে তাহাদিগকে দেখিতে পাইলাম। সেই বিক্রমের নবরত্নভূষিত সভা, রাজপথে তমসাবৃততন্ত্র অভিসারিকার সচকিত গতি, শিপ্রার জলকেলিরত পুরনারী, সকলে মিলিয়া এক অপূৰ্ব্ব অশীৰ্বা কাব্য আমার চিত্তে ফুটাইয়া তুলিতে লাগিল । এই নগরের প্রাচীনত্বের নিদর্শনের মধ্যে মৃৎপ্রোথিত পুরাতন মহাকালমন্দির ও শিপা। একটা তোরণ বিক্রম প্রবাসী । [ ৫ম ভাগ । প্রাসাদের চিহ্নাবশেষ বলিয়া প্রদর্শিত হইয়া থাকে, কিন্তু তাহার কোন নিশ্চয় প্রমাণ পাওয়া যায় না । উজ্জয়িনীর ইতিহাস যেরূপ জটিল তাঁহাতে এই তোরণ কাহার তাহ নিশ্চয় করিয়া বলা যায় না। আলাউদ্দিন ইহাকে প্রথম দিল্লির অধীন করেন; তৎপরেইহা লইয়া হেলিকার,সিদ্ধিয়ার মধ্যে কাড়াকড়ি হয়। বাহাদুর সা ও আকবরও ইহাকে নিকুতি দেন নাই । - বর্তমান সহরটি ছোটখাটো, প্রাচীর ঘেরা। প্রশস্ত রাস্তার দু’ধারে দোতলা বাড়ীর নিয়ে যাঙ্গার, এই অংশটিই সুন্দর। শিপ্রার সৌন্দৰ্য্যও অতীব মনোরম। কালিদাস লিথিয়াছেন, “শিপ্রাবাত প্রিয়তম ইব”। তাছার পরপারের মন্দিরবহুল গুটি বড় স্বন্দর। দক্ষিণ অংশে মহারাজ জয়সিংহের নিৰ্ম্মিত যানমন্দির প্রতিষ্ঠিত আছে। এককালে উজ্জয়িনী জ্যোতিষালোচনায় অগ্রগণ্য হইয়া হিন্দু ভৌগলিকদিগের o meridian হইয়াছিল । এখানে একদিন মাত্র থাকিয়া আনি উদয়পুর যাত্রী করিলাম। এপাস হইতে উদয়পুরের থ টিকিট না পাওয়াতে চিতোরের টিকিট করিলান। রইলাম জংসনে নামিয়া আমি একটি সাহেবের সহযাত্রী হইলাম। আমি যখন গাড়ীতে উঠিলাম সাহেব তখন ভোজনে ব্যস্ত ; দানাটালা সরাইয়া আঘায় একটা যেঞ্চ ছাড়িয়া দিলেন। বম্বে ছাড়িয়া অবধি এ পর্যন্ত আমি শীত পাই নাই ; সুতরাং আমার বাঙালী পোষাক ছিল : সাহেব একবার আমার পোষাকটা নজর করিলেন । ক্ষণেক পরে একজন মেম *Ishii fogpil ofton, “Alr. Pett, how many are you ?” *!** aso, “We are only two, but Miss Bright you better go to the first class compartment : I am going to teil the station Master." Hita can Boo &o আমি but” রূপে উপস্থিত থাকার সাহেব এই খুর সঙ্গ লাভে বঞ্চিত ইষ্টয়া আমার উপর বিরক্ত হইয় থাকিবেন। রাজপুতানায় মধ্য দিয়া গাড়ী ছুটিতেছিল। মুক্ত বাতায়নে বৃষ্টির ছাট অগ্রাহ করিয়া আমি সমের সহিত বাজপুতানার কৃষ্ণকঙ্করময় কর্কশকত্তি মিণীক্ষণ করিতে i ৬ষ্ঠ সংখ্যা । ] ছিলাম। ধুধু মাঠ ; জলশূন্ত, প্রাণিপৃষ্ঠ, শস্তপূক্ত ; শপতৃণও কদাচিৎ দৃষ্ট হয়। এক এক যায়গায় যব, গম, তিসির ক্ষেত্র কোপাও বা মেষচারণরত বালক বালিকা দেখিতেছিলাম। আজ রাজপুতানার যদি বুদিন থাকিত এই সব বালক হয় তা বাপ্পারাও, এই সব বালিকা হক্স ত হামিরজননী হইতে পারিত। বীরত্বের মহরের বীজ অবস্থাবৈষম্যে আজ কি দৈন্ত ভোগ করিতেছে ! হিন্দুর শ্রেষ্ঠ তীর্থ, মাতৃথ্যাতিদর্শনেচ্ছুর শ্রেষ্ঠ কেন্দ্র, এই রাজপুতানার মধ্য দিয়া আজ আমি চলিয়াছি। অতীতের প্যাতি বিলুপ্ত, জড় রাজ্যে জড় দর্শক। কবে ত্যাবার ভারতের নাড়ীতে প্রাণস্পন্ন অনুভূত হইবে, কবে জড়ত্ব দাসত্ব ঘুচিবে? সৰ্ব্বাগ্রে গৃহকোণ ছাড়িয়া জড় সমাজের দাসত্বশৃঙ্খল মা ভাঙ্গিলে কখন বাহিরের শৃঙ্খল টুটিবার আশা করা বৃথা! রাত্রে গিয়া চিতোরে পৌছিলাম। সেই রাত্রেই উদয়পুরের টিকিট করিয়া উদয়পুরের গাড়ীতে গিয়া আশর লইলাম। ভিতর হইতে দরজা বন্ধ করিয়া দিয়া শুইয়া থাকিলাম। রাজপুতানার প্রতোক ষ্টেসনে সশস্ত্র পুলিশ প্রহরী দেখিলাম। আমার সঙ্গী সাহেবটি পুলিশ ইন্সপেক্টর, আজমীঢ়ে থাকেন। তিনি প্রতোক ষ্টেসনে যেরূপ চুরি ভাকাতির খবর পাইতে লাগিলেন, এবং তিনি যেরূপে বন্দুকের টোটা বিতরণকবিতেছিলেন তাহা দেপিয়া আমার হৃৎকম্প হইয়াছিল। এদিক্কার গাড়ীগুলিতে ঐ জন্তই বোধ হয় ভিতর হইতে একেবারে দরজা বন্ধ করিবার ধিল আছে। আমি খিল দিয়াও চোরের স্বপ্ন দেখিয়া মধ্যে মধ্যে জাগিয়া উঠিতেছিলাম। ভোর বেল উঠিয়া মুখ ধুইবার জন্ত আলে জালিয়া দেখি গাড়ীতে যাত্ৰাদিগকে সতর্ক করার জন্ত নোটিশ রহিয়াছে—উদয়পুরে ভয়ানক প্লেগ। ষ্টেসনে সন্ধান লইয়া জানিলাম মহারাজ সদলবলে সহর ছাড়িয়া চলিয়া গিয়াছেন। আমি রামানন্দ বাবুর পরিচয়পত্র লইয়া হেড়মটীর মতিলাল ভট্টাচাৰ্য্য মহাশয়ের আতিথ্যভরসায় যাত্র কবিয়ছিলাম। শুনিলাম তিনিও সহর ছাড়া । তখন উদয়পুরের টিকিট ফিরাইয়া দিয়া চিতোরে থাকিয় গেলাম। চিতোদের ষ্টেসনঘাটার, এসিষ্টাণ্ট ষ্টেসনমাষ্টার, বুকিংকার্ক প্রভৃতি আমাকে সন্ত্রমের সঠিত অতিশয় যত্ন ও খতিয় করিয়াছিলেন। অনেক সময় আমি বাঙালী বলিয়া গৌরব অনুভব করিয়াছিলাম । ভ্ৰমণ । లిల সকাল হইল। মোটে দুটি বিশ্রাম-ঘর। একটি ঐ রেলের ট্রাফিক স্বপারিন্টেণ্ডেণ্ট সদলবলে দখল করিয়া আছেন ; অপরটি আমার পূৰ্ব্বদিনের সহযাত্রী সাহেব অধিকার করিয়াছেন, অধিকন্তু এটি আবার radies waiting room I আমি সাহেবকে বলিয়া সেই ঘরেই আশ্রয় লইলাম ; দেখিলাম সাহেব খুব ভদ্র ৷ হইবারই কথা। সাহেবকে Bacon, Emerson, Darwin offs of;(xs of Hi বড় ভূপ্ত হইলাম। সাহেব আবার সঙ্গে গন্ন জুড়িয়া দিলেন। আমি উদয়পুর ন যাওয়াতে সাহেব আমায় খুব ভৎসন করিলেন। বলিলেন, “অমন মনোরম স্থান না দেখিয়া EtG ?" G87 af foirm “then I have made a mistake" to go for "yes you have,” সে স্বরে দ্বিধ বা সঙ্কোচের লেশমাত্র ছিল না। আমি লজ্জা ও দুঃথে ম্ৰিয়মাণ হইয়া গেলাম। বাস্তবিকও বৎসর কয়েক *{& Statesman &so art supplement to ÈH??? water-palace sig f5.g দেখিয়া অবধি আমি উদয়পুর দেখিবার জন্ত শালাস্থিত ছিলাম, তাহা তুচ্ছ প্লেগ বা অস্থবিধার ভয়ে ত্যাগ করিয়া ও সাহেবের ধিক্কারে বড় কষ্ট পাইলাম। আমি আয় কোথায় কোথায় যাইব জিজ্ঞাসা করাতে আমি বলিলাম, আগ্রা হইতে কাণপুর দেখিয়া বাড়ী ফিরিব ; লক্ষ্মেী প্রভৃতি আগামী বর্ষে দেখিব। সাহেব ason “Cawnpore and Lucknow are geographically and historically connected ; if you see one and omit the other you miss the historical and geographical link thereby সামান্ত ৪০ মাইল মাত্র পথের অল্পত প্রভৃতি দেখাইয়া লঙ্গেী যাইতে আমাকে প্রলুদ্ধ করতে লাগিলেন, ক্রমে কংগ্রেস ও প্রদর্শনীর কথা উঠিল। সাহেব কেবল প্রদর্শনী প্রসঙ্গে প্রশ্ন করিলেন, কংগ্রেস সম্বন্ধে কিছু জিজ্ঞাসা করিলেন না। তার পর সাহেব ও দেশায়ের অসদ্ভাবের কথা পাড়িলাম। সাহেধ অনেক দুঃখ করিলেন ; স্বদেশীয়দিগের ব্যবহারের মুক্তকণ্ঠে-নিন্দ করিলেন । সাহেবের সরলতা ও অমায়িকতা আমার বড় প্রতিপ্রদ হুইয়াছিল। সাহেব চিতোরদর্শনে যাইবেন বলিয়া হাতি আসিল । আমি সাহেবের সঙ্গী হইলাম। পাহাড়ের তলে চিতোরের