পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/২১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| ৭ম সংখ্যা । ] স্বৰ্গীয় ভূতনাথ পাল । రిసిసి _* ন বােলে গেয়ে আসিয়াছিল। ভূতনাথ পালের স্বভাব গঠনের সময় কুসঙ্গী ছিল না, মহৎ গোষ্ঠীতে তিনি জন্সিয়াছিলেন, সৎসঙ্গ ব্রাহ্মধৰ্ম্মের লোক তখন গ্রামে ছিল, দেশে স্ব-বাতাস বহিতেছিল, পালপাড়ার উন্নতি ছিল, অধ্যাপক ও ব্রাহ্মণগণ্ডলীর দেশ ছিল, এবং মাতা ধনবানের কষ্ঠা ছিলেন । বালক “ভূতনাথের” আত্মা স্বভাব গঠনের উপযুক্ত দেশ, কাল, পাক, পাইয়াই স্বভাব গঠন করিয়াছিল। ছাত্রাবস্থা । ভূতনাথ ব্রাহ্ম ছয়েন নাই। পিতার দোকানে থাকিয়া হেয়ার স্কুলে পড়িতেন, এবং চাউলের ঠেকের উপয় শয়ন করিয়া রাত্রি যাপন করিতেন। ইতাকে আমরা জিজ্ঞাসা করিয়াছিলাম, “আপনি কি কখন পাড়ার ছেলেদের সঙ্গে বেড়ান নাই ?” উত্তর—“দোকান ঘরে ছেলেয়া কে আসিবে বল ? বাব আমাদের চক্ষুর অন্তরালে যাইতে দিতেম না। ছেলেবেলা আমার বড় ভয় ছিল। স্কুল হইতে আসিয়া, নালার নিকট দাড়াইয়া উহার জল ছাড়া দেখিতাম । ঈড়েন গার্ডনের চারিদিকে জলের লাল গাথা আছে দেখিয়াছ ? তথন সহরে কল ছিল মা, গঙ্গারতীরের লোকের জলকষ্ট ছিল না বটে, কিন্তু আমাদের এদিক গঙ্গা হইতে দূরে। কাজেই শহরের এদিকে ঐক্লপ নীল গাথিয় উছাতে জল দেওয়া হইত। ঐ জল এ অঞ্চলের লোকের ব্যবহার করিতেন। যখন বৈকালে উহাতে জল ছাড়া হইত তথন সকলের বড়ষ্ট আমোদ হইত। উহাতে মৎস্তও ছিল, কোন কোন দিন আমি ছিপ লইয়া লীলার ধারে বসিয়া মাছ ধরিতাম । এই আমার খেলা ছিল। আর এক খেল ছিল, পুস্তকের ছবি দেখা ; বই পড়িতে পারি আর নাই পারি, স্থির হইয়। বসিয়া অনেক পুস্তকের পাতা উটাইয়া ছবি দেখিতাম । ছবির নীচে কি লেখা আছে, তাহ পাঠ করিবার জন্তু চেষ্টা করিতাম। কোন কোন দিন বা পিতার দোকানের SJJBB BBBBBS BBBBS SSSBBS BB BBS BBS BBB বিশ্বাস, পাড়ার ছেলের সঙ্গে মিশিলেষ্ট মন্দ হইতে হইষে। দশ বালকের দশ মন একত্র হইল। ধরিলাস দশ জনই ভাল ছেলে। কিন্তু ঐ দশমনের দশ বাসনা কথন “এক” হইতে পারে | না, কাজেই ছেলেরা মহা ভাল থাকিলেও মন্দ হুর । আমি ক্লাসের যথষ্ট, সেকেণ্ড এবং থার্ড এই তিনটী ধালকের সঙ্গেই মিশিতান, অষ্টান্ত বালকের সহিত মিশিবার আবশুক হুইত না। পরীক্ষার সময় সমস্ত রাত্রি জাগরণ করিয়া কেবল পুস্তক পাঠ করিতাম।” ইহার ফলে ভূতনাথ এণ্টেন্স ও এফ-এ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হইয়া বৃত্তি পাইয়াছিলেন। এমন সময় ১২৭৩ কিংবা ৭৪ সালে তাহার পিতা স্বৰ্গারোহণ করেন । পিতার মৃত্যুয় পর ভূতনাথ ও তাহাঁর ভ্রাতাগণ অভিভাবকগুপ্ত হইয়া পড়েন। মাতুল স্বৰ্গীয় স্মৃষ্টিধর কোচ এই সময় ইহঁদের স্বপরিযায়-ভুক্ত করিয়া, ইহঁদেয় পিতৃদত্ত দোকান তুলিস্থা দেন এবং নিজ ব্যয়ে বিদ্যাশিক্ষা করাইতে থাকেন। স্বৰ্গীয় স্বষ্টিধর কোচের অতুল ঐশ্বৰ্য্য ছিল, ধনে পুত্রে ইনি লক্ষ্মীলাভ করিয়াছিলেন। দেশীয় ব্যবসায়ীদিগের মধ্যে ইনি কোহীনুর সদৃশ ছিলেন। ইহার অনেক দোকান ছিল। স্বষ্টিধর বাবুর অপর এক ভগ্নীর পুত্র ৮ রাসবিহারী চেলকেও ইনি বি,এ, পৰ্য্যস্ত পড়াইয়াছিলেন। ভাগৃনেয়দিগকে ভিন্ন অন্তান্ত অনেক দরিদ্র বালকের ভরণপোষণ ব্যয়ের সহিত তাহাদের পড়াইয়া শুশিক্ষিত করিয়াছিলেন। এই সকল ধনীদিগের কল্যাণেও গওগ্রাম খাটুর গোবরডাঙ্গ ঐসম্পন্ন স্থানের মধ্যে পরিগণিত হইয়াছিল। যাহা হউক, ইহার প্রসাদেই ভূতনাথ বাবু বি, এ, পৰ্য্যন্ত পড়িয়াছিলেন। ছাত্রজীবন শেষ হইলে, ভূতনাথ বাৰু অন্তের গলগ্রহ স্বরূপ থাকিয়া মনুষ্যজীবন বাপন করিতে বড়ই কষ্টবোধ কয়িতে লাগিলেন। এই জন্য মাতুলের সহিত কোন পরামর্শ মা করিয়া, তলে তলে ইনি চাকুরীর চেষ্টা করিতে লাগিলেন। চাকুরীও পাইয়াছিলেন, কটক রাভেনশ কলেজের অধ্যাপকের পদ প্রাপ্ত হয়েন। কটক যাইবার উদ্যোগ করিতেছেন, . এমন সময় মাতুল জানিতে পারিলেন। - কৰ্ম্মাবস্থা । তিনি কটক যাইতে নিষেধ করিলেন। প্রকাশে বলি- " লেন “এ দেশের বাবসায় আর পূৰ্ব্বের মত দেশ লোকের সঙ্গে হয় না, এখনকার কাজকৰ্ম্ম প্রায় সবই ইংরাজের সহিত। আমি তোমাদের বি, এ, পৰ্যন্ত পড়াইয়াছি, ব্যবসায়ী করিব। লেখাপড় শিক্ষা করিয়া চাকুরী করাকে আমি হেয়ঙ্কান করি। বরং ইংরাজী বিদ্যা শিথিয়া এদেশী লোক উকিল, ব্যারিষ্টার, জঞ্জ, ম্যাজিষ্টর এবং ডাক্তার