পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/২২৯

From উইকিসংকলন
Jump to navigation Jump to search
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8cmbr ব্যর্থ হইলে সেন মহাশয় নবীনবাবুর চিকিৎসাধীন হন এবং তাহার ব্যবস্থাগুণে অাবোগ্যলাভ করেন। পরে কবিরাজ মহাশয় নীলবাবুরই পরামর্শে কম্বো হইতে কলকাতায় গিয়া বসবাস করিতে থাকেন । Commission sı: “Onium & Hemil Drugs Commission" কালনায় গিয়া উপস্থিত হয় নবীন বাবুকে তখন এবিষয়ে সাক্ষাদান কয়িতে হয় । তাহলে মন্তব্যগুলি অতিশয় মূলবান বলিয়া কমিশন কর্তৃক গৃহীত হয়। ১৮৬৮ অক্সের সেপ্টেম্বর মাসে তিনি তাহার আত্মীয় ডাক্তার স্বয়ালচন্দ্র সোম মহাশয়ের হস্ত হইতে King's Hospitalএর ভার লইতে লক্ষ্ণে গমন করেন। ঐ পদে স্থায়ী হুইয়া তিনি চল্লিশ বৎসর কলি লঙ্কেীএ অতিবাহিত করেন। মধ্যে ১৮৮৬ অক্সে--কেবল দুই বৎসরের জন্য তিনি একবার গোড়ায় বদলি হন । তৎপরে ১৮৯০ তবে পেন্সন লইয়া লঙ্কেীএই বাস করেন। সুতরাং জীবনের অধিকাংশকালই তিনি লক্ষ্মেীপ্রবাসে ব্যয় করেন। এখালে তিনি আজীবন অনন্যসাধারণ সম্মানের সহিত কাটাইয়৷ গিয়াছেন। তাহার এতদূর প্রতিষ্ঠা ছিল এবং তাছার প্রতি সৰ্ব্বসাধারণের এতদূর শ্রদ্ধা ও বিশ্বাস ছিল বে ব্যাধি ঘুরারোগ্য হইয়া আসিলে সিভিল সার্জনকে না ডাকিয় একবার নবীন বাবুকে না দেখাইয়া কেহ শান্তিলাভ করিত না । যুরোপীয় ডাক্তায়গণ অসঙ্কোচে তাহার পরামর্শ গ্রহণ করিতেন এবং মুসলমান হাকিমগণ অতিশয় সঙ্কটকালে যদিও কথন পরামর্শ লইতেন তবে সে নবীন ধাবুরই নিকট। যে সময় নবীন বাৰু লগ্নেীপ্রবাসে আগমন করেন, তপন হাকিমী চিকিৎসার বড়ই প্রাদুর্ভাব ছিল । এলোপ্যাথি চিকিৎসায় প্রত্যেক ঔষধে মুসলমানের নিষিদ্ধ যষ্ঠ মিশ্রিত থাকে এই বিশ্বাস মুসলমানপ্রধান লক্ষ্মেী এ ইহার গতিরোধ করিয়া রাখিয়াছিল।—মুসলমানসম্প্রদায় হিন্দুর অপেক্ষ অধিক রক্ষণশীল। অবশেষে নবীন বাবুর দক্ষত, সয়দ্ধি, সৌজন্য ও চিকিৎসাগুণের সম্মুখে পূৰ্ব্ব কুসংস্কায় আর টিকিতে পারে নাই । স্বয়ং লক্ষেীএর নবাব উমর ও রইসগণকে আপনার ও পরিবারবর্গের চিকিৎসার তার নবীন বাবুর হস্তে অর্পণ করিতে দেখিয়া জনসাধারণ যুরোপীয় চিকিৎসায় প্রতি শ্রদ্ধাবান হইতে লাগিল। সুতরাং স্তাহার পূর্ব ও পরবর্তী

  • F Drainage

প্রবাসা । ৫ম ভাগ । করেকজন প্রথিতনাম ডাক্তারের হার এপ্রদেশে যুরোপীয় চিকিৎসা প্রণালী লোকপ্রিয় করিবায় তিনিও অন্ততন প্রধান কারণ। এসম্বন্ধে তিনি এতদূর কৃতকাৰ্য্য হল যে, নবাব ওয়াঙ্গীদ আলী সাহের চিকিৎসক এবং দিল্লীর বাদসাহের হবখ্যাত ফয়জাবাদনিবাসী হাকিমৃদ্ধয় ডাক্তার নবীনচন্দ্র মিত্রের চিকিৎসাধীন হন। কিন্তু ইহাতেই তাহায় গৌরবের শেষ হয় নাই। মুজতাহিদ আর্থাৎ সিয়া সম্প্রদাCH4 ziąF HrýGF ( Spiritual lendler ) “R সিয়াধৰ্ম্মী আমাধ্যাধিপ রজনীবোগে নধান বাবুর সহিত সাক্ষাৎ করিতে তাঙ্গয় ভিক্টোরিয়াগঞ্চস্থ কুঠাতে আসিতেন এবং উহার লিকট হইতে ব্যবস্থা লইতেন। মায় এণ্টনি ম্যাকডোনালডের শাসনকালে যখন প্লেগভীতি এবং গবর্ণমেণ্টের প্রতি জনসাধারণের অবিশ্বাস চরমে পৌঁছিয়াছিল, তখন গল্পে এর অসংথ্য লোক সম্প্রদায়নিৰ্ব্বিশেষে সম্মিলিত হইয়া ছোটলাট সমীপে এক দরখাস্ত করে। তাহাতে ডাক্তার নবীনচন্দ্র মিত্রের নামের বিশেষ উল্লেখ সহ লিখিত ছিল যে, তাহার উপর সকল সম্প্রদায়ের লোকের পূর্ণ বিশ্বাস আছে এবং তিনি যে ব্যাধিকে প্রকৃত প্লেগ বলিয়া মত প্রকাশ করিবেন ভাহা প্রজাসাধারণ অসঙ্কোচে গ্রহণ করিবে ! স্বদুর প্রবাসে আসিয়া ভিন্ন প্রদেশীয় জনসাধারণের এরূপ প্রগাঢ় অনুরাগ এবং বিশ্বাস অর্জন করা কয়ঞ্জনের ভাগ্যে ঘটিয়া থাকে ? করেকখানি উর্দু উপন্যাসের কয়েকটা উন্নত চরিত্রের মধ্যে তিনি স্থান পাইরাছেন । পরলোকগত পণ্ডিত রতননাথ তাহাকেই আদর্শ করিয়া হৈার উপদ্যাসোত্ত প্রধান ব্যক্তিগণের চরিত্র অঙ্কিত করিয়াছেন । মধান বাবু যে কেবল সুচিকিৎক বলিয়া এতদূর প্রতিষ্ঠালাভ করিয়াছিলেন তাঁহাই নহে। তিনি সকলকে সমষ্টিতে দেপিতেন । কি ধনী, কি দরিদ্র সকলের প্রতি তাহার সমীন যত্ন ও মনোধোগ ছিল । অর্থলালসা তাহার কর্তব্য, সৌজন্ত এবং ধৰ্ম্মবুদ্ধি হইতে বিচলিত করিতে পারে নাই। ধৰ্ম্মে তিনি একেশ্বরবাদী ও সমাজে সংস্কারপ্রিয় ছিলেন। কোন বিশেষ সম্প্রদায়ভুক্ত বলিয়া তিনি কখন আপনার পরিচয় দেন নাই –তিনি একজুন পাক কংগ্রেসওয়াল এবং ইংরাজ শাসনের পক্ষপাতী রাজভক্ত প্রজা ছিলেন। তবে তাহাতে রাজভক্তি জাহির করিবার একটা বাতিক ছিল না । ৭ম সংখ্যা । ] 1 র্তাহার মৃত্যুতে লান্ত্রেী-প্রবাসী অনেক বঙ্গ সন্তান বিদ্যাসাগর লাইব্রেরী গৃহে সমবেত হইয়া এক শোকসভা করেন এবং লক্ষেীপ্রয় জনবাধারণ অন্তত্ব এক বৃহতী সভা আহবাম করিয়া তাহার প্রতি সকলের অস্তিরিক শ্রদ্ধা ও প্রতি প্রকাশ করেন । কাৰ্য্য সম্পাদন করিয়াছিলেন তিনি বর্তমান সময়ে ভারতবর্ষ মধ্যে সমগ্র মুসলমান সম্প্রদায়ের সর্বপ্রধান হাকিম বলিয়৷ স্বীকৃত। প্রমুখ সমাজের মুখপাত্ৰগণ ডাক্তার নবীনচন্দ্রের গুণাকীৰ্ত্তন করিয়া তাছার জন্ত শোকপ্রকাশ করেন । সভ্যস্থলে স্বপ্রসিদ্ধ ডাক্তার রায় রামলাল চক্রবর্তী, গঁ বাহাদুর ডাক্তাব আবদুর রহীম খাঁ প্রমুপ পদস্থ ব্যক্তিগণ ও জনসাধারণ ডাক্তার নবীনচন্দ্র মিত্রের নাম চিরস্মরণীয় করিয়া রাখিবার উপায় নিদ্ধারক সমিতি সংগঠিত করিয়াছেন। এই সৰ্ব্বসাম্প্রদায়িক সভার যিনি সভাপতির সেই মহামা হাকিম আবদুল আঞ্জীঞ্জ সাহেব छेद्ध ঐজ্ঞানেন্দ্রমোহন দাস । গুণে রূপ । নিৰ্ম্মল গগন হ’তে বিধাতার আশীৰ্ব্বাদ সম প্রভাতের স্নিগ্ধ স্বৰ্য্য-কর ফুটন্ত মল্লিকা প্রায় পবিত্র ও তৎপরে আসি’ হালিতেছে —মরি কি স্বন্দর ! কোথা ছিল এত দিন এতরূপ লুকাইয়া সখি ? দেখিনি তো তোমারে এমন ? কোথা হ’তে আজি প্রাতে লভিলে এ রূপজ্যোতি তুমি ? ভরে দিলে এ হৃদয়-মন ? হৃদয়ের অন্তস্তলে যে মমতা বিরাজিত তব, যে সারল্য তোমাৰ ভূষণ, যে অতুল স্বাৰ্থত্যাগে স্বেচ্ছায় এ সেবা-ব্ৰত সদা নিজে তুমি করেছ গ্রহণ,— তাহাতেই এভ দিন স্তব্ধ, বিমোহিত, মগ্ন হ’য়ে তোমাতে রয়েছি মুগ্ধ সদা । তাই, যদি কেহ কভু তোমারে বলিত "রূপহীল” – - হসিতাম গুনিয়া সে কথা । ফ্যানি ডস্ । ৪২৯ ভাবিতাল,—রুপ ? সে তো নিমেষে শুকায়ে যায় প্রিয়ে; তাহে কিবা আছে প্রয়োজন ? নিত্য যাহা,-তোমা-মাঝে রহিয়াছে সেই গুণ-রাশি অপুৰ্ব্ব, অমুলা, অতুলন। কিন্তু, আজি শুভ, শুভ্র এই স্বপ্রভাতে একি হেরি ; – কোথা ছিল এরূপ তোমার ? আজি কোন মন্ত্রবলে অম্লান লাবণ্য-ধারা তব প্রাবির ফেলিল চারিধার ? —গুণে তুলি গরীয়সী-শুষ্ক প্রাণে সঞ্চারিলে প্রেম ; প্রেমে তুমি হইলে প্রেয়সী ; .প্রেয়সী হইয়া তুমি দেবতার শুভাশীষ লভি’ প্রেম-রাজ্যে তইলে রূপসী । প্রদেবকুমার রায়চৌধুরী। ফ্যানি ডস্ * ( দুমল্লিক' ) পেপ্রকার বলেন

  1. রাস্তাং কৌশিকী ভারতী তথা অগড় নাগরনর মুন নায়ক ভূষিত ত্রিনালি: প্রথমেইঙ্কোইগুt fৰট ক্রীড়ময়ে ভবেৎ।

ইত্যাদি। এ দৃপ্ত কাৰ্য খানি অধিক পরিমাণে দুমল্পিকার অনুরূপ। প্রযুক্ত পাত্ৰগণ । ১ i মিষ্টার প্রিন্থনাথ সাল্লাল । ২ । তদীয় পত্নী—সুন্দাকিনী । ৩ । মিষ্টীর ভোলানাথ স্বাস । ৪ । মিলু ফ্যানি ভস্ ভোলানাথের কক্ষ। } । ৪ । মিষ্টার পাচ কড়ি দত্ত । ৬ । মিসেস অবল ডাটু ( পাচকড়ির স্ত্রী। * I ফ্রেভূরে tr I র ( ফ্রেড়রের ভগিনী)। ৯। গোবিন্যবাবু। ১• । এগু_{ ফিরিঙ্গি ) । স্বামী ও বেয়ারা। প্রথম অঙ্ক । প্রথম দৃশু-মিষ্টার প্রিয়নাথ সার্যালের গৃহ। মিষ্টার সান্নাল, এবং তাছার পত্নী মন্দাকিনীর প্রবেশ । প্রিয়নাথ । আচ্ছ গাউল না হয় নাই পরলে ; কিন্তু * একটি তা ঘটনা অবলম্বনে লিখিত। -