পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/২৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-rي.s-ي.sه હ૬ . করিয়াছিলেন, তাহতে টড সাহেব যে তাহাকে বিশেষ সাহায্য কণিয়ছিলেন এরূপ অকুমান করা অসঙ্গত নহে । হেষ্টিংস সাহেব ভারতে আসিয়া যুদ্ধ বাধাইয় দেন। ঐ সময় রাজপুতানার রাজা সকল যদি সহায়াপ্পীয় কিম্বা মুসলমান রাজসংস্থানের সহিত রোগ দিতেন, তাহা হইলে হেষ্টিংস সাহেবের যুদ্ধজয়ী হওয়া বড় কঠিন ব্যাপার হইয়া উঠিত। টড সাহেব ছলে ও কৌশলে রাজপুতানার বাজাদিগকে অন্য রাজসংস্থানের রাজাদিগের সহিত ধোগ (দতে বাধ দিয়াছিলেন । ঐ কারণেই বোধ হয় তিনি মহারাষ্ট্রীয়দিগের ও আকবয়ের অপরি মত কুৎসা নিজ পুস্তকে লিথিয়াছেন। টড় সাহেব আকবরের চরিত্রে যে সকল দোষ আরোপ করিয়াছেন তাহা নিয়ে উদ্ধত করা যাইতেছে – “অদৃষ্টতরঙ্গের প্রচণ্ড মূর্ণিপকে পতিত হইয় যে রাজপুতগণ উঙ্কিার নিকট স্বাধীনত বিক্রয় করিতে বাধা হইয়াছিলেন, রাজধৰ্ম্মেয় মস্তকে পদাঘাত করিয়া নিকৃষ্ট নিরক্ষর ইনজনের স্যায় কামবিমুঢ় হইয় DBB BBBBBB BBBBBB BBBBBB BBBB BBBB BBB BBBBB করিতেন, তাহ মনে পড়িলে উহাকে, আর ভারতের অদ্বিতীয় অধিপতি, মোগলকুলের গৌরবকেতন সেই জগদগুরু আকবর থলিয়া বোধ হয় না : তখন তাহাক কপটতা, স্বার্থপরতা ও বিশ্বাসঘাতকতার মূৰ্ত্তিমান পিশাচ ফলিয় ঘুণ করিতে ইচ্ছা হয় ।” - অন্য এক স্থলে রাজা মানসিংহের মৃত্যু উপলক্ষে সাহেব লিখিয়াছেন – "যে স্বাকবর আপনার বিপুল স্থল ও ক্ষমতার প্রভাবে তদানীন্তন নৃপতিকুলের শীর্ষস্থানে আগনপ্রাপ্ত হইয়াছিলেন-* * সেই আকবর “দিল্লীশ্বরে বা জগদীশ্বরে ঋ'--সেই যোগল সম্রাট আকবর বিষপ্রয়োগ BBS BBBBBB BBS BBB BBS BBBB BBBD BBBB বিষময় করিয়াছিলেন। বুন্দির ভট্টকবিগণ এবিষয় অতি স্পষ্টরূপে আপনাদিগের কাব্যগ্রন্থে বর্ণল করিয়াছেন।" ( খ্ৰীযুক্ত বাবু যজ্ঞেশ্বর বন্দোপাধ্যায়ের অনুবাদিত রাজস্থান হস্ততে উদ্ধৃত । ) ঐ ঘটনাগুলি যে সত্য, তাহার বিষয়ে টড সাহেব কোন প্রমাণ দেন নাই। ভট্ট কবিদিগের দোম্বাই দিয়া উনি ঐরকয লিথিয়াছেন। কিন্তু ভট্টকবির কি ঐ সকল ঘটনা নিজের চক্ষে দেখিয়াছিলেন যে, তাহাদেব সাক্ষ্য বিশ্বাসনীয় বলিয়া গ্রহণ করা যাইতে পারে ; আকবর রাজপুতদিগকে পরাজিত করিয়াছেন বলিয়া শহীদিগের ভট্টকবির কঁহায় বিষয়ে ঐক্ষপ কুৎসা রচনা ও প্রকাশ করিবেন, তাহাতে আশ্চর্যা কি ? রাজপুত রমণীর নিজ সতীত্ব রক্ষা করিবার জন্য অগ্নিপ্রবেশ করিতে কুষ্ঠিত হয় নাই ! "জলয়ে চিত, দ্বিগুণ দ্বিগুণ, পরাণ সঁপিবে বলিয়া যে রমণীগণ প্রবাসী। AASAASAASAAASSS S S S S S S S S M S SSMMM SMMMS SSSSS S S SS S SSAAASAA S SSSSSS MM M M SMMMS SSSSSS { ৫ম ভাগ । আত্মহত্যা করিতে পশ্চাৎপদ হইতেন না, সেই রমণীগণের সতীত্ব অক্লেশে ও অনায়াসে যে আকবর অপহরণ করিতে সমর্থ হইতেন, এ কথা যে বিশ্বাসযোগ্য নহে, তাহ বলা বাহুল্য । ৰানসিংহকে বিষ প্রয়োগের কথার প্রমাণ কোথায় : রাজপুতানার রাজাদিগের সহিত আকবর যুদ্ধ করিয়াছিলেন বলিয়া টড সাহেব তাহাকে বৃৎপরোলাস্তি গালাগলি দিয়াছেন। ম্যালিসন ( \falluson ) সাহেব তাহার প্রণীত আকবর চরিতে এ বিষয় -যাহ লিখিয়াছেন, তাহা উল্লেখযোগা ;– - “ limabfe, apparemuiy, 1 • comprclienui ilie principle which underlay the whole policy of Akbar, that of conquering that lir inight produce union, and regard. ing him as he rightly regarded his Afghau and Patlian predecessors, Colonel Tool attacks him for his conquests. ° * I need nei adrl that if to render happisiess to millions is one of the first objects of kingship, and is te, obiain llmat end union las lo he ccnmented by conquest, the means sanction the end. Akbar did not conquier in Rajputana te rulc in Rajputana. He con: quered that all the Rajput princes, each in his own dominious, might enjoy that peace and prosperity which his predominance, never sell aggressively, secured sor the whole empire." টড় সাহেবের ইতিহাস যে বিশ্বাসযোগ্য নহে তাহ এখনকার অনেক ঐতিহাসিকেরা স্বীকার করিয়া থাকেন। তিনি মহারাষ্ট্রীয়দিগকে যেরূপ গালি দিয়া গিয়াছেন, তদ্বিষয়ে মাননীর স্বৰ্গীর মহাদেব গোবিন্দ রাণাণ্ডে মহাশয় এইরূপ লিখিয়াছেন – “He (Tod) has one measure of justice for the Rajputs, and another for their Mahoniendan and Maratha conquerors He will speak will praise of a miserable and unprovinked raid by, a Rajput Chies, but has mething but hard words to use when he has to describe perhaps a more excusable act as power on the part of otlier nation.ilities sliis liartiality to his pet race leads the historian to render less than justice to the other nationalities, and to none more so than to the Maratli:is.” - টড সাহেব রাজপুতদিগের অযথা প্রশংসা করিয়া গিয়া ছেন। বড়লাট ডেলহৌসির সময় সায় হেনরি লরেন্স পাঞ্জাব হইতে তাড়িত হইয়। রাজপুতানার সৰ্ব্বোচ্চ পদে | & . s | ৯ম সংখ্যা । ]


নিযুক্ত হন। তিনি টড সাহেবের রাজপুত প্রশংসার বিষয় ষাঙ্গ বলেন তাহা স্মরণ রাখিবার যোগ্য। to a letter to Sir J. Kaye, dated Mount Abto. June 19th 1854, i.awrence wrote - lă - - - - - You are right in thinking that the Rajputs are a dissatisfied, opium-eating race. Tod's picture, howover it may have applied to, the post, wris a caricature o the present. There is fittle, if any, truth or honests m dom, and not much more inauliness. Fvery principality is more or less in trouble." - ff Sir II. Lawrence by Sir II. Edwardes angl H. Merivale. vo] II р. 25h, উল্লিখিত বিষয় হইতে ইহা বলা যাইতে পারে {际, টড সাহেব বিচারপূর্বক সত্যনিৰ্দ্ধারণক্ষম ও বিশ্বাসনীয় (critical and trustworthy) HfTsfs T. fszsz না। এই জন্ত তিনি আকবরের যে নিন্দ ও কুৎসা করিয়া গিয়াছেন তাহা হ্যায়সঙ্গত নহে । হইলার (wheeler) সাহেব একজন প্রসিদ্ধ ভারতবর্ষের ঐতিহাসিক। কিন্তু তিনি টড সাহেবের মত কখন প্রসিদ্ধি লাভ করেন নাই । ত্রিশ বৎসর পূৰ্ব্বে যেরূপ তাহার গ্রন্থগুলি লোকের পাঠ করিত, এখন আর কেহ তাহ গর না। তিনিও আকবরের একজন নিলুক। তিনি *f; College History of India ato গ্রন্থে আকবরের বিষয় লিথিয়াছেন – “Akbar was never properly educated. He was a semi-barbarian, who could neither rend nor write. He learned to read in his later years and his spelling book was preserved until lately, as a curiosity. All his knowledge was obtained from Abul Fazal and other learned men of diferent nations and creeds, who gratified his curiosity by relating histories and fatter. ing him into the belief that he was sonnething more than human.” হুইলার সাহেব আকবরকে অসভ্য বা অদ্ধসভ্য ীিরছেন, কারণ আকবরের বিশেষ এই দোষ ছিল নে তিনি ইলি লেখাপড়া জানিতেন না। মাইকেল মধুসূদন দত্তের উপলক্ষে বমি বাবুযেরূপ বঙ্গদর্শনে হুইলার সাবেক ট্রিকারী দিয়াছিলেন, তাহ বোধ করি সকল শিক্ষিত "বাণী অবগত আছেন । লেখাপড় জানিলেই বাদ সভ্য হয় তাহা হইলে যাহারা জগতের ইতিহাস ও মানচিত্র গুণাইয়া গিয়াছেন তাহারা সকলেই অসভ্য ছিলেন। _l অকবরের নিন্দুকগণ । - - - (లిసి -- চষ্টলার সাহেব খুষ্টভক্ত ছিলেন। তিনি যে যীশুপুষ্টকে ঈশ্বর বলিয়া পূজা করিতেন, সেই যীশুখুষ্ট কতদূর লেখাপড়া জানিতেন তাহার কি কিছু প্রমাণ আছে ? তাহার মতে কি তাঙ্গ হইলে যীশুখৃষ্ট অসভ্য ছিলেন । মহাত্মা মহম্মদ tলখাপড়া জানিতেন না। মহাপুরথ শিবাজী ; সেনানায়ক হৈদ আলী, বাহার নামে ১৩০ বৎসর পূৰ্ব্বে ইংরাজগণ ভয়ে কম্পিত ইষ্টত , নেপালের রাজমন্ত্রী জঙ্গবাহাদুর, র্যাহ্বায়ু সাহায্যে সিপাহী বিদ্রোহের সময় ইংৰাজেয়ী অযোধ্যাদেশ পুনলাভ করিতে কৃতকাৰ্য্য হুইয়াছিলেন , এই সকল ব্যক্তি লেখাপড়ার কোনই ধার ধায়িতেন না। তাহ বলিয়া কি তাহাদিগকে কেহ অসভ্য বণিতে সাহস করিবে ? কেবল এসিয়া খণ্ডেরই মছে, ইউরোপেরও অনেক অসাধারণ ব্যক্তি অশিক্ষিত ছিলেন। কিন্তু তাহাদিগকে অসভ্য বণিতে পারা যায় না। অতএব হুইলার সাহেব যে কারণে আকবরকে অসভ্য বা তদ্বসভোর অ}থ্য প্রদান করিয়াছেন, তাহ হুইলার সাহেবের মত সুসভ্য (*) পুরুষেয়ষ্ট মুথে সাজে । বখন ভারতে বিশ্ববিদ্যালয় সংস্থাপিত হয়, তখনকার ইংরাজসম্পাদিত পত্রিকাগুলি দেখিলে ইহা জানা যায় যে তাহারা ভারতবাস৷দিগকে ইতিহাস শিক্ষা শিবার জন্ত যড়ই প্রয়াস পাইয়াছিলেন। ভারতবাসীর পূৰ্ব্বে কখন ইতিহাস লিখে নাই, ভারতবর্ষে ইতিহাসের চর্চা ছিল না, এইণ্ডই এতদেশয়ের ঐতিহাসিক ভ্রমশৃষ্ঠতা (historica accuracy) কাহাকে বলে, তাহ জানে না ; এইসকল কারণ দেখাইয়া বাহাতে ভারতে ইতিহাসের চঞ্চ বিস্তৃত হয়, তজ্জন্ত গ্ৰহালা যেশ খুব চেষ্টা করিয়াছিলেন । যখন ভারতবাসীয়া কেবল ইতিহাস পাঠ করিতে লছে, পরন্তু লিথিতে আরম্ভ করিল, তখন ইংরাজ লেখকদিগের স্বর বদলাইয়া গেল। এদেশের স্কুল সকলে ভারতযাসীদিগের রচত ইতিহাস পাঠ্যপুস্তকরূপে প্রচলিত হওয়াতে ইংরাজ ইতিহাস লেখকদিগের অর্থহানি হইতে লাগিল। তঞ্জং তাহার এই স্বর ধরিলেন যে, ভারতবাসীলিম্বিত ইতিহাসগুলি স্কুলে পাঠ্যপুস্তক রূপে নিৰ্ব্বাচিত হওয়া উচিত নহে : কারণ ঐ সকল পুস্তক রাজভক্তি শিক্ষা দেয় ন} ; বরঞ্চ উহাতে রাজদ্রেব (Sedition) বঙ্কিত হয়। - - -