পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/৩৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৭৪৬ --- SSASAS SSMSS আছে এবং প্রতিদিন নিয়ম করিয়া ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে বক্তৃতা लिं থাকেন। অনেক লোক জন একত্র হয় – দীগঞ্জ —গরীবদাসী সম্প্রদায়ের লোক । চুড়াসানী হইতে আদিয়াছেন। ছুড়ীয়ানী বিরাট প্রদেশে আধুনিক দিল্লীর কাছে। যে যায় তাহাকে মিষ্ট না খাওয়াইয়। ছাড়েন না । বড়ই উহার ও শিষ্টাচারী। gaকট মিষ্টার উরমাৎ করিতাম। মেসেঞ্জী । নিৰ্ম্মলা সম্প্রদায়ভুক্ত। বয়স5 হইয়াছে। asর শরীর। খুব ধনী লোক ও গম্ভীর প্রতি । এই নিৰ্ম্মল সম্প্রদায়ের জনৈক সাধুর নিকটে আমর আধুনিক জাতীয়ভাবের অনেক কথা শুনিলাম । কি সরলতা, কি ঈশ্বরনির্ভর, কি বিশ্বাস! তিনি যেরূপ অটল বিশ্বাসে কথাগুলি বলিলেন, তাঁহাতে বেধি হইল যেন তাহার হৃদয়ে বিন্দুমাত্র সংশয়ের স্থান মাই। তার বিশ্বাস, গল্প সমরে মধ্যে প্রাচীন আৰ্য্যধর্মের গৌরব ও নাম যে যে কারণে এককালে দিগন্ত পরিব্যাপ্ত ছিল, সেই সেই ভাবে 3 কাধের পুনরভিনয় হইবে । তিনি বললেন, বাঙ্গালীর সেই কার্যের অতি সামান্ত স্বরপাত করিয়াছেন। পঞ্জীব, দক্ষিণাত্য ও অন্যান্য সকল প্রদেশই স্ত্যহাদের সহায়তা বাক্যে ঈশ্বরকে ডাকিতে হইবে। খণ্ট কত তাহ ঠিক বলা যায় না । কথাটা সত্য। aা হল প্রমাণের আবশ্বকতা নাই। - প্রবাসী - --- করবে, তবে কিছুদিন অপেক্ষা করিয়া কেবল -কীরমনেসে দিন আসিবেই আদিবে। ভারতীয়গণের অত্যুর্থানের প্রাতঃকাল অসিকাছে । বাক্তিগত জীবনের প্রতিদিন প্রাতঃ হইতে মধ্যাহ পর্য্যন্ত প্রায় ৪৫ টে। কিন্তু জাতীয় জীবনের ৪৫ ভবে মধ্যাহ্ন সন্নিকট। ৫ম ভাগ । -* "م.....-.... ..------- -്.---- ~, মাগদিগের মহাস্ত যমুনা গিরি, লক্ষণগিরি, প্রভৃতির নিদাদ বেশ লোক। আর কিছু গ হৌক সকলের মধ্যে বেশ একটা সম্মানবোধ সঙ্গী নাগাদিগকে বে ইহাব এখন কথঞ্চিৎ শৃঙ্খলাবদ্ধ করল রাখিয়াছেন, ইহাই তাহলের প্রধান গৌরব । আমরা আর একটু হইলেই মহাগুদিগকে নাগার যমের মত তয় করে । আছে। নিরক্ষর, ছৰ্দান্ত, কলহপ্রিয়, সরল, গোবিননন্দন্ত্রী। ইনি শঙ্করের বেশি। মঠের সন্নাসী । লেকট নৈয়ায়িক কিন্তু বেশ বেদন্তিও জানেন । কথাবার্তা বেশ খুব উদার। । গোবিন্দনন্দই এবার সাধুদিগকে নিরামিষ anলts খাওয়াইয়াছেন । নিৰ্ব্বাণী আৰেভাৰ মধ্যে ইনি পৃথক কুটার নির্মাণ করিয়া আছেন । হরি ভারতী, কুন্সীওয়ালা, ভোল৷ গিরি, হরিহর ব্ৰহ্মচারী প্রভৃতি অনেক সাধু, সদলবলে আসিয়াছেন ও খুব সাধুদিগকে থা ওয়াইতেছেন । বলিতে ভুলিয়াছি, খাওয়ান আজকাল সাধুদিগের ধৰ্ম্মীচরণের aকট প্রধান অঙ্গ হইয়া পড়িয়াছে। যিনি যত তাল ও থে খাওয়ান উাহার বশ তত বেশ । মনবাঞ্জ গিরি। হৃষীকেশ স্টতে আসিয়াছেন। ইনিও প্রাচীন। পূৰ্ব্বে তপসী ছিলেন। এখন বৈদান্তিক। লোকট বেশ পণ্ডিত ও উদার। ইনিই এখন পরমহংসদের মধ্যে ধনরজি গিরির আগেডাতে অনেকগুলি বিখ্যাত বৈদন্তিক ও পণ্ডিত পরমহংস আছেন। অনর্গল সংস্কৃতে বড়দর্শন ও বেদান্ত বিষয় কথন করিতে পারেন। তীক্ষ আকৃতি রমণীয় ও সুস্থ। অনেক লোকের বিশ্বাস এই সকল মহাপণ্ডিত মাধুদিগের মধ্যে অভি অল্প পরিমাণে দেশহিতৈষিতীব ভাব থাকিলে আমাদের নাকে তেল দিয়া কুষ্টিলেও চলিত। তা কি হবেন । কালন্ত কুটিলা গতিঃ । সকলেই জানেন শঙ্করের অদ্বৈতবাদ রক্ষার জুল্প:ভারত মণ্ডলেশ্বর। ১১শ শৃংখ্যা । । , করিয়া দেশের কল্যাণ করিতে হইবে তাহtয় জটিল বিষয়সকল মীমাংসা করিয়া দেন । শুনিয়াছি বাকী ৩ জল প্রয়াগে কুম্ভমেলা। - - --- - - - ꬃ•ሳ - এরূপ সম্বন্ধবিশিষ্ট যে একটার পর আর একটা কয় চলে না। তবে শীঘ্ৰ কোনটা,কোনটা ধীরে করা চাই। -শল্পীরং হি আঙ্কং ttBBB BBBBBB BBB BBB BB BBB BBBB BBBS BB BB BBB SBBB BBBS BB BBB হইবে তাহার ইঙ্গিত মাঝে মাঝে দেন । এই সে দিন সারদামঠের শঙ্করাচার্য প্রচার করিয়াছেন যে, যাহারা বিদ্যঃভ্যাসের জন্ত বা স্বদেশকল্যাণকর কোন কাৰ্য্যাদি শিখিতে সমুদ্রযাত্র স্বীকার করিয়া ইউরোপ, আমেরিকায় বা অন্ত দেশে যান, প্তাহাদিগকে, দেশে পুনরাগমনের সঙ্গে সঙ্গে, একটানামমাত্র প্রায়শ্চিত্ত করাইয়া,সমাজেসন্মানপ্রদর্শনপূর্বক গ্রহণ করা উচিত, নতুবা সমাজের মঙ্গল নাই । তিনি আরো বলিয়াছেন যে সকল বুর্থ বা দরিদ্র লোক অজ্ঞানতার জন্ত ৰ পেটের দায়ে ধৰ্ম্মান্তরগ্রহণ করে যখন তাহারা নিজেদের ক্রট বুঝয়া সনাতনধৰ্ম্মে ফিরিয়া আসিতে চার ভথন তাহদিগকেও সহানুভূতির সহিত বিন্দুমার ক্লেশ না দিয়া একটা প্রায়শ্চিন্তু করাইয়া পুনঃগ্রহণ করা যুক্তিসঙ্গত। শাস্ত্রেও প্রমাণের অভাব নাই। এই দুইটা কথা জগদগুরু শঙ্করাচার্যের উত্তরাধিকারিগণের মুখ হইতে বাহির হওয়া আর আশ্চর্য্যের বিষয় কি ? আমরা বে আরো অনেক চাই । দেশকালপাত্র বিচার কল্প চাই। বিশেষতঃ আজকালকার ভারতবর্যের সহিত পৃথিবীর নানা স্থানের যে সম্বন্ধ সকল স্থাপিত হইয়াছে,তাহার বিচায় করা চাই। প্রাচীন ভারতের তুলনায় সম্বন্ধ অনেক গুণবাড়িয়া গিয়াছে, সঙ্গে সঙ্গে দায়িত্বও বাড়িয়াছে। ভারতের আর্য ঋষিগণ চিরকালই জগতেরহিতের জন্য ভাবিতেন ও করিতেন। স্বদেশ যে জগতের অন্যাস্ত স্থান সকল হইতে পৃথক এবং তজ্জন্ত স্বদেশবাসীদিগের জন্ত একটা ভাল বন্দোবস্ত এবং অপর দেশের লোকজন মরুক আর বঁাচুক তাহা দেখিবার আবগুক নাই, এভাব তাহাদেয় লইয়া শরীর না থাকা (জীবের মোক্ষ ধ্য জীবন্মুক্তি) পৰ্য্যন্ত বে যে বিষয় চাই সবই করিতে হইবে । বোধ হয় কেহ আমাকে “ধান ভানিতে শীবের গদ্য” অভিযোগে ফেলিবেন না । কথাগুলি সময়োপযোগী বলিয়াই লিখিতেছি। - প্রথমতঃ সকল ভারতবর্ষের s বিবেকবিশিষ্ট লোকের দেথা উচিত যে জাব এসংসারে আসে কিসের জন্ত ? ইহার উত্তর একটা বই দ্বিতীয় নাই । সে উত্তরটা এই ভোগবাসন পরিতৃপ্তির জন্ত জীব এ জগতে জন্মগ্রহণ করে।” যখন কোন প্রকারের সুখভোগ বা দুঃস্বভোগ ভাহাকে লিপ্ত বা অভিভূত করিতে পারে না তখনই তাহার শরীরের আবখ্যকতা থাকে মা সে আপনা হইতে মোক্ষ প্রাপ্ত হয়। এখন জিজ্ঞাস্ত ভোগবাসনা কি ? সব ভোগবাসনার কথা আমি এ ক্ষুদ্র প্রবন্ধে দিতে পারিব ম৷ কিন্তু বিশেষ বিশেষ দু একটা দৃষ্টান্ত দিয়া বুঝাইতে চেষ্ট করিব । মনে করুন আমার বিদ্বান হইবার ইচ্ছা । ইচ্ছাই যে বাসনা তাহা বুলা নিম্প্রয়োজন। বিস্কাভোগে ভোগী হইতে হইলে আমার প্রথমতঃ চাই খুব বিছান শিক্ষক, চাই আমার অর্থবল, আমার বুদ্ধি, স্বাস্থ্য। বিদ্ধ শিখিবার যত রকমের প্রশ্লষ্ট উপায় আছে তাহাতে স্নলভে প্রবেশধিকার, দীর্ঘ জীবন, যথেষ্ট অবসর, এবং পৃথিবীর সর্বপ্রকার বিধান লোকের সহিত মিলিয়া মিশিয়া আমার বিদ্যার দ্বারা তাহাদের বিদ্যায় পরাভব বা দিগ্বিজয় ইত্যাদি ইত্যাদি অনেক ব্যাপার চাই। দেখুন আমি যদি সৰ্ব্বপ্রকারে বিদ্বান শিক্ষকের কাছে বিদ্যালাভ করিতে বাই, তবেই ত আমার সর্বপ্রকারে झयूनन्न श्लि" ছুনি বৈরাগী । রামাম্বুজ মার্গাবলম্বী । রোজ সকালে ও সন্ধ্যার খুব পূজা, আরতি, শঙ্খ ঘণ্টা কাসরবাদ্য ও আপোরে মধ্যে খাওয়ান-দাওয়ান হয় । বৈরাণীর গণ্য খুব বেশী। বৈরাগীরা অত্যন্ত কষ্টসহিষ্ণু। এই মতে বলির উপরে অনেকে বিনা অধিতেওঁ পড়িয়া আছেন । ছিল না। সুতরাং ণ্ঠাহীদের উপদেশ বাহা উত্তরাধিকার স্বরে আমরা প্রাপ্ত হইয়াছি, তাঁহা রক্ষণ করা আমাদিগের বিদ্বান হওয়া সম্ভব । কিন্তু আজকাল কি আমার এ স্বৰ্গাদপি গরীয়সী ভারতভুমিতে ঐক্ষপ লোক পাওয়া সহজে সম্ভব ? সহজে যে সম্ভব নয় ভাহার প্রমাণ দিব। মনে করুন আমি । শারীরিক বিজ্ঞান, রসায়ন বিস্তু, আধুনিক যুদ্ধ বুদ্ধ বা যুদ্ধ সম্বন্ধীয় ইঞ্জিনীয়ারিং ( Military Enginesting) বিষয়ে জানিতে চাই। কেহ কি আমাকে অতুল ঐশ্বয্যের বদলে এখানে বসিয়া এগুলি সম্পূর্ণরূপে শিক্ষা দিতে পারেন । আম প্রথমে বলিয়াছি, বে বিস্বান হইতে চাহে ভাষার বিজ্ঞা করে ৪টি মঠ আছে। যথা যোশী মঠ, সারদ মঠ, শৃঙ্গেরী . o ...ই চারি মঠে এক একজন জগদগু* মঠ ও গোবৰ্দ্ধন মঠ । " নাম সৰ্ব্বতোভাবে উচিত। যার যেমন সাধা সে তেমনি করুকৃ । শঙ্করাচাৰ্য্য আছেন। গোবৰ্দ্ধন মঠের শঙ্করাচা f্যর - আমাদের দায়িত্ব ল এত বেশ - প্রখ্ৰীমধুসুদন তীর্থ। এবারে তিনি কুহুকরিতেআসিয়াছেন। দে আর ]. ". .. বৈরাগীদের মধ্যে অনেক লোকজন আছেন। যাহারা অনেক অত্যন্ত ধীর ও শান্ত। খুব বুদ্ধিমান ও বিধান। প্রয়াগে করিতে হইবে । একের পর এক সাবকাশমত কাৰ্য্য করিলে - দিন হইতে চাউল কি ময়দ কি ভাল (জয়) খান, কেবল যে সনাতন মহাসভা হইতেছে, সেই মহাসভার লোকের - উত্তরোত্তর যে ৰে কাৰ্য্যগুলি হইবে, আমাদিগকে ফলাহার করেন। আজকাল মাধুদিগের মধ্যে ক্ষনলী- স্থলকে অতি যত্নে রোজ তাহদের অধিবেশনে লষ্টয়া যান। कलिअल इहेड ह३३ ... কার্যা.俄 ੇ। এও এক প্রকারের তপস্তা f মধুসূদন তীর্থ আজকাল কি প্রকারে ভারতের বর্ণাশ্ৰমর* -