পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/৩৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- - ਾ - - -- প্রবাসী | - - ৫ম ভাগ । - - ----- - --- SSMSSSMSSSMSSASAS SS S M S M S M S M S M S প্রতীচ্য জগতে মঞ্জুরী বেশী, প্রাচ্য দেশসমূহে তদুপ নছে । এই কারণে শেষোক্ত স্থানে হস্তচালিভ শিল্পকলার যন্ত্রচালিত শিল্পকলার সহিত প্রতিযোগিতা করা শক্ত না হইতেও পারে। কিন্তু যতই সময় যাইতে থাকিবে ততই এতদ্দেশেও মঞ্জুরী বৃদ্ধি পাইবে এবং অবশেষে কলেরই জয় হইবে। -- গত ৯ই জানুয়ারীর-বেঙ্গলী"তে খ্ৰীযুক্তভি,এম,কীৰ্ত্তিকর (v. M. Rinika) হাভেল সাহেবের হাতের ষ্ঠাতের প্রশংসাসূচক উক্তির (গভ মাঘের“প্রবাসী” দ্রষ্টব্য) প্রতিবাদ করিয়া ৰে চিঠি লিপিয়াছেন, তাহীও এই প্রসঙ্গে একবার আলোচ্য। নিয়ে তাহারও সার মৰ্ম্ম প্রদত্ত হইল। হাভেল সাহেব যোধ হয় ভারতীয় কলের তাতসমূহের কার্যপ্রণালী স্বয়ং অবগত নহেন। তাই তিনি বলিয়াছেন ৰে, হাতের তীতের নিকট সৰ্ব্ব বিষয়েই কলের তাতের পরাভব স্বীকার করিতে হয় । নিম্নোক্ত বিষয় কয়টির প্রতি প্রণিধান করিলে তাহার একথা যে সত্য নহে তাহাই প্রতিপন্ন হুইবে । (ক) ১০নং স্বতায় হাতেরপ্তাতে প্রতিদিন গড়ে ৩ পেীও (প্রায় দেড় সের) বস্ত্র প্রস্তুত হয়, কিন্তু কলের তাতে হয় ১২ পৌণ্ড । (খ) ৬০নং স্বতীয় হাতের তাতে প্রতিদিন গড়ে ১৬ হইতে ২০ আউন্স কাপড় উৎপন্ন হয় ; কলের তাতে হয় ৬৪ আউন্স (প্রায় দুই সের) । (গ) হাতের তাতে প্রতি পেও কাপড়ের দৈনিক মজুরী ছর আমা ; কলেয় তাতে দুই আমা মাত্র । কলের তীতের বিরুদ্ধে এক মাত্র গুরুতর আপত্তি এই যে, ইহার প্রায়স্তিক আনুষ্ঠানিক খরচ অত্যধিক । ৪৭৫• টাকায়ই একটি হাতের তাত হয়। কিন্তু যেরূপ কারখানায় ১,••• তাতে কাজ হয় তদ্রুপ কারখানার জন্ত একটি কলের - ষ্ঠাত ক্রয় করিতে ২২৫৷২৫০, টাকার প্রয়োজন (জমীর খরচ, বাড়ী ঘরের খরচ প্রভৃতি হাতের তীতের কারখানার জন্তও চাই, কলের তীতের কারখানার জন্যও চাই ; কাজেই এই সকল সাধারণ খরচের কথা তুলিয়া কাজ লাই )। তথাপি কলের ঠাতের কারখানা প্রতিষ্ঠায় এককালে কিছু বেশী টাকা খরচ করিয়া মঞ্জুরী বাবদ প্রতি পেণ্ডে চারি o - o

  • _

আন বঁiচানই বেশী সমীচীন বলিয়া ননে হয়। কলের তাতে বে হাতের তীতের অপেক্ষা লিঙ্কষ্ট কাপড় হর না, বোম্বাই, মাম্রাজ, আহম্মদাবাদ, মধ্য-প্রদেশ ও শ্রীরামপুরের কাপড়ের কলগুলি হইতেই তাহার যথেষ্ট প্রমাণ পাওয়া গিয়াছে। গত ৫০ বৎসরে বঙ্গ দেশে কাপড়ের কলের বিশেষ প্রতিষ্ঠা হয় নাই ষ্টহাতে প্রমাণিত হয় না যে, কল প্রতিষ্ঠায় লাভ নাই। বঙ্গদেশে কল মা হওয়ায় কারণ এই যে, সেখানে মুলধন জমীদারদের হস্তে। তাহারা জমাদার বৃদ্ধিতেই মন্ত, শিল্পকলার উৎকর্ষসাধনে তঁহাদের মনোযোগ নাই। • উক্ত ক, খ ও গ চিহ্নিত হিসাব অনুসারে ৪,••••• (বঙ্গদেশে হাতের তীতের সংখ্যা) হাতের তাতে ২০নং স্বতীয় প্রায় ১২,••,••• পৌণ্ড কাপড় তৈয়ার হয়, কলের তাতে হর ৪৮,০০,০০০ পৌণ্ড। ১,• • • তাতের কলের ধাম ১৫,০০০ পেীও ধরির লইলে চারি লক্ষ তাতের উৎকর্ষ- . সাধনে যে চল্লিশ লক্ষ টাকা (২,৬৬,৬৬৬ পৌঁও) খরচ হইবে তাহাতে ১৭,৭৭৭ কলের উjত পাওয়া যাইবে এবং তাঁহাতে ২০নং সুতায় ১,১৩,৩২৪ পৌণ্ড অর্থাৎ চারি লক্ষ হাতের প্তাতে উৎপন্ন কাপড়ের প্রায় এক-ষষ্ঠাংশ কাপড় উৎপন্ন হুইবে (হাভেল সাহেব বলিয়াছেন বিশ-ভাগের একভাগ মাত্র। অথচ কিরূপে তিনি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হইলেন তাহা দেখান নাই ) । কিন্তু হাতের তাভে মজুরি বাবদ খরচ হইবে ৪,৫-,• • • টাকা ; কলের তাতে মাত্র అ,ఆలa, r 1 র্যাহারা বস্ত্রবয়নশিল্পে অথনিয়োগ করিডে চাহেল র্তাহারা কলের তাত ও হাতের ঠাতের সুবিধ অল্পবধাগুলি উত্তমরূপে তলাইয়া দেখিয়া কোনও সিদ্ধান্তে উপুনীত হইলেই ভাল হয় । শ্ৰীনগেন্দ্রচন্দ্র সোম । ছবি । বোম্বাই-নিবাসী সুদক্ষ চিত্রকর শ্ৰীযুক্ত মহাদেব বিশ্বনাথ ধুন্ধর প্রবাসীর জন্ত “শকুন্তলায় পতিগুহ রাজা” নামক নে ছবিখালি অঙ্কিত করিয়া দিয়াছেন, তাহা অতি সুন্দর হই আছে। মহর্ষি কত্ব পালিতাকন্ত শকুন্তলাকে আশীৰ্ব্বাদ | ਾ - - ১১শ সংখ্যা। | পরমাণু-প্রয়াণ । מצף করিতেছেন। শাঙ্গ রব ও শারদ্বত নামক ৰে ঋষিকুমারদ্বয় - ਫਂ ਬੋ ਅਾਂ--Info-farmerBot (আলাপ) ১৪:৩২, ২১ মে ২০১৬ (ইউটিসি) শকুন্তলার সঙ্গে যাইবেন, তাহার, এবং অনস্বয়া ও প্রিয়ম্বদা ( তাহ ) বোঝে কেবল বৈজ্ঞানিক, নায়ী সখীদ্বয় একদিকে দাড়াইয়া আছেন। তপস্বিনী দিব্য-নেত্ৰে ভাবের চিত্রে । গৌতমীও শকুন্তলার সমভিবাহারে যাইতে প্রস্বত হইয়াছেন। দেখে তারা ইলেক্‌টন। শকুন্তলা সদ্যঃপ্রস্থত মাতৃহীন ৰে হরিণশাবকটকে পালন -- | করিয়াছিলেন, সে যেন তাহার পথ আগুলিয়া দঁাড়াইয়াছে । | , সদাগতি, } অপর ছবিখানি একটি প্রাকৃতিক দৃষ্ঠের ফোটোগ্রাফ। હેপর 蠶 অতি, উহা বোপাইয়ের প্রসিদ্ধ ফোটোগ্রাফার প্রযুক্ত গোপীনাথ প্র তেজে ইলেকট কৃষ্ণরাও দেবারে কর্তৃক গৃহীত। এইরূপ ফোটোগ্রাফ ভব ঘুরে, দুন। সম্বন্ধে পরে একটি প্রবন্ধ মুদ্রিত হইবে। ষ্ট্ৰীযুক্ত দেবারে ছিলাম মোরা শাস্ত অতি, - গত বোম্বাই কংগ্রেস প্রদর্শনীর ফোটোগ্রাফার নিযুক্ত কেউনা কভু দেখৃত গতি, --- হইয়াছিলেন, এবং ঐ প্রদর্শনীতে একমাত্র স্বর্ণপদক কোথা থেকে দিব্য চক্ষে পাইয়াছিলেন। তাহার কোন কোন ফোটোগ্রাফ লওনের - দেখা দিল ইলকটন। এক প্রদর্শনীতে প্রতি .ہ۔ی তষ্ঠালাভ করিয়াছে। (এখন মোদের জাতি গেল, ধৰ্ম্ম গেল, স্থিতি গেল, গতি এল, - মোদের কেউনা দেখে এখন : - , পরমাণু-প্রয়াণ । দেখে শুধু ইলেকট্রন । - ! আমরা ছিলেম পরমাণু রেডিয়মের দীপ্তি ছাদি, . অতি ক্ষুদ্র আদি জড়, জগৎ হাসে, মোরা কাদি, র এ দেহ ছিল - জড় নাম ডুবে গেল, খণ্ডহীন অতি দুড়। প্রকাশ হ’লে ইলেকট্রন। কালের চক্র ঘুরে গেল তজা গেল, স্বপ্তি গেল, আমাদের ও খণ্ড হলে স্বপ্ন গেল, শাস্তি গেল, (বৈজ্ঞানিকের হাতে পড়ে এল কেবল কোলাহল, | সহি এত নির্যাতন।) গণ্ডগোল, আর ইলেক্ট্রন। -- * কত লক্ষ খণ্ড যুড়ে, তবযুরের হাতে পড়ে, মোদের ক্ষুদ্র দেহ গড়ে, আমরা সবাই যাচ্ছি সরে, তাহাদেরও সংজ্ঞা হ’লে, অশরীরী অবিরাম - নাম হ’লো তার ইলেক্‌টন। জগৎ গড়ে ইলেক্ট্রন। কালের ছিল চক্রনেমি, - (তাই) প্রাণের দায়ে ধরা ফেলি - (সে) চক্র এল জুড়ে নামি, গ্ৰহাস্তরে যাইগো চলি কালের চক্রে ভাবের চক্রে দেখি ধৰি সেথা কেউনা ঘুরে সদা ইলেকট্রন। কন্তু ভাবে ইলেক্ট্রন।