পাতা:প্রবাসী (পঞ্চম ভাগ).djvu/৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


చిr


- এবং তাহার সহচরদিগকে বন্দী করিয়া রাখিও।” প্রতিনিধিগণ এই পত্র পাঠ করিয়া ক্ৰোধে জলিয়া উঠিলেন, এবং সে ক্রোধাগ্নি আরব দেশের সর্বত্র পরিব্যাপ্ত হইয়। পড়িল। তাহারা মদিনীয় ফিরিয়া আসিলেন। ইসলাম সাম্রাজ্যের নানা স্থান হইতে বহুসংখ্যক মোসলমান আসিয়া তাহাঁদের সহিত মিলিত হইল। অগস্তুষ্ট মোসলমানগণ ওসমানকে তাদৃশ পত্র লিখিবার কারণ জিজ্ঞাসা করিল। তিনি শপথপূৰ্ব্বক বলিলেন, আমি এই পত্রের বিলুবিসর্গও অবগত নহি । (১) এই শপথবাক্য শ্রবণ করিয়া তাহারা পত্ৰলেখক মারওয়ানকে বাহির করিয়া ধিতে অনুরোদ্ধ করিল। ওসমান তাহদের এই অকুরোধ রক্ষণ করিতে অস্বীকৃত হইলেন । তখন অসন্তুষ্ট মোসলমানগণ সহজে প্রতিশোধ লইতে না পারিয়া পলিফার গৃহ অবরোধ করিল। তিন দিন পয়ে তাহারা বলপূৰ্ব্বক খলিফার প্রাসাদে প্রবেশ করিয়া তরবারি হস্তে তাঙ্গার শয়নকক্ষে উপস্থিত হইল। এই সময় ওসমান কোরাণপাঠ করিতেছিলেন, এবং তদীয় পত্নী লেইলা তাহাব পাশ্বে উপবিষ্ট। ছিলেন। বিদ্রোহীর দিগ্বিদিকঞ্জামশুল্প হইয়া ইহাকে অস্ত্রীঘাত করিল । ওসমান দুড়হন্তে কোৱাণ বক্ষঃস্থলে ধারণ করিয়া ভূপতিত হইলেন ; রক্তস্রোতে কক্ষ ভরিয়৷ গেল,-তৃতীয় খলিফা ওসমানের জীবনান্ত হইল। (ক্রমশ:) শ্রীরামপ্রাণ গুগু । জাপানীধরণে বালকবালিকাদিগের ব্যায়াম । ( २ ) ১• । আক্রমণকারী আক্রাস্তের ঘাড়ের ডান দিকে নিজের ডান হাত ও তাহার কোমরের বা দিকে নিজের প্রবাসী। ( ১ ) ইতিহাসলেখকগণ মধ্যে অনেকে লিপিয়াছেন, ওসমান বাস্তবিক্ষই এই পত্রের বিষয় কিছু অবগত ছিলেন না ; মারওয়ান নিজেই স্বার্থসাধন জন্মই ওসমানের অগোচরে এই পত্র লিথিয়ছিলেন। সারওয়ান ঠাহীর গতিশয় প্রিয়পাত্র ছিলেন। অসঙ্গ? মোসলমানগণ কর্তৃক উছার হত্যার আশঙ্কা করিয়াই ওসমান ঠাইকে তাঙ্গদৈল হgে অর্পণ করেন নাই। এই পত্র খলিফার অনুমতি অনুসারে লিখিত হইয়াছে কি না তৎসম্বন্ধে বিদেশহীদলেরও অনেকের সন্দেহ ছিল। ওমমান মিথ্যা কথা বলিতে সৰ্ব্বগ অসমর্থ বলিয়, ধনকে বিশ্বাস ছিল।

  • ,

- * ৫ম ভাগ । ৬ষ্ঠ চিত্র। বা হাত বাখে ; আক্রান্তও আমত্রমণকালীকে ঠিক এই ভাবে ধরে ( ৬ষ্ঠ চিত্র ) । পরে আক্রমণকাৰী আস্তে আস্তে আক্রাস্তকে তাতার বা দিকে ঠেলিয়া ফেলিতে চেষ্টা করে । পূৰ্ব্ব প্রবন্ধেই বলা হইয়াছে যে, কোনও না কোনও রকমের "ঠেলাঠেলি" রোজই কবিতে হইবে। কোনু দিন কোন রকমের “ঠেলাঠেলি” করিতে হইবে, শিক্ষার্থীদের অভিরুচিব প্রতি একটু দৃষ্টি রাখিয়া শিক্ষকই তাঙ্গ নির্দেশ কলিয়া দিবেন । শিক্ষার্থীদের সংখা অধিক হইলে সকলের শিক্ষার প্র৬ি দৃষ্টি রাখা শিক্ষকের পক্ষে সম্ভবপর হয় না। এজষ্ঠ তাহদেয় ভিতর হইতেই দুই একটি শিক্ষা বিষয়ে চতুপ ছেলে বা মেয়ে বাছিয়া লইয়া অপল সকলের শিক্ষাকাৰ্য্যেপ তত্ত্বাবধানে নিয়োগ করিলে ভাল হয়। এই গৌরবজনক পদের লালসায় -

  • -

বিশেষ সতর্ক থাকিতে হইবে ) : পরে আক্রমণকারী তাহাকে | o - - ৩য় সংখ্যা । ] రిసి - -- - - ------ ttGBBB BB BBBS BBBBBB BB BBBS BB B BBB BB BB DDSBBB BBBS BBBBBBBS ষ্টষ্টাও একটা বিশেষ সুবিধার কথা । চুটীর দিন গৃহেই ব্যারাম করা উচিত। বাটীর প্রাঙ্গণে বৃক্তবায়ুতে ব্যায়াম করাই তাল। গৃহাভ্যন্তরে ব্যায়াম করিতে ইষ্টলে জানালা খুলিয়া রাথিতে গুইরে। গুহে ব্যায়াম করিতে হইলে তাহার সময়-নিরূপণ বিষয়ে মনে বাপিতে চষ্টবে যে, ব্যারামের পর এক ঘণ্টা বিশ্রাম না করিয়া আহার করা উচিত নঃে, আহাবের পর দেড় ঘণ্টা অতিবাহিত না ইলেও ব্যায়াম কৰা উচিত নহে। BBBBB BSBBBB BBBB BB BB BBB ঝাম্বাদ করা একান্ত আবখ্যক যাহার স্বভাবতঃ দুর্বল তাহদেয় কিছু বলসঞ্চয় না হওয়া পৰ্য্যন্ত শুধুই সহজ ব্যারাস করা উচিত ; আর তাহাদিগকে “আক্রমণকারী” না হইয়৷ কেবলই "আক্রান্ত"ৰূপে এই সকল সহজ বায়াম করিতে দেওয়াই ভাল। নিয়ে এরূপ কয়েকটি সহজ বায়ান বর্ণিত झ्हेल। - আক্রান্ত শিঙ্গকের দিকে মুখ করিয়া দাড়ায় ; আক্রমণকারী তাহাব বাম পাশ্বে দাড়ায় । আক্রান্ত নিজের কোমরের যমান উচু করিয়া বাম বাহু ছড়াইয়া দেয় ; আক্রমণকারী তাহার কবৃঞ্জিতে দুই হাত দিয়া জড়াইয়া শক্ত করিয়া ধৰে। এই অবস্থায় আক্রাস্তু যতদূর সম্ভব তাড়াব ডান দিকে বাকিতে থাকে (তাহার শলীর অত্যন্ত দুৰ্ব্বল হইলে ব্যাকবার বেলা যাহাতে মস্তকম্বুর্ণন বোধ না হয় তদ্বিধরে আস্তে আস্তে টানিয়া সোজা করে, আক্রান্ত শুধু নিজ শরীলের ওজনের সাহায্যে বাধা দেয়। এই ব্যায়ামেরই একট আমোদ ও উপকারজনক প্রকারভেদ এই । আক্রtBBB BBBK BBBB Btt BB BBBB BB তাছাকে আরও বাম দিকে এতদূর টানিয়া লয় যে, সে নিজের ধা ঠাঁটুর উপর ভর দিয়া মাটি পয্যন্ত তুষ্টয় পড়ে। আক্রান্ত দুৰ্বল হইলে বায়ামটি এই খানেই শেষ হয় ; কিন্তু সে আক্রমণকারীব সমকক্ষ হইলে সেই আবার আক্রমণকারাকে টানিয়া তুলিয়া নিজের ডান দিকে ঝুঁকিয় পড়ে। আক্রাস্ত ও আক্রমণকারী উভয়েই সুস্থকার হইলে এষ্ট ব্যায়ামটি করিতে পারে। আক্রান্ত ডান দিকে এতদূব জাপানীধরণে বালকবালিকাদিগের ব্যায়াম । 5. তাহার প্রসারিত বাম হস্তের কবুজি দুষ্ট হাতে ধরিয়া তাহাকে টানিয়া তুলে ও শেষে দুই এক পা পেছনে হটিয়া আক্রান্তকে টালিয়া বাকাইতে বাকাইতে নিজেই এক হাটু গাড়িয়া মাটিতে বসিয়া পড়ে। আক্রান্ত আবার আক্রমণকারকে আস্তে আস্তে টানিয়া তুলিয়া বিপরীত দিকে যত দূর সম্ভব বাকিতে থাকে। আক্রান্ত শিক্ষকের দিকে মুখ করিয়া ধাড়ায় ; আক্রমণকারী তাহার বাম পাশ্বের দিকে মুখ করিয়া দাড়ায়। আক্রান্ত তাহার কী হাত বাড়াইয়া মাথার উপর পর্য্যস্ত তুলে ; আক্রমণকারী এই প্রসারিত ও উত্ত্বোণিত হস্তের কবৃজির নীচে দুই হাত দিয়া ধরে। এই অবস্থায় আক্রান্ত উক্তরূপে ডান দিকে যতদূর সম্ভব হেলিতে থাকে ও শেষে আক্রমণকারী তাঁহাকে টানিয়া সোজা করে । আক্রাস্ত দুর্বল ন হইলে আক্রমণকারী তাহাকে আরও টানিয়া লষ্টয়া দুই এক পা পেছনে হটক্স এক হাটু গাড়িয়া বসিয়া পড়িতে পারে। আক্রান্ত তাহার বাম বাহু খুব সটান করিয়া এরূপভাবে রাপে যেন তাহার হাত উরু হইতে প্রায় আট ইঞ্চি অস্তর থাকে ; আক্রমণকারী এই হাতের কবজিতে দুই হাত দিয়া ধবে। পরে উক্তরূপ হেলন ও দোলন হইতে থাকে। দুৰ্ব্বল শিক্ষার্থীদের এই ব্যায়াম করা উচিত নহে। দক্ষিণ ও বীম পার্থে হেলন ও দোলনের যে প্রক্রিয়া উপরে উক্ত হইল পশ্চাদিকে বাকিবারও মোটামুটি সেই নিয়ম। দুইজন মুখোমুখি হইয় দাড়ায় ; একজন তাহার তলপেটের সমান উচু করিয়া এক হাত সম্মুখের দিকে বাড়াইয়া দেয়, অপর ব্যক্তি এই প্রসারিত হস্তের কবৃঞ্জি দুই হাত দিয়া ধরে : শেষে একজন পেছনের দিকে যতদূর সম্ভব ধাকিতে থাকে (আক্রান্ত দুৰ্ব্বল হইলে যাহাতে মস্তকমূর্ণন বোধ না হয় সে বিষয়ে সাবধান থাকিতে হইবে ) ও আর এক জন তাহাকে টানিয়া সোজা করে। আক্রান্ত দুৰ্ব্বল হইলে ব্যয়ামটি এষ্ট থানেই শেষ হয় । নচেৎ আক্রমণকারী তাহাকে আরও টানিয়া লইয়া একটু পেছনে হটিয়া এক হাটু গাড়িয়া মাটিতে বসিতেও পারে। সম্মুখের দিকে বাঞ্চিবারও এই নিয়ম। আক্রাস্তের - - - -