পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/১০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্ৰবাসী—জৈষ্ঠ, ১৩২৪ সেখানে যাই দ্বারা মুক্ত করা হয় । মােৰ কম, সাৱ বা চওড়া, নীচের দিকে ক্ৰমশঃ সন্ধু, পশ্চিম বঙ্গে বা ‘ৰাইন’ ও বাইনের আকার গো বাটের মত, আদি বহুকাল বঙ্গের জাখ-শাল দেখি নাই এবং বানী বা বাইন কানা দ্বারা বাটের মতন জোলে কালে দেখিয়াছি ; মনে আছে, গ্ৰামে আখ-শাল ভিতরে কুলিতে থাকে কানার পাশে থাক থাকে, দিয়াছে—এটা যেমন-তেমন সংবাদ ছিল না বিশেষত ন, আগুনেৰ শিখা কিংবা ধুৱা উঠিতে পারে না। প্ৰকৃতি-দেবী যে বালককে মধু সে অনুরাগী কবিয়াছেন, ভিতরে কাদা-লো জোলে আপুন আলে, তাপ ৰিী তাছার নিকট গ্রামের মাখ-শাল এক মহোৎসব । সেখানে হইতে পাৱে না। চুণীর মুখ (‘আল-মুখ ) মাটির নীচে, জাখাইতে পাওয়া যাইত, ৱস পাওয়া যাইত, গুড় পাওয়া অবশ্য বড় । অৱ প্ৰান্তে ঘুম পথ ( শিয়ালিয়া—“শিয়ালে । স্বাভ, বিশেষতঃ ভিড়া পাওয়া যাইত । বাঙ্গালী অল্প দানে মাটির উপরে । অবশ্য ছোট, বেন শিয়ালের গতে , মুখ কাতায় ছিল না, প্রামের কৃষক ক্ষেতের আখে প্ৰাৰ্থ গুড় ব্ল’দিতে অাথের খোজা ও পাতা প্ৰধান জালন । কিন্তু পাইলে আনন্দিত হইত। সম্বৎসবের যা, শ্ৰম, চিার ইহাতে কুলার না লৰিলাইতে আনন্দ দুইবারই কথা নি শবগাছ আখের সদৃশ দীৰ্থ তৃণ । নদীর স্বাস্থার মত আরও দশ-পন জনের ভাগা-পরীক্ষা হুইবে, সারে, বাণিতে, বন হইয়া জন্মে । সুতরাং কাটা যাহাঙ্কে নিদিয়ে সম্পাদন করিতে বিহরণ গণেশের ও বাতীত না বায়ু পশ্চিত না। । এখন শহু-গাভ কিনিয়ে পাকবিধাতা ব্ৰায়ি পুজা বিহিত, সেখানে সাকি হইতেছে থাকেই থাকে। আগ-চাষ ব বহু ন হইলে কেত চুণীতে তাপে অপচয় হৱ না বিশেষ এই, যে আখ-শাল করিতে পারে না বহু, ছাগ করিবার সাদা , সে পাই :ন ত পায় নাই। ধন-বল, ভূমি বল, জন বল না থাকিলে আপ চাব সে দিকে চীর তলা কিছু উচ্চা একথা আজি নহে চবিংশ শ বছর আগে সে দিকে আখের বসে ‘বহা’ বা ‘ব’স” বাইন । চাপ লিখিছিলেন, অথ-চাধে “ব বাধা বহু, বায় ।” এখানে কাচা বল মুতাপে থাকে, হাত সহ) এলে দশ-পােনর ঘর কৃষককে গাত৷ ( স সঙ্গত,–গোষ্ঠী গাদ উঠাইবার পক্ষে এই উষ্মা উত্তম club) কবিয়া আৰ্থ-শাল করিতে হয় । বাই ঠিক বঁাশে শলা ‘বা’ দিয়া গাদ তুলিয়া ফেল বিয়া লোকালয় হইতে দূরে, আখ বাচী ( planta ইদানী ল নিতা প্ৰচলিত হইতেছে । সো নিকটে, ডাঙ্গা পৱিত করিয়া গোবর মাটি দিয়া নিকাইয়া এসেবে গাদ তোলা হয় । এই ইক্ষুশালা নিৰ্মিত হয় পবে, আল মুখের দিকের বাইনে তাপ অধিক লাগে। থাকে। অনভিপ্ৰেত দিক হইতে বাতাস বহিলে আখুন এপোনে দুইটা বাইনে হইতে পারে, পাকের সময় স কিঠাৎ শীতল হতে ত তিনেক লম্বা শে মাথা চিরিয়া একটা ভা.ে একারণ, দক্ষিণউচা উত্তর নীচা, প্ৰাই দু ষ্ট লা দিয়া সেই ভাচে করিয়া একে বাইনের সী পূৰ্ব-পশ্চিমে লম্বা একচালার আণ শাল হয় দক্ষিণ বাইনে চালা হয় । যে বাইনে—ইটা বাইনে সম্মুখ, পশ্চিমে চুী-মুখ, পূর্বে মাপ, উপরে খুড়- চার যাতে লম্বা জোল (চুী) কাটিয়া তনুপরি ১৭১২ কুণ্ড পরে পরে সাজাইয়া কাদা দিয়া বসানা হয় । এই সকল অামাদের ধামে এই স তোলার তাকে ‘লাঢ়ী, মো বোধ হয়, লা আকার হইতে লাচী বা ল-কুণ্ড পুর, ো ড়, দুৰ্ভঙ্গ মাটির কানপুৰ মুখ দাম । জাড় এই ধাৰাৱে হইলে বল বুলিতে চালিতে বিধা ও ীিতে তে থাছে । হাতী আকাৰ নাৰাবিব হইলে sugar actory. মায়াতে বলে স্থানে এক এক আদৰ্শে গা । পল ঙ্গেৰ হাড়ীর ফাড় লম্বা আকার ব্যতীত তা পুত্ব ৫ [ ১৭শ ভাগ, ১ম খণ্ড - ২য় সংখ্যা] সারা হয়, সে বাইনের নাম ‘ভাষ্কার'। 'সো বাইনের পুড়ো বাইনে পাক শেখ হইবার সময় ী য় খ য়েট ‘কোল ভাস্কার', ইয়ার পরেরটা ‘কারিয়া ’ বা বাইনের দিকে রাখ্যিা বসােনা হয়, এবং লাষ্ঠী ভাৱো । এইখানে তাপ সমধিক ও প্রখর । এখানে গুঢ় তোলা হয়। ‘জেতার গুড় খুঁড়ের দায় পরে আর ছয়টা বাইন । নাদে (সঃ ‘নন্দা' ) ঢালিয়া মোট কাঠি দিয়া বঁটা খুলতে গুঢ় রাধা ? এ কাৰণ নাম “ডিয়া’ বা তল করা হয় । ইতিপূৰ্ব্বে প্ৰত্যেক দেখ ড়ো। ছয়টাই আর গলা অপেক্ষা কিছু নীচে করিয়া দেওয়া হয় ! বীজ না দিলে ভাল দানা ধাথে না । তি । কাণ আল -মুখের কাছে তাপ উপরে তত কে ‘বা’ । এক সেৱ বীজ করিতে হইলে দুই সে উঠা । মুখের কাছে চাৰিটা একসাবি ও নহে, ইসাবি ; আড়াই সের গাঢ় রস মাৰণক । বীজের অত , চতুৰঙ্গের চারি কোণে বসান হয়, সকলেই প্ৰায় লাৰীতে দঢ়াইবা ধরে, এবং একটু শীতল হইলে দিয়া সমান, কিন্তু, মুহ তাপ লাগে । তারোল গাঢ় রঙ্গ যায় । বীজের গড় ‘বোটীতে তুলিয়া কয়েক-না তা ৰাষ্ট্ৰনে প্ৰত্যেকার অ আ ক বিয়া ঢালা হয় মাৰিলে কেলাসিত হয় অতএব দে ইতেছে লী নিৰ্মাণে, এবং তা অনুসাথে সে বানি, : , নোটামুটি দেখা গেল। ইহাকে-দিন অংশে ৪ বাইন বসানার বুদ্ধি প্ৰয়োগ কর ২ ছে দিতে পাৱা যায়। প্ৰথমে গাদ তোলা, দ্বিীজে খাইনের আকার ঠিক কবিতে ও অন্ন বুদ্ধি অবশাক কর, তৃতীয়ে কেলাসিত কহ৷ মাই পেটমোটা tী নহে সমান মোট, বা সবাই পাৱে বতঃ সেখানে কৰি কিছুই নাই, । বাইনের মুখ ফ’দি হু ওয়াতে কেবল মূঃ তাপে গাদ উঠিলে সে গাৰ তুলিয়াকে । ইতে বাস্প দ্ৰ, উঠতে পারে ; নীচে দিকে সূচ দি অবশ্য ফেলিয়া দেওয়া হয় না । ইহা পাগ আকার কবিয়া তামুক মাথা চিটা করা হয়। দ্বিতীয়, বিয়ে ইলে তার দিকে বঙ্গ অধিক গা তপ অল্প পাই হ তৃতীয় কৰ্ম সু-সম্পন্ন কবিতে কৃষোদৰ্শন ও অজা বাইন মাটিরই কবিতে ইৰে, তখন তার। উনবিক চাই cylindrica করিতে হবে কি , এখন ও আখ হইতে রস বাহির করা দেখা হয় বিস্তাহিত কহিলে বাইন ভাগিয়া নাই কয়েক বৎসৱ পুৰ পৰ্যন্ত তেঁতুল কাঠে ই এ বিষয় পরে দেখা যাইবে ী র’ { roller ) ভিতবে আখ দিয়া পিৰিয়া সাজি পুরে বাই মরবার এক-ত ব-বৰ, তা বৰ বস করা হত । কাপাসের বীজ ও তুলা পৃথক দিয়া কারণ তার বন রস ও গড়ে ক্ষে “তনু (পাতলা )। --তা-বৰু সে বোল এ কারণ এই যাকে স্নাথ-থাই বলা চলে । কিন্তু জল দাবীতে চাইতে থাকে, তখন পাক শেষ হয় বাপা-খাই ঘোরােনা এক জনের এক হাতে লঘু কা পাকে গঢ় তোলা চলে না কোন পাক ‘ব’, মাখ খাই যোৱানা দুইজন বলিষ্ঠ ৰাৱ পক্ষেও ফৰ্ম দুই পাক লাবী ই ক্ষী দুই পাশের চুই পায়াতে ( পাদে ) গোন্ধাই তুলিয়া ‘নেতি’ নামক পাৰে চালা হয় । ইহার কাটা হাইত । মাষ্টর পিণ্ডার উপর বসিয়া এপাশে এক, জা খোলার না; বিশেষ এই যে ইয়াৰ মুখ (pout) সে -পাশে এক, বলিষ্ঠ যুবা ী ী য় প্রান্তে নিবন্ধ আছে ( spokes) হাত দিয়া টানিয়া পা দিয়া দিয়া খোৱাইত । অৱক্ষণে বৰ্মহে হই, এক প্ৰহ