পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/১৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৬ প্ৰবাসী—অাষাঢ় ১৩২৪ [ ১৭শ ভাগ, ১ম খণ্ড ছিটকাইয় পড়ে, ভিতরে কেলাস রহিয়া যায়। বিলাতে বতমান অবস্থায় কি করা যাইতে পারে ? এইরুপ পুৰ্ণমান পিঞ্জয় ( centrifugal ) দ্বারা গড়ের করিবার আছে, না বিদেশী জাহাজের প্রতীক্ষায় বগি কেলাস পৃথক করা হয়। কিন্তু, আমাদের দেশের চানি থাকা যাইবে ? কারণ, ইহা নিশ্চয়, কিছুদিন এই সৱা এইখানে আটকা নাই। ফলে আট বৎসর বাইতে গেলে আমরা দেশের গড়ও থাইতে পাইব না। বিৰে বাইতে সরকান্ধী পুস্তকে পড়িতেছি, হাদী সাহেবের চেষ্টা নূতন আখ আনাইয়া পরীক্ষা করিয়া দেশ মধ্যে প্ৰচনি নিষ্কল প্ৰমাণিত হইয়াছে ! করিতে বহ কাণ লাগিবে এদিকে কি, একটা দ আমি গড়ে ও চানি ব্যবসায়ের বাহিৰেৰ লোক। সুতরাং যাইতেছে, wার আমরা দশ বছর পিছাইয়া পড়িতে সংবাদের অভাবে আমার ভূল হইতে পারে। তথাপি পরীক্ষা চলুক ; এই দেশেই বে-সৰ ভাল আখ কোথা না কোথাও মিতেছে, ইতিমধ্যে সে সব সব কেবল বা হ্ৰাস দ্বারা স্থিতি বুদ্ধি হইবে না, মায় বৃদ্ধি করিতে পারিলে অনেক সুবিধা হইবে । নুতন করিতে হইবে । জৰ্মানী একটা শাগের শিকড়ে শতকে গেলে প্ৰথম দুই এক বৎসর গাছ ভাল জয়ে না । ১৮ ভাগ ইক্ষুশর্করা কবিয়াছে, আমরা গড় বৃথক আগে এত ক্ষেতে ম কৃষির প্রভেদ জল-বায়ু পাই না । শাগের শিকড় হইতে বিধায় ১৮০ মণ চানি হেতু আখের পুণৰ তারতম্য হয় । কি, লাগিয়া গড়ে অন্ততঃ ৩ মণ জয়াইতেছে, আমরা দীৰ্ঘ বৃক্ষ হইতে অাথের নুতন দেশ সহ হইয়া যায় । ইহাও সত্য ২ মণও পাই না! সে দেশে এক মণ নির পতঃ ৫ টাকা। কৃষি-জাত গাছমাৰেই তি মাত্ৰ। আর আমরা এক মণ গড় ৫ টাকার বেচিতে ব’ল, আমাদের বাবু তু আগে যে পারিতেছি না সাহেব আগ-চাষীর সহিত তুলনা করিলে জন্মে, তা আগের স্বাস্থা লক্ষণ নহে প্ৰথম পক্ষ জামরা দাড়াইবার তল পাই না তাহারা বিধায় অংশ কৃষকের সাধা নহে সনৰ তত্ব সে জানিবে না, আখ হইতে ৩১ মণ চীন, — গড় নয় চীন, া ইতেছে! মণকে জন্মাইতে পাধিবে না । পরীক্ষা করিবার তাহার মাছ পতা পড়িতেছে ৪। অনা মাত্ৰ । কখনও কখনও বিধা গঙ্গা ও নাই । কেবল সরকানী সিক্ষেত্রের মুখ চলি মণেরও উপরে উঠে । । না জানি কেমন অ্যাগ, কেমন বসিয়া থাকিলেও চলিবে না। কত জাগায় কটা বক । ইহাদেৱ সহিত আমরা পাৰিব ? আমাদের দেশে হুইবে ? সুখেৰ বধ, আজিকালি দেশহিতৈষী উৎকৃষ্ট আখের বসে ১৬১৫ ভাগের অধিক ইক্ষু পকা নাই , জমিদারের অতাব নাই । তাহঁরা একটু মন দিলে তাহাদের বসে ২-২ পৰ্যন্ত হইয়া থাকে আমেরিকার মিহিতে একটা করিয়া ছোট ছোট কৃষিগোত্ৰ কিটৰ স্বীপ বঙ্গদেশে /* আন । কি , আশিয়া মহা করিতে পারেন খরচ বেশী পঢ়িবে না, ডিহির দেশে যত গড় উৎপন্ন হয়, একা কিউবা দ্বীপে নাকি তাহাৰ স্থা দ্বারা চাসের পরীক্ষা চলিতে পারিখে । অধোক হইতেছে। : সরকার যোগাইবেন সে গোত্রে যে-অখ ভাল তার ডগা দককে বিক্ৰি কিম্বা বিতরণ

  • To the ea er day belo, হবে একই ক্ষেতের একই জাতের সব গাছ ভাল

of the adi process of sugar autºficate as a vi e industry, which, after promising rel, as unfortunately হৈ - বোৰ হয় ইহা স্বপেক্ষা উৎকৃষ্ট আখ আর জাৰ and to be unsuitable for general adºption, নীচ গীপে যে স্বাগ হয়, তাহাতে সেই আগে জয় ৯, acle নিশা এা লেশ মাস, থোআ ১ পাখি ….৭ কম বয়, কিন্তু, ই শৰ্কৰ। বেশী । সেদিন সংবাদপত্ৰ কিউবা বীপে তিৰ উৎকৃষ্ট জাতের রসের রাহারি ভাগ এই, ছিলাম, আসাদে সরকারী বিক্ষেৰে - এক জাত আগ বা জরিয়াছে। শত সংবাদ সহ নাই । কিন্তু, উপরে সেখানে দাবীপের কাজল আগে চাষ হয় এই তুলনা মা কজিলে কত উত্তৰ তাহা লুকিতে পাৱা বাইবে না কণা, উৎণয় আখ হইতে চাঁদির পড়তা কত পড়ে, তাহা জানা ৩য় সংখ্যা ] যে গাছগলি গড়ের পক্ষে ভাল, সেগলি বাছিয়া নুতন শেঅল৷ চাপা দিয়া অল্প অল্প গড় চাচিয়া লইয়া সৰ রের নিমিত্ত ব্ৰাখিতে হইৰে । বেশী থাকিলে ডগ শেন কৰিতে সময় লাগে । ইহার পবিতে বাইনে গোটা আখ ও খণ্ড করিয়া কাটিয়া সইতে হইবে সে, এমন কি মাতের রসে গুড় খুইছা কেলা চলিৰে নিৰ্বাচনে যে কত হিত হয়, তাহা কৃষক জানিয়াও নাদায় থচ বসাইবার প্রয়োজন হইবে না। মনে নে না, উত্তম বীজ সহজে সংগ্ৰহ কল্লিতে পারে না । খাদের জমিদারবণ উত্তম বীজ যোগাইবার ভাৱ ইলেও উপকার হইবে । একণ কেবল আখ চাষে নয়, সকল (সর বোনা কোড়া) ঢালিয়া বাইনের সে নাড়িয়া নাতি প্ৰয়োখা। এখানে স্নান এক কথা ন বলি পারি ধুইয়া কেলাস পৃথক কলিতে পারা যাইৰে । আমরা দামোদরের বয়ার শক্ৰতাই দেখি মাতের বসে, তার পর গবে সে, েশষে শুধু জলে ইয় লীতে নেন ফশন হয়, পশ্চিম লইলে আর কি করিতে হইবে না তখন ৱেদে মেলি মোর কোথাও তেমন হয় কি ন অগ দিলে - যা শ খাইবে, এবং বি-বৰ্ণ হইৰে । সে সেই পলি যাহাতে ক্ষেতে পড়িতে না পারে ধা মাতে কিছু ইক্ষুশর্কর অবশ্য চলিয়া বাইবে ৱিনষ্ট হইতে পারে, তাহা চিগা আমরা স্থিত হইয়া ক তাহা ত পেল। যাইবে না অামার বোধ হয় কিন্তু বানের কষ্ট বরং হিতে পারা বায়, টানিব আশায় সব আগে গঢ় করিতে গিয়া ঠকিছ ময়ে কষ্ট একদিন ও পারা যায় । এমন উপায় কি নাই, ১াত ক ও কঠেছে । কিন্তু যে দিনকাল পৃডিয়াছে বান আসিবে পলি পড়িবে, অথচ বা ভাঙ্গিব প্ৰাক সহজে কিবে না, গড় থাইতে চাহিবে না। নিশ্চয়ই আছে অাখে পরে, এবং অল্প বয়ে অ কাজের পক্ষে যে যোগ্য, তাহাকে সে কাজে লাগানাইয়ে এমন মাউ, এত বিীণ ক্ষে আর কোথায় বলাতী চানি-কার যে পথ দিয়া চানি করিতেছে, কে যাইবে পথ আমাদের যথাসাধা অনুসরণ কতব্য আয়-বৃদ্ধির পর বা হ্ৰাস দেখিতে হইবে ীনি করে না, অথ-চাব ও করে এক কি ভাল, চাষ তাল, গড় রাধা ভাল, আমাদের তিনই জাতের চাষ করে, এবং সব আগ এক অ শাল মা কোথাও কোথাও থাকিনি টানি করে, কিন্তু করে, তাহারও চেষ্টা আবশ্যক। ইহাতে বা কম গড় সন্ত পাব । আমাদের এইখানেই আটকাইয়াছে। অপম দক্ষ বাড়ই পাওয়া যাইবে । চানির নিমিত্ত উত্তম হ্ৰাস করিতে পাৰিলেই , সন্তা হইবে না অপচয় দ্বিবিষ, স, অপচয় হা হইবে বেশী ১ ইং (১; ইহাত বা খানা কে গ্ৰাহক সী। এখন আপ বে কৃষকের লতা দেখাই দরকার হইয়াছে ( ) করিতে নুতন উপকরণ ও আয়োজন আবশ্যক হবে (৩) করা মাতের গণ তুলিয়া ভিড় কৰিতে পারা খৰে কয় দৰে মাং েবচিতে ইবে না। (৪) দলুৱা ঙ্কিত সময় লাগে কিন্তু মাং শ খাই যদি ভিড়া হয়, তাছা হইলে সময় অনেক যাচাইতে পাৱা যাইবে । অপারে তত ক্ষতি হব না, কারণ নিযের বেতন কম । বের অপচয়ই বড় অপচয় । পশ্চিমবঙ্গেও অনেক স্থানে বোর অপচয় ও যৎসামাঙ্ক । [ সবল গড় করা ভাল নহে, সৰ্ণ বাড়ই শিক্ষিত অংগ কিনিয়া কুঠতে মাড়িয় গড় করা যাইতে পারে, কিন্তু সে নিমিত কুঠার গায়েই আখ-বাড়ী থাকা চাই, আপ বেচিতে কৃষকের আত্মাহ চাই। কারণ আখ কাটাই বল ও গু করিতে পাৱ চাই । লেপথ থাকিলে ভাল ; কিন্তু কেলের ভাড়া কম ন হইলে, কিংবা জাৰ সময়ে আখ আনিবার, থাজী না পাইলে, বেণ থাকা মধ্যক্ষা