পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/২৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৪৭৮ [ ১৭শ ভাগ, ১ম খণ্ড প্ৰবাসী—শ্ৰাবণ, ১৩২৪ Competitors' পাৱে নাই। কয়েক বৎসর আগে ইনি “The আবার আসিয়া সুন্দরী আমার তার ভিতর লইয়া গেলেন নামে একখানি নাট্য লেখেন নাট্যথানি অাশা প্ৰম যলিয়া মানে তার লামা অতিশয় সদাশয় ব্যক্তি । আমার ভালই হইল যুক্ত হাগেৰ সোসাইট হার নাট্যসাধনার পথ কহিবার বাবা সেই দিনটা সেই লামা ও তার সুন্দরী পীর সহিত সঙ্গালাপ নাট্যশালার “বোঝা" অভিনীত হইয়া গেলে, সকলে নাট্যকারকে করিয়া সুখে কাটাইলাম । আরও দুদিন সেই ঠাতে বাস দেখিতে চাহিলে ইনি ী র পরিষদে নাট্যশালায় দেখা দেন । করিয়া বিশ্ৰাম-সুখ উপভোগ করিলাম । এই অবসরে জৰ্জ এলে খ্যাতনাথ৷ পঞ্চাদের নামে এই পাসের নামকরণে অন্যান্য সাতব্য হইয়াছে । ইহা হাৰ্গেীর নীচ কৃষিজীবনের চিত্ৰ লইয়া অতি, অনেক পথের তথা সংগ্ৰহ করিলাম বোকা এই দেখানো হইছে যে, একজন চলাক দেবী ত বিয়ের মধো প্ৰধান সংবাদটি এই যে অশ্বপুষ্ঠে অদিন বোকা শ্ৰাতাকে তাহার গানে অতিক্ত করি নিৰ্দোষ প্ৰতিপয় হইয়া খেল । যাহার পর “কায়াংচু” (পাগলা ঘোড়ার নদী) নামে ব্ৰহ্মপুত্ৰেয় কে উপনদী দেখিতে পাই, তাহা বিশেষ অভিজ্ঞ লোক বৃহত্তম জাহাজ-কোম্পানীর জুবিলি উৎসব । পার চেয ৰ লা হাল্যাণ্ড ও উদ্ধ জাহাজ-নিৰ্ম্মাণ কো গানীর ছাড়া অপর কেহ পার হইতে পারে না। । সেই মদী পাইয়ি বিলি-উৎসৰ সেমি হয় পৰা সংসার পূপে হবার জয় উপযুক্ত সঙ্গীর প্রত্যাশায় ১৫ই জুলাই পৰ্য্য নীতে পোনের বৎসরের বালক পাইবি শিক্ষানবীশকাগে এই কে অামি সেই ঠাকুতেই বাস করিলাম । ১২ই জুলাই রাত্ৰে অংশীদার হন প্ৰবেশ করেনযার বৎসর পরে ইনি এক ইহাই উৎসাহে এবং বুদ্ধিশেলে এই ো কাম্পানী জগতে , একটি সামা অনানা ভাবুর লোকদিগকে আমার ধাপদেশ শ্ৰেষ্ট কোম্পানী । লা পাইরি কানাডার আইসি পিতামতো গড়ে শুনিবার জন্য তাহার ঠাকুতে ভাকিয়া নিলেন জন্মগ্ৰহণ কৰে, পিতার মৃত্যু হলে বয়সে ইনি বেলাঠে অামার উপদেশ ৩০ * জন পুকৃষ্ণ নারী উপস্থিত হইলেন । আগমন করেন, স্কুল ছাড়িার পরেই কোম্পানীর সহিত ইহার া ৱ হয় ও ফত উন্নতি হইতে থাকে । … লা পাইরির করে শুনিয়া সকলে সন্তুষ্ট হইয়া যাত্ৰাৱ পূৰ্ব্বে নানাবিধ উপহার কোম্পানী জগতের থে সাপোতসমূহ নিৰ্ম্মাণ করিতেছে, দিলেন শ্ৰোতাদিগের মধ্যে একজন বালিকা অামাকে ‘ওলিম্পিক, নিমজ্জিত টাইটানিক’ প্ৰকৃতি এই কাম্পানীৱই স্ক হাঞ্জ ; । হার কণ্ঠভূষণ উপহার দিবার জন্য অত্যন্ত আগ্ৰহ প্ৰকাশ কলি আমি তাহার হস্ত হইতে তাহা গ্ৰহণ করিয়া তিবৃতরাজ্যে তিন বৎসর অ্যাবার তখনই ফিরাইয়া দিয়া বলিলাম “কিছু মনে কোৱে৷ না, আমার ইহাতে কোন প্রয়োজন নাই বালিকা সপ্তদশ অধ্যায় । কিছুতেই ছাড়িবার পাত্ৰী নয়। অগতা সেই কণ্ঠভূষণ হইতে সুন্দরীর আয়ে একটি রত্ন লইলাম। সেটি আজও সেই বালিকার স্মৃতিচিহ্ন স্বাপে আমার কাছে । পরদিন সেই সাদা ভাবু অাছে কুকুর গুলির আক্ৰমণ হইতে আত্মরক্ষা করিবার চেষ্টায় নিযুক্ত অামাদেই অধিকারী সামাৱ সহিত বাণিজাৰো ছিলাম, এমন সময়ে কুকুরদের বিকট চীৎকার শুনিয়া এক আদান প্ৰদানের জনা আসিলেন । তিনি বৌদ্ধ, আমার সহিত বৌদ্ধ জন রমণী তার হইতে মুখ বাহির করিয়া দেখিলেন । মুখ . খানি যথাৰ্থই বড় সুন্দর সেই বিজন দেশে এমন সুন্দরীর ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে অনেক আলাপ হইল । তিনি বঢ়াই প্ৰীত ইয়া আবিৰ্ভাৰ কি করিয়া সম্ভব হইল। আমাকে দেখিয়া ৰমণী আমাকে তাহার সহিত আহার কবিতে নিমণ করিলেন বিস্ময়-বিপক্ষাতি নেহে চাহিয়া ছিলেন, তারপর ৩া, আমি তার তাবুতে পিয়া অনেক সুখাদা আহার করিলাম সে বাক্তি লাদক হইতে ব্যবসার হইতে বাহিতে আসিয়া কুকুর গুলিকে তীব ভৎসনা করিলেন তার দৰ্শনমাত্ৰ কুকুরগুলি যেন লাদিত হইয়া লেজ নীচু তৎপর পরদিন তিনি যাত্ৰা করিবেন । এই ব্যক্তি আমা৷ ফরিয়া পলায়ন করিল । অামি হাসিয়া সুন্দরীর নিকট “কায়ং পাৱ কহিবা ভাৱ লইলেন । এক রাত্রির আশ্ৰয় ভিক্ষা করিণাম জন্য । তিনি বলিলেন আমাদের ‘লামার’ বিষয়ে শুনিলাম, তিনি যথাৰ্থ “আচ্ছা। আমার লামাকে বিজ্ঞাসা করিয়া আসি”—এই বেীন্ধপুরোহিত-চিত্বকোঁমাধ্যত্ৰতচাৰী হইয়াও সুন্দরীর কন করিয়ানে জানি না বলিয়া ভাবুর ভিতর প্রবেশ করিলেন। হঠমধে পাণিগ্ৰহণ করিয়াছেন বাঙালীর বাড়ীতে উদ্যান-সন্মিলন । বাঙালীটিকে বাহির করুন দেশ ? ( চিত্ৰশিল্পী ও গগনেন্দ্ৰনাথ ঠাকুর মহাশয়ের সোঁহন্তে মুতি ।