পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/৩১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৫২৮ প্ৰবাসী—ভাদ্র, ১৩২৪ [ ১৭শ ভাগ, ১ম খণ্ড জানা উচিত যে, বুদ্ধির সহিত সংযুক্ত হওয়ার নামই প্ৰকৃতির মিউনিতে আমরা িছলাম তোমাদের পক্ষপাতী সহিত সংযুক্ত হওয়া ; কেননা, বুদ্ধি প্ৰকৃতির পথ কেউ গোরা হয়ে অনেক গোলা নিছি মোরা পাতি । না-লুকি প্ৰকৃতি বৃক্ষেত্ৰ প্ৰথমজা শাখা। ইতি প্রশ্নোত্তর অনেক যুদ্ধ জয় করেছি ন কাবুল ও আফ্ৰিকাতে সমাপ্তি ধূলায় সোনা লিয়ে িদছি সাগর-পারে দ্বীপগুলাতে সাংখ্যমতে, প্ৰকৃতির সহিত পুরুষের সং.ে চোঁকী দিধি শাংহাষ্মে আর মগের দে দিইছি মাথা পালট যে, কি, এবং তাহাতে ক’বিয়া অস্তু তিব্বতের ও সন্ধি সুলু —া সে কথা ভুলব না তা । ফায়াদি উপাধিতে পুৰুষের বন্ধন ঘটেই বা কিপে, তাহার ক নিয়ে নি গেছি বেলজিয়মে তথ্য নিরাপণ যত পারি সংক্ষেপে কথঞ্চিৎ-প্রকারে কবি৷ বোগদাদে দা তুলতে তোমার ভগ্ন করিনি জগন্ত মে, প্রকৃতিপাশে পুধের বঞ্চনা ভয় করিনি উড়ো-জাহাজ হের-ঘেঁয়া হাউইটজারে, … অবস্থায় প্ৰকৃতিপুকুযের মধ্যে এই দুশা কতৃকাৰ্যা এব গোৱা সঙ্গে গুণা ও শিখ জান দেছে হাজার হাজারে । তোভোগ্য প্রভৃতি সম্বন্ধ ঘটিয়া গাড়া কিক্ষপ তাহার ধুলে যেমন দুঃসাহসী মন্ত্ৰণাতে তেমনি সুধী, তথানুসন্ধানে প্ৰবৃত্ত হওয়া যাইতেছে শাসন-কাজে সমান পাটু, কোন রোজা রাখবে সুধি ? শ্ৰীদ্বিজেন্দ্ৰনাথ ঠাকু৭ বাণী মোমা শিল্পী মোরা, কাধ্যে মোরা বিশ্বজী, বিজ্ঞানেও নইক তুং, কারো চেয়েই ক্ষুদ্ৰ নাহি রাজ্যতরীর ধাড় টানি রোদ, তোমরা রোজই হালে থাক পশ্চিমে কিঢ় উঠছে, মাকি, আমাদেরও শিখিয়ে সুখ ; দাবীর চিঠি আমাদের ও দাও আধিকার, নাও তোমাদের সমান ক’রে, রাজার উপর রাজা যিনি প্ৰণাম ক’রে তার পদে সময় মত লাগ: - কাজে, শেখাও যদি হাতে ধ’রে স্বাধীৱ চিঠি পেশ করি আজ বিশ্বজনের পঞ্চায়তে । অযোগা নাই একেবাহেঁ বলছি মোৱা দোর গলাতে কাদা-কানুন জানিনে ভাই, বলছি সবার করে ধরে, যদিও কালা-স্বামী তবু— হাদ রেখোনে তি ও বিদেশী গোয়ার জাতি। তোমরা শোনে বিশেষ ক’রে মাদের অ্যাগে মোদের দানে পুষ্ট বিরাট রাষ্ট্ৰ-হৃদি চকুৱে চক্ৰ যখন মুছে বেগে মৰ্য্যলোকে চার মহাদেশ চৌপায়া যার তোমাৰ একার নয় সে নিধি ধাপাতের তলারমানুষ উঠছে উৰ্দ্ধে স্বৰ্য্যালোকে মারে দাড়িপাল্লা দিয়ে করলে ওজন দেখতে পারে পোলাংগুইচ্ছে স্বয়ুপ্ৰভু,—পাচে ইরিন পাকা পাটা আমা নেহাৎ কম যাব না, যদিও আছি পরের ভাবে ? কালার গোয়া সমান দাবী—মহারাণীর ভাষায় কৰি , তখন যে হোক্কল চেয়েছে খুব বেশী কি তাৰ চাওয়াটা ? রাজা উক্তি উড়িয়ে দেবে ?—তোমরা হবে রাজদ্ৰোষ্ট্ৰী রে মান্য করি, রাজা সুখে বিরাজ করুন, আমরা কালাগোরা দুই প্ৰজা ঠাৱ দু’এ চালায় রাজ্যতরী যোগ্যতা নেই ?...দেখ চেয়ে মান-ইতিবৃত্তময় একূলা গোরা সব করেছে যে কয় সে কয় গা-কথা, কালার দানের অক্ষাগুলি গোরার চাইতে মলিন নয় । কালার পোৱা দে-শোণিতে সাহাজোরি বনে পোতা। জামরা দিছি গাটের পয়সা, আমরা দিছি দেহের কক্ত কাণা দেহে বান্ধীকি বাস; গোৱা বেছে ?—মিণ্টনো। - করতে মোদের অভেদ রাজার সিংহাসনের ভিত্তি শক্ত ; কালা দেছে বুদ্ধ অশোক ; গোরা গেছে ? কং মনে ? কাগার জনক মাঞ্জাবকা ; গোরার আছেন—মাটিনো এায়ারের চার পায়া অালম চার মহাদেশ ব্যাপ্ত করে কালার গোয়ার বল যুগপৎ যুক্ত আছে তার ভিতরে । কালার মুরাজেন্দ্ৰ চোল ; গোরার ক্লাইভ মাৱে । সাক্ষী ক্লাইভ-কাল ঘোঁজ সাহাজোরি পতনেতে কালা দেছে আৰ্যভট্ট, গোরা দেছে নিউটনে প্ৰথম যে ইট বসিয়েছে তা নিজের বুকের ধার পেতে কালা কৃতী জীবের সেবা, গোরা vivisections ৫ম সংখ্যা ]] ভারতের বণভেদ-পদ্ধতি স্বালার ছিল বৌদ্ধ মিশন, গোরার মিশন ষ্ট্ৰীয় বুঝতে নারি খেলতে বসে খেড়ির সঙ্গে আড়াআড়ি, ৰাইজানে কালার দেখেই নকল ক’রে সৃষ্টি ও শাই বুক বাড়ছে এতে, মিটিয়ে ফেল তাড়াতাড়ি । দিকে ওই কনাদ কপিল, অন্ত দিকে হিউম মিল, তোমার হচ্ছে ছা পজাঁ, ঘেঁড়ির কিছুই হচ্ছে নাকে দিকেতে অমৃতপ্ৰাণ, অন্যদিকে বীচাম্‌স পিল ধরে ত’ কেউ কলিকালে মানবে এমন আশা মাথো ? তার ছিল চাণক্য; আর গোরা ছিল ? ডিচ রেলি দেড়শো বছর আমরা আছি পাশাপাশি বিশ্বকুল, না হাই, যাক চুলোতে, মিছাই নামের ভিড় ঠেলি গঙ্গা এবং যমুনা ধায় সঙ্গমে তরঙ্গ তুলে, আছে ম্যাগ না কাটা, কালার না হয় নেইক ত্য, কালার গোলার এম্পায়ার এ, ঠেলবে কারে রাখবে বেছে, of Rights-নয় কখনো নগ্ন জীবনের শেষ কথ ংলার গোৱা যুক্তবেণী হরিহরের মূৰ্ত্তি এযে । , , কলে নয় তুচ্ছ কালা, তার পলিটিক্স নয় মাথার লছে তেজে ব্লায়ের চক্ষু, ছায়ের কণ্ঠে হব ঘোষণা আছে পালামেণ্ট, আর কালার ছিল সন্তাগার অাইন তোমার কয় হেঁকে ওই কেউ ছোটোনা কেউ কীৰ্ত্তি মিশর দ্রাবিড় আরব চীনের সভ্যতা গায়া কীৰ্ত্তি ? ভা ইনামাইট --স রার বা তা বল্‌ছে সন্তা, বলছে ধৰ্ম্ম, মনুষ্যত্ব বলছে শোনো যাৱে ভবাভা কয় তিনশো বছর বা তার বলুছ তোমার ঘরের লোকও, বলছে তোমার আপন জনও শাহ যা গৌরবের জিনি—তার অন্ত ঃ তিন হাজার । বটানিয়ার বিবেক-বুদ্ধি প্ৰবুদ্ধ আজ বেস্তাণ্ট পে সেছে ক্ৰমোলে, অর ভারত ৪ামদায়াম ধষ্ট হবে ব্ৰিটন যদি তার বাণী আৰু লয় গো সুকে ; বীণা চালাস ঘাট ;-কাণায় গোরা মিল তামাম শক্তি হবে সংহত দুৰ্জ্জয় হবে গো বিশ্বেরি মাষ তিরিশ কোটির হৃদয় যদি লয় জিনে হোমঙ্গল দিয়ে আজ । তির পাতির কলনী-দাম আজকে না হয় বন্ধ হাত মানুহ-মাত্বে যদি মানতে পারে হৃদয় খুলে ই বলে িক বতে দেবে তোমা না সব সভা ভাঙি চলবে তবে যুগে যুগে বালিয়ে ভেরী নিশান ভুলে ; বাতি আফ্ৰিকাতে স্নালছ নাকি ? শুনতে পাই অমর হবে মৰ্ত্তো, সদাই সামনে পাবে পুপিত পথ বী উঠিয়ে লেছ নিত্যি শোনাও এই কথাই দেশের হক্‌দাবীতে কান দিলে নাম গাইবে জগৎ। মোদের সকল দাবী দাবিয়ে কেন রাখতে চাওঁ ? নইলে পর লাভের ঘরে অমর হ’য়ে অষণ ৰে, ীিয় কথা পাড়তে গেলেই কুঁচকে ভুল দাবড়ি দ’ হক দাবী যার তা কি ক্ষতি ? পাওনা আদায় হৱেই হবে। হতে দাও আমাদের, বুঢ়াও মনের এ আৰু শোধ বিশ্ববিধান বিধির বিধান, স্যার নিধান নিত্য কালে দাও অধিকার, হোৱালে কি এতই দোষ ? হক দাবী যার বুক তাজা তার হার' লেখে না তার কালে । পেলে চোয়াড় পেলে পেলে তাদের দোহারগণ, শ্ৰীসত্যেন্দ্ৰনাথ দত্ত ভ ভাগো খোয়াড় শুধু, বুঝতে নারি এ কেমন রের বন্দেলে তার নিজের দেশের থিম, ভারতের বৰ্ণভেদ-পদ্ধতি লপিনোেৱ চাইতে অসম ভাৰছ মোদের কোনমতে Emile Senatএর ফরাণী হইতে তাই চাইছি মোৱা—বেটুক মোদের হক্‌ দাবী উপসংহার ) নয়কো মোটেই, মিছে ভুল ভাবি গেটো ও হেরোডোটাসের সাগ্যের উপর নিৰ্ভর কবিয়া, তো ঢের খাটালে এবার চুটি দাও তারে অনেকদিন পৰ্য্যন্ত লোকের বিশ্বাস ছিল,—পুরাকালে ইঞ্জি যে বিনাশ করে সাহায্যের আন্ধারে ; বৰ্ণভেদ-পদ্ধতির দ্বারা নিয়ন্বিত হইত । এই মতটি আঞ্জকা থে কর, দ্যাখ না বিশ্বাস ক’রে, খুব বিশ্বস্ত বিচারকগণ কতৃক পরিত্যক্ত হইয়াছে । অঙ্কেণী * না লোক দেড়শো বছঃ একলে ভাই, বাস করে ? পুরাতন স্মৃতি-সামগ্ৰীসমূহ স্পষ্টৰূপে ইহার বিদ্বে সাক্ষা ৫৬৭- ১১৩