পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/৪০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ১৭শ ভাগ, ১ম খণ্ড দান করেন, এবং দ্য আরও লোককে অল্পবিধ সাহায্য অনিচ্ছক। এ সম্বন্ধে আমাদের জ্ঞান আরো বেশী হইলেণ্ড করেন। দুইটি পুকুর এবও পাকা কুমা খনন ও নিৰ্মাণ মাসিক কাগজে চলতি ঘটনা সম্বন্ধে লিখিবার স্থান অল্প ফায়া মণ্ডলী কয়েকটি জামে বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা বলিয়াও বেশী কিছু লিখিতে পারিতাম না। তেতিয়া করেন। ট পেলায় ইহার ২৯টি শাখা স্থাপিত হয়। ষ্টি দেখিতেছি, বাগান্ধটির এখনও চরম পরিণতি বইতে বিলা লো সীতা বিদ্যালয় চাগাইছিলেন। বাকু আছে। প্ৰায় তা নয়ন কি-না-কল্প বটতেছে। এ মেলার মালিয়া গ্ৰামে একটি যৌথ খাদানসমিতি ও ব্যাঙ্ক অবস্থায়, যে কাগজে আরো এক মাসের আগে আর কিছু থাপিত হয়, এবং কলিকাতায় আর একটি রেজিষ্টী কা লিখিতে পাৱ যাইবে না, তাহাতে বিষয়টির কোন-প্রকার বা ষান্তাক্ষা লম্বন্ধে পী ও পুস্তিকা প্ৰকাশ ও বিতরণ আলোচনা করা ৰাজনীয়ও নহে বং যকৃত স্বারা মণ্ডলী অনেক গ্ৰামে বাস্থ্যবিষয়ক জ্ঞান আমাদের হলগত ইচ্ছা এই যে দি এখনও ঝগড়া বিস্তাৱ করেন। কলিকাতার গরীবলোকদের একটি পাতায় মিটয়া যায় তাহা হইলে খুব কাল হয় শিক্ষাদান,াস্থ্যেউতি, প্ৰতি নানাবিধ সমাজসেবার বাংলাদেশ বে কংগ্ৰেসকে , এবারা নিমন্ত্ৰণ করিয়াছিল, কােজ আছয় ইয়াছে। কলিকাতায় নিকটবৰ্ত্তী কয়েকটি তাহা পাণ্ড হইবে, এবং কংগ্রেসের অধিবেশন অন্য কোন গ্রোমের উন্নতির কাজ আর হয় প্রদেশে হইলে তাহ বাংলা দেশের পক্ষে জার বির কলিকাতায় ৬০ নং আমহাষ্ট্ৰীট ভবনে বঙ্গীয় হিত হইবে ওঙ্কত কুফল ফবিতে পারে। ইতিমধ্যেই সাধনমণ্ডলীয় গাদিদেৱ নীচের তলায় একটি কারিগরী বোম্বাইদেৱ শ্ৰীযুক্ত এন এ সমৰ্থসমগ্রচারতের কংগ্রেস শিক্ষার বিদ্যালয় খোলা হইয়াছে। তাহাতে নিপুণ কমিটিতে এই প্ৰস্তাব উপস্থিত করিবার জন্য উদ্ভাৱ শিক্ষকের সাহায্য দরদিয়াকাৰ শিখান হয়। সকল প্ৰকার সেক্রেটারীদিগকে চিঠি িদয়াছেন, েয, লঙ্গে দলাদলি হওয়ার পরিচ্ছদ, প্ৰত করিবার ফরমাস যাওয়া হ স্থান পরিবর্তন করিয় এবার মাত্রাঙ্গ বা বোম্বাই কংগ্ৰেসের অধিবেশন হউক, এবং পণ্ডিত মদনমোহন বঙ্গে গৃহবিবা মালী বা সার নারায়ণ গণেশ চন্দাবকর তাহার আগামী কংগ্রেসের অধিবেশন কলিকাতায় হইবার সভাপতি হউন । গাং উহায় সভাপতি নিৰ্ব্বাচন উপলক্ষে এখানে যে দল উভয় দলের কোন কোন লোক ভিয়পক্ষীয় লোক লিইতেছে, তাহা অতীব দুঃখের বিষয় । আমরা ভারত দিগকে গালােগালি দিতেছেন । ইহা ৰাজনীয় নহে। কোনও ভায় সভ্য নহি, বঙ্গেয় প্ৰাদেশিক কগ্রেস কমিটির সভ্য দলের সমস্ত লোেকই মিথ্যাবাদী হইতে পারে না ; সকলেরই হি, কলিকাতায় হোমঙ্গল লীগের সভ্য নহি, আগামী অভিপ্ৰায় মন্দ হইতে পারে না কোনও দলে সব হোসের অভ্যর্থনা কমিটির সভ্য নহি । অভ্যঞ্জনা লোকেরই অভিপ্ৰায় ভাল, তাহাও বলা কঠিন। আমি কমিটির যে দুই অধিবেশনে কাৰ্য্য ও কাৰ্য্যপ্ৰণালীকে যাহা স্বচক্ষে দেখিয়াছি বা স্বকৰ্ণেশুনিয়ছি, আহার বিপরীত উপলক্ষ করিয়া দলাদলি হইতেছে, সেই দুই অধিবেশনের কথা কেহ বলিলেই সে যে নিশ্চয়ই মিথ্যাবাদী, এমন কথা সময় আমরা কলিকাতায় ছিলাম না ; থাকিলেও, আমরা বলা যায় না কারণ সব জিনিষ সকলের ইন্দ্ৰিগোচর হয় সভ্য নহি বলিছা সন্তাস্থলে উপস্থিত থাকিয়া না, সকলে সব জিনিষ একই ভাবে দেখে না বা শুনে না । সাক্ষাৎ ভাবে সমস্ত বিষয় জানিবার সুযোগ আমরা উভয় দলের কায্যের মধ্যেই চতুরী, এবং ভাল ও গার বিষয় সম্বন্ধে আর যাহা জানি, মন্দ দুই দেখিতেছি কংগ্ৰেসের সভাপতিত্ব।। বাংলাদেশ ছাড়া ভারতবর্থেব অন্যান্য সব প্রদেশের গৃহবিবাদ সম্বন্ধে কিছু লিখিতে কংগ্রেস কমিটিগুলি মিসেস বেসাণ্টকে আগামী কংগ্রেসের ৬ষ্ঠ সংখ্যা ] বিবিধ প্ৰসঙ্গ— কংগ্ৰেসের সভাপতিত্ব ৬৪৯ সভাপতি নিৰ্ব্বাচন করিতে ইচ্ছ, ক কংসে সমস্ত … আমরা ভাল মনে করিতেছি না, তখন হার বোগ্যতার ভারতবর্থের ব্যাপার সুতরাং মিসেস বোটের সহিত বিষয়েও কিছু বলিব না মোটের উপর এই বলি, যে, অল্প কাহার ও যোগ্যতার তুলনা না করিয়াও এরুপ বলা আমরা যদি অভ্যর্থনা কমিটির সভ্য হইতাম, তাহা হইলে যাইতে পারে যে তঁহকেই এবার সভাপতি করা। কীৰ্ত্তব্য । তঁহারই পক্ষে ভোট দিতাম । তাহার বিকম্বে কি বলিৰায় কিন্তু ইহার অৰ্থ এরাপ নয় যে বাহার কোন কারণে মিসেস আছে, তাহা আমরা ভাল ফরিয়াই জানি, এবং মজা বেলাণ্টকে সভাপতি করিতে আপত্তি আছে, তাহাকেও রিভিউ -এ অনেকবার তাহা লেখাও হইয়াছে। ‘তথাপি তাহার নির্বাচনে সায় দিতে হইবে। ভারতবর্থের সাড়ে- তাহার সপক্ষে ভোট দিতাম। যোগ্যতার পরিমাণ বিয়া একত্ৰিশ কোটি লোকের মধ্যে ৩১ কোটি অতীত দোষ ক্ৰটি উপেক্ষা করিতে হয়। সভাপতি করিবার ১৯ হাজার ৯৯ জনের মত যদি একদিকে হয় এবং বাকী অপর বাহাদর নাম করা হইয়াছে, সভা -- জগতে একজন মাত্ৰ লোকের মত “অদ্যালকার হয়, তাহা হইলে তঁহাদের কেহই মিসেস বেসাণ্টের মত পরিচিত নহেন, এই একজন লোকেও মত সম্পূৰ্ণ স্বাধীন ভাবে ও নিৰুপ এবং সৰ্ব্বত্ৰ হার অভিভাষণের গুরত্ব রেপ অনুভূত বে প্ৰকাশ করিবার অধিকার ও সুযোগ থাকা উচিত। হইবে, আর কাহারও ততটা হইবে না। এসৰ কথাও গণতন্থের ভাল জিনিধই গ্ৰহণী, তাহার আনুষঙ্গি ক বিবেচ্য যে-সব গুণ্ডামি, চীৎকার, উত্তেজনা, বিশেষ করিয়া পাশ্চাত্য তাহার সভাপতি হওয়ার বিরুদ্ধে এমন কোন কোন দেশে লক্ষিত হয়, তৎসমুদয় বৰ্জনীয় আপত্তি হইয়াছে, যাহার সহিত তাহার যোগ্যতা অযোগ্যতার মিসেস বেপাণ্টকে বিশেষ কোন একটা জায়গায় আটক সম্পৰ্ক নাই । সেইস্কপ চুটি আপত্তি সম্বন্ধে আমরা কিছু করি। রাবিয়া এবং তাহার বক্ততা করিবার ও রাজনৈতিক বলিৰ । ( ) । তিনি বিদেশী । কংগ্রেসের উদ্দেশ্য কিছু লিখিয়া প্ৰকাশ করিবার অধিকার লোপ করিয়া স্বায়ুক্তশাসন লাভ বিদেশীকে ইহার নেতা করিলে গবৰ্ণমেণ্ট প্ৰণাদিগের বৈধ প্লাজনৈতিক আন্দোলন কবি- প্ৰমাণ হইবে যে আমরা িনজেদের কাজ নিজেরা চালাইতে বার অধিকারে হাত দেওয়ায়, তাহাকে সভাপতি নিৰ্ব্বাচন পারি না, বিদেশীর সাহায্য লইতে বাধা হই ; অতএব রিয়া গণমেণ্টের কাণ্যের প্রতিবাদ করিবার ইচ্ছায় আমরা স্বরাজের অযোগ্য । সুতরাং উহাকে সভাপতি অনেক নিৰ্বাচক তাহার দিকে ভোট দিয়া থাকিবেন করা উচিত নয় আমাদের বক্তব্য এই যে বাহারা ইল, স্বরাজের সপক্ষে তিনি সৰ্ব্বাপেক্ষা তেদের সহিত আলো- ব্ৰাহল, কটন, ওয়েব, ওরেঞ্জাৱৰৰ্থক সভাপতি কুরিয়া লন করিয়াছেন বলিয়া তাহার দিকে ভোট দিয়া বোৰ হৱ ছিলেন, এবং রামকে. ম্যাকডন্যাকে কবিতে চাহিয়া অনেকে গবৰ্ণমেণ্টকে জানাইতে চান যে ভারতবাসীরা ছিলেন, তাহাদের এক্সপ আপত্তি কা উচিত নহে। আমরা স্বরাজ চালু এই-সব কারণে, ও মিসেস বেসান্টের বরং এ অপত্তি করিতে পাতিন কারণ, রাম স্বাধীনতা বহুপরিমাণে লুপ্ত হওয়ায় তাহার প্রতি স্বাভাবিক মাকড়লাভের নাম যখন প্ৰস্তাব করা হয় তখন বাংলাদেশে সুিভূতি-বশতঃ, এবং নিগৃহীতের কোন দোষ ক্ৰটির উল্লেখ যতদূর জানি, সমগ্ৰ ভারতবর্ষে ) একমাত্ৰ অামাই করিতে অনিচ্ছা-প্ৰযুক্ত, তাহার সপক্ষে যত কথা বণা এই আপত্তি করিয়াছিলাম আগ্ৰা-অযোধ্যায় প্ৰাদেশিক হইয়াছে, তাহার বিপক্ষে যাহা বলিবার অাছে তাহা কন্‌ফারেন্সে যে-বার মিসেস বেসাণ সভাপতি হন, তখনও তেমন কবিয়া কোন প্রদেশেই বলা হয় নাই । বিশেষত আমরা এইরুপ আপত্তি করিয়াছিলাম দুইবারের কোন এংলো-ইণ্ডিয়ান কাগজ গুলা বাহাকে আক্ৰমণ করে, দেশী বাই ভারতবরে ভিন্ন ভিন্ন রাজনৈতিক দলের কোন কাগজে হার প্রকৃত দোধাকটর ও উল্লেখ স্বভাবতই কম দলের একখানা কাগজেও আমাদের কথার কেহ-সমৰ্থন বা উল্লেখ করিয়াছিলেন বলিয়া দেখি নাই বা শুনি নাই মিসেস বেসাণ্টের বিরুদ্ধে কোন কথা এখন বলা যখন কংগ্ৰেসের প্রধান উদ্দেশ্য যে ঔপনিবেশিকা ছাঁচের স্বাত্ত ৮২-১৩