পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করলেন। আজ পটে কথা। রায় বাহাদর বলিলেন, “দেখ পরেশ, আজ আমি তোমার কাছে একটি প্রস্তাব করবো। বিষয়টি একটা কি বলে গিয়ে, ডেলিকেট। ইচ্ছা হয়, আজই তুমি উত্তর দিও। কিবা যদি ভেবে চিন্ত দেখতে চাও, আজই তোমার উত্তর আমার আবশ্যক নেই ; ভেবে চিন্তে দেখে, দুদিন পরেই তুমি আমায় বোলো।” পরেশ বিস্ময়ের ভাণ করিয়া, রায় বাহাদরের মুখপানে চাহিয়া রহিল। রায় বাহাদর ঈজি চেয়ারে একটা উচ্চ হইয়া উঠিয়া বসিয়া বলিলেন, “আমার মেয়ে সুনীতিকে তুমি ত দেখেছ। ডায়োসিজনে পড়ছে, এবার ম্যাট্রিক পরীক্ষা দেবে, তাও বোধ হয় শুনেছে। ওর বিবাহ দেবার জন্যে, গিন্নী কিন্তু বড়ই ব্যস্ত হয়ে উঠেছেন। যেখানে যেখানে পার দেখা হল, কোথাও তেমন পছন্দ হল না –তোমাকে গিন্ন কি সনজরে দেখেছেন জানিনে, ওঁর ভরি ইচ্ছে হয়েছে, তোমার হাতেই সনৌতিকে সমপণ । করেন।”—বলিয়া রায় বাহাদর নীরব হইলেন। পরেশও লজ্জিতভাবে মাথাটি হেপট করিয়া নীরবে বসিয়া রহিল। প্রায় একমিনিট পরে, রায় বাহাদর আবার বলিতে লাগিলেন, “সনীতিকে তোমার পছন্দ কি না জানি না। আর তোমার মা বেচে রয়েছেন, তাঁরও মতামত নেওয়া অবশ্য দরকার। আরও একটা কথা বলে রাখি। যদি অন্য বাধা না থাকে, তবে তুমি সেদিন যে বাধার কথা উল্লেখ করেছিলে যে উপাত্তজনক্ষম না হলে তুমি বিবাহ করবে না, সে বিষয়ের একটা ব্যবস্থা আমি করতে পারবো। তুমি বোধ হয় জান যে লাটসাহেব আমায় বিশেষ অনুগ্রহ করেন। তাঁকে ধরে তোমার একটা কিনারা আমি ক’রে দিতে পারবে৷ বোধ হয়।” পরেশ প্রায় জড়িত সত্বরে ধীরে ধীরে উত্তর করিল, “আজ্ঞে, আপনি যা বললেন, এ ত আমার আশার অতীত, পরম সৌভাগ্যের বিষয়। তবে, মাকে একবার জিজ্ঞাসা করা দরকার । তাঁর মত না নিয়ে—” রায় বাহাদর বাধা দিয়া ললিলেন, “সে ত নিশ্চয়—আমি ত তা আগেই বলেছি। তুমি তাঁকে চিঠিতে সব কথা লেখ। কিমবা, না হয় বাড়ীই যাও, মুখে তাঁকে সব কথা বল। আর, তিনি যদি মেয়ে দেখতে চান, তাঁকে সঙ্গে করেও এখানে আনতে পার ” পরেশ বলিল, “আজ্ঞে, সেই বোধ হয় ভাল হবে।” “বেশ, তবে তাই যাও । কথাটা পাকা হয়ে গেলেই, তোমাকে আমি লাটসাহেবের কাছে নিয়ে যেতে চাই।” পরেশ আর কি বলিবে স্থির করিতে না পারিয়া কেবলমাত্র বলিল, “আজ্ঞে হেহে – আপনার ষথেষ্টট অনুগ্রহ।” - পরদিনই সন্ধ্যার ট্রেণে পরেশ ঢাকা ফাল্গা করিল। এখানে চাকরি করিতে করিতে আর দুইবার সে বাড়ী গিয়াছিল,—শিয়ালদহে গিয়াছিল, ভাড়াটিয়া, অশবযানে । এবার রায় বাহাদরের নিজের মোটর গাড়ী তাহাকে চেটশনে পেশছিয়া দিয়া আসিল ! গত দুইবার বাড়ী যাইতে নিজ পকেট হইতে তাহাকে কটসঞ্চিত অথ বাহির করিতে হইয়াছিল। এবার উলটা কিছু লভ্য হইল-রায় বাহাদর স্বতঃপ্রবত্ত হইয়া তাহাকে দ্বিতীয় শ্রেণীতে যাতায়াতের ভাড়া দিয়ছিলেন : পরেশ কিন্তু শিয়ালদহে গিয়া ইণ্টার ক্লাসের টিকিটই খরিদ করিল ! চার - পৃচদিন পরে পরেশ বাড়ী হইতে ফিরিয়া আসিয়া সংবাদ দিল, তার মা জ্যেঠাইমা উভয়েই এ বিবাহে মত দিয়াছেন এবং বলিয়াছেন, “আমরা এখন বউমাকে দেখবো না । আদিনে অক্ষণে কি দেখতে আছে? বিয়ের পর যখন বউ বরণ করে ঘরে তুলবো সেই সময় মলখু দেখবো।” - చిy