পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


এখন হইতে গহিণী, আহারাদি ও অন্যান্য বিষয়ে পরেশকে আরও বেশী যত্ন করিতে লাগিলেন। লাটসাহেবের নিকট উপস্থিত হইবার উপযুক্ত পোষাক, রায় বাহাদর নিজ ব্যয়েই পরেশকে তৈয়ারী করাইয়া দিলেন। এবং একদিন অবসর মত, লাটসাহেবের নিকট তাহাকে লইয়া গিয়া, নিজ হবু-জামাই বলিয়া পরিচয় করাইয়া দিলেন। লাটসাহেব সহাস্য বদনে পরেশের সহিত করমদন করিয়া, তাহার সহিত কথাবাৰ্ত্ত কহিলেন। বিদায় গ্রহণকালে, পরেশের সাক্ষাতেই তিনি রায় বাহাদরকে বলিলেন, “বেশ উজলবন্ধি যবেক! দেখি আমি উহার জন্য কি করিতে পারি।” মাসখানেকের মধ্যেই, বাষিক ডেপটি মনোনয়নের সময় উপস্থিত হইল। গেজেট হইবার পর্বেই পরেশ জানিতে পারিল, শিক্ষানবীশ ডেপুটিদের তালিকায় তাহার নাম উঠিয়াছে এবং আলিপুর আদালতে তাহাকে কমশিক্ষা করিতে হইবে। কিছুদিন পরেই, ধড়াচড়া বধিয়া পরেশ আদালতে যাইতে আরম্ভ কfরল। রায় বাহাদর-গহেই এখনও সে বাস করে—এবং পর্বে মতই তাঁহার পত্রগণের শিক্ষকতা করিয়া থাকে। সনেীতি আর তাহার সামনে বড় আসে না ; যদিও এখনও সে ফ্রক ছাড়িয়া শাড়ী ধরে নাই এবং ডায়োসিজনের গাড়ীতে নিয়মিত ভাবে স্কুলে যায়, তথাপি বরকে লজা করিবার বংশানুক্ৰমিক প্রথা সে পরিত্যাগ করিতে পারিল না। এপ্রিল মাসে সনেীতির ম্যাট্রিক পরীক্ষা হইবে—মে মাসে পরেশের ডেপুটি পদে পাকা হইবার কথা-- তাই জ্যৈষ্ঠ মাসের শেষাশেষি বিবাহ হইবে এইরুপই প্রায় সিথর আছে। সনীতির পরীক্ষা হইয়া গেল। লিখিয়াছে ভাল, পাস সে নিশ্চয়ই হইবে। জ্যৈষ্ঠ মাসের প্রারম্ভে কিন্তু হঠাৎ এক অঘটন ঘটিল। বেলভেডিয়ারে রায় বাহাদরের নিকট টেলিফোনে সংবাদ গেল, এজলাসে বসিয়া কাজ করতে করিতে হঠাৎ পরেশের ফিট হইয়াছিল, চেয়ারসদ্ধ হড়মড় করিয়া সে পড়িয়া যায়, ভবানীপুরের ডাক্তার যতীন ঘোষ সেদিন ঘটনাক্ৰমে কোনও মোকদ্দমায় সাক্ষী সবরপে আদালতে উপস্থিত ছিলেন, খাস কামরায় লইয়া গিয়া তিনিই রোগীর চিকিৎসা ও শুশ্ৰষা করিতেছেন । শনিয়া, রায় বাহাদরের মাথায় ত বজ্ৰ ভাঙ্গিয়া পড়িল। তিনি তৎক্ষণাৎ মোটর ছটাইয়া, আদালতে গেলেন। পরেশ তখন কতকটা সন্থ হইয়া চেয়ারে বসিয়াছেন। ডাক্তারবাব তাহার নাড়ী পরীক্ষা করিতেছেন। রায় বাহাদর জিজ্ঞাসা করিলেন, “ব্যাপার কি ডাক্তারবাব ?" ডাক্তারবাবু, রায় বাহদরকে চোখ টিপিয়া বলিলেন, “বিশেষ কিছ নয়। বড় গরমটা পড়েছে কিনা, তাই ফিট হয়েছিল।” “এখন বিশেষ কোনও আশঙ্কা আছে কি ?” “না, উপস্থিত কোনও আশঙ্কা নেই।” রায় বাহাদর পরেশকে এবং ডাক্তারকে নিজ মোটরে তুলিয়া লইয়া বাড়ী আসিলেন । 'পরেশকে বিছানায় শোয়াইয়া তাহার শশ্রেষার ব্যবস্থা করিয়া, ডাক্তারকে আড়ালে লইয়া গিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন—“কি হে, ব্যাপার কি বল দেখি ?” ডাক্তারবাব মুখ গভীর করিয়া বলিলেন, “ব্যাপার গরে্তর। এ, যে সে মচ্ছে নয়,— মগী রোগ।” - "আী ? বল কি ”—বলিয়া রায় বাহাদর সেখানেই হতাশভাবে বসিয়া পড়িলেন। জড়িত স্বরে বলিলেন, “তবে ত, যে কোনও সময়ে, হঠাৎ—” “আজ্ঞে হ্যাঁ, হঠাৎ মৃত্যু হতে পারে।” ঔষধাদির ব্যবস্থা করিয়া, দিন দই সম্পণে বিশ্রাম করিতে উপদেশ দিয়া, ভিজিটের টাকাগুলি লইয়া ডাক্তারবাব প্রস্থান করিলেন। - ৩২ -