পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১১৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঘটেছে ” জিজ্ঞাসা করিলাম, “কি ঘটনা হে ?” সে মুখ টিপিয়া হাসিয়া বলিল, “আমি প্রেমে পড়েছি।” আমি বলিলাম, "বহুৎ আচ্ছা! মরদকা বাচ্ছা, এই ত চাই। তা, ছড়িটা সন্দেরী ত?” ধীরেন চটিয়া বলিল, “ছড়ি নয়। সে ভদ্র গহন্থের মেয়ে। এবং তোমাদের মত—” আমি বাধা দিয়া বলিলাম, “হ্যাঁ হ্যাঁ আমরা সবাই পাষণ্ড, আর তুমি খুব সাধ তা আমি জানি ! তা তুমি কি করতে চাও শুনি ?” শনিয়া, আমি একটি শিস দিয়া, এক মিনিট কাল নীরবে বসিয়া রহিলাম। মনে মনে ভাবিতে লাগিলাম, “তাঁকে”—ইস! প্রেমে জরজর! সখী আমায় ধর ধর । শেষে শেলষভরে জিজ্ঞাসা করিলাম, “তাঁকে প্রোপোজ (বিবাহ প্রস্তাব) করেছ নাকি ?” ধীরেন বলিল, “না, তা এখনও আমি করিনি।” ধীরেনের প্রণয়িণীর পরিচয় জিজ্ঞাসা করিয়া জানিলাম, তার নাম বাথা ম্যাকজন। তাহার বয়স ২২ বৎসর। বিধবা মা আছেন। একটি ভাই একটি বোন আছে। ভাইটি হাই-"ীটে মদির দোকান করে, এটি তার পৈতৃক দোকান। বাথা কিছু লেখাপড়া শিখিয়াছিল; গলাসগো সহরেই একটি ধনী পরিবারের ছেলেমেয়েদের গভর্ণেস সবরপে সেই বাটীতে থাকে। বলিলাম, “ভায়া, এমন কাৰ্য্যটি কোর না কোর না। ওরা হল রাজার জাত, আমরা হুলাম কালা আদমি—ওদের প্রজা। তুমি যদি মেম বিয়ে করে এ দেশেই বসবাস করতে পার, তা হলে সে একরকম চলে যেতে পারে। কিন্তু যদি তাকে নিয়ে দেশে ফিরে যাও, তা হলে তোমার লাঞ্ছনার সীমা থাকবে না। তোমার মা বাপ আত্মীয়স্বজন সকলেই ! তোমার ঐ মেমকে বিষনয়নে দেখবেন। আর তোমার মেম দেখবেন, সে দেশের ইংরেজ হবে ধোবিকা কুত্তা, না ঘরকা না ঘাটকা। এখনও প্রোপোজ করনি, সেই মঙ্গল; সময় থাকতে সাবধান হও । এর বেশী আর আমি তোমায় কিছু বলতে চাইনে।” ধীরেন রক্ষাবরে বলিল, “পাদী সাহেব, তোমার এ অযাচিত উপদেশের জন্য ধন্যবাদ। কিন্তু সকলকেই তুমি নিজেদের মত মনে কোর না।” আমিও একথা শুনিয়া একট চাটলাম বইকি। বলিলাম, “দেখ, তুমি এই ছমাস মাত্র বিলেতে এসেছ, আমি আজ তিন বৎসর আছি ! তুমি এখনও ওদের চেননি, আমি ওদের হাড়হদ বঝে নিয়েছি। তুমি কি ভাব বাথা তোমার প্রেমে জরজর হয়েছেন?” “অন্ততঃ আমি হয়েছি। তিনিও যে আমায় ভালবাসেন, সে বিষয়ে আমার কোনও সন্দেহ নেই। আমি প্রোপোজ করলে বোধ হয় তিনি আমায় প্রত্যাখ্যান করবেন না।” আমিও ব্যঙ্গভরে বলিলাম, “নিশ্চয়ই করবেন না। তুমি যে একজন বহন লক্ষপতির সন্তান, তা শ্ৰীমতী জানতে পেরেছেন যে! তুমি যে নিবোধের সন্দার, পড়েছ একজন এডভেঞ্চরেসের হাতে, আর মনে করছ তিনি বঝি একজন সীতা বা দময়ন্তীই হবেন। আমার কথা না শনলে শেষে তোমায় নাকের জলে হতে হবে তা তোমায় বলে দিচ্চি ভায়া ” ধীরেন গম হইয়া বসিয়া রহিল আমার সঙ্গে আর কোনও কথা কহিল না। কিয়ৎক্ষণ পরে পরম্পরকে শুভরাত্রি ইচ্ছা করিয়া আমরা নিজ নিজ শয়নকক্ষে প্রবেশ করিলাম। পরদিন প্রাতরাশের পর সাড়ে নয়টার ট্রেণে আমি লন্ডনে ফিরিয়া আসিলাম। ॥ ততীয় পরিচ্ছেদ ৷ তিন মাস পরে ধীরেনের পরে জানিলাম, সেই গদাভ, কুমারী বাথাকে প্রোপোজ করিয়াছে—বসন্তের মধ্যভাগে মে মাসে উভয়ে পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ হইবার অভিপ্রায়।

  • *২৪৯ - To . .