পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাধ জিজ্ঞাসা করন; তোমার সে দুঃখ তোমার পিতামাতা যদি ঘচাইয়া দেন, তবে তুমি তোমার বাকশক্তি ফিরিয়া পাইবে কি না ?” সাহেব ফিরিয়া আসিয়া, প্রমীলার সম্মখে দাঁড়াইয়া ঐ প্রকার প্রশন কবিতেই প্রমীলা উত্তর দিল “ফিরিয়া—পাইব । আমার—পতি-দেবতার চরণে—যেদিন আমি-প্রথম প্রণাম করিব—তাঁহার আশীব্বাদ লাভ মাত্র—আবার অমি—বাকশক্তি-সম্পন্ন—হইব । নচেৎ এ জীবনে আর তাহা হইব না।” সাহেব, নবগোপালবাবরে পানে চাহিয়া একটু মদ হাসিলেন। জিজ্ঞাসা করিলেন, . “জাগাই ?” নবগোপালবাবর ইঙ্গিত পাইয়া সাহেব উলটা পাস দিতে লাগিলেন। পাঁচ মিনিট মধ্যে প্রমীলা জাগিয়া উঠিল। সাহেব বলিলেন, “আপনার স্ত্রী ইহাকে এখন খাইতে দিন। আপনি একট বাহিরে আসন।” নবগোপালবাব সাহেবকে লইয়া বৈঠকখানায় অসিলেন। সাহেব বলিলেন, “আপনার কনস্ট্রর কথা আপনি ববিতে পারিয়াছেন ত ? আমি কিন্তু ভাল কঝিতে পারি নাই।” নবগোপালবাব বলিলেন, "আর কিছু নয়, ও একটি যুবককে বিবাহ করিবার জন্য বড়ই উতলা হইয়াছিল, বিবাহে আমরা সম্মতি দিই নাই সেই উহার দুঃখ।" সাহেব বলিলেন, “Oh ! I see !—ত, যদি মেয়েকে আরোগ্য করিতে চান, তবে তাহারই সঙ্গে উহার বিবাহ দিন—এ ছাড়া কিন্তু অন্য উপায় নাই।” নবগোপালবাব বলিলেন, “নিশ্চয়ই দিব।” - সাহেবকে বহর ধন্যবাদ প্রদান করিয়া, আর একখানি ৫oo টাকার চেক তাঁহার হতে গজিয়া দিয়া, নবগোপালবাব তাঁহাকে নিজ কারে তুলিয়া দিয়া লল । & পাচ গ্র্যান্ড হোটেলে নামিয়া, নবগোপালবাবরে শোফেয়ারকে দুইটি টাকা বখশিস করিয়া, সাবাটিনি উপরে নিজ বসিবার কক্ষে প্রবেশ করিয়া দেখিলেন—ব্যারিস্টার বসন্ত রায় ও সকুমারী, যুগল মত্তিতে তথায় বিরাজ করিতেছে। সাবটিান টপী খলিয়া সহাস্য বদনে বলিল, “Hallo, Mrs. Roy,—you here? What an unexpected pleasure " (#4 # 1 offa as a 2 to Rio ষে আশার অতিরিক্ত !) বসন্ত রায় বলিল, “কি করি, গিন্নী ছাড়িলেন না। খবরটা জানিবার জন্য আমিই এখানে আসিব কথা ছিল, ইনি ছাড়িলেন না—সঙ্গ লইলেন। রাত-বিরাত উনি আমায় একা কোথাও যাইতে দেন না।”—বলিয়া বসন্ত স্ত্রীর পানে চাহিয়া হাসিতে লাগিল। "Silly !”—বলিয়া সরুমারী তার স্বামীর বাহতে মদ চপেটাঘাত করিল। সাবাটিনি বসিয়া বলিল, "তাই নাকি? তবে ত তুমি খুব শক্ত পাল্লায় পড়িয়াছ। লন্ডন মিউজিক হলের সেই গানটা মনে পড়ে ?—যার প্রতি কলির শেষে আছে— “And his little wife was with him as the time !" (oí, GH, sports: সঙ্গে থাকতো)। বসন্ত বলিল, “খবে মনে পড়ে । তুমি, আমি, যোশী—তিনজনেই দিনকতক সে গানটা খুব গাহিয়াছিলাম।—সে যাক। ওখানে কি রকম হইল তাই বল।" সাবাটিীন বলিল, “যাহা ধাহা পরামশ ছিল—ঠিক সেইরাপই হইল। প্রমীলাকে মিসেস রায় যেমন শিখাইয়া রাখিয়াছিলেন, সে ঠিক ঠিক সেইরাপই বলিল। মেয়েটা অভিনয় করিল চমৎকার-বাহাদরী আছে!” সুকুমারী বলিল, “তারই বুঝি বাহাদরী! তোমার মাথা হইতে যে এতবড় ዓ »