পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বরদাবাব বললেন, “হ্যাঁঃ—ঐ সব ছেলেমানুষী কথা শোন কেন?”—কিন্তু মনে মনে তিনি শঙ্কিত হইয়া উঠিলেন। বলাই যায় কি, কালের ষেরপ গতি, কাপড়ে কেরোসিন ভিজাইয়া আগনই ধরাইয়া দিবে, না আফিম আনাইয়া ভক্ষণ করবে, কে বলিতে পারে ? গহিণীকে অবশেষে তাঁহার আশঙ্কার কথা খালিয়াই বলিলেন এবং মেয়ে সম্বন্ধে বিশেষ করিয়া তাঁহাকে সাবধান করিয়া দিলেন। পরদিন বরদাবাব সধাকে ডাকিয়া মিন্ট-কথায় তাহাকে নানা প্রকারে বুঝাইলেন। কিন্তু সন্ধা কোনও উত্তর করিল না—কাঁদিতে কাঁদিতে চলিয়া গেল। দিনের পর দিন এই ভাবেই কাটিতে লাগিল। দিনের পর দিন সন্ধার দেহবণ মলিন হইতে মলিনতর হইতে লাগিল। কন্যার এ অবস্থা দেখিয়া বরদাবাব শঙ্কিত হইয়া উঠিলেন। ভাবী পত্রবধর গাত্রবণের উপরই যে রাজার অত্যধিক ঝোঁক । মুকুন্দনগর হইতে পত্র আসিল, অমুক দিন অমক সময় স-পরিষদ রাজা-বাহাদর মেয়ে দেখিতে বরদাভবনে উপস্থিত হইবেন। বড় বড় সাহেবী দোকান হইতে বরদাবাব মেয়ের জন্য দামী দামী ফেস ক্লীম, কমপ্লেক্সন-লোশন প্রভৃতি আনিয়া দিলেন। তাঁহার কড়া আদেশে সে সকল সন্ধার , সব্বাঙ্গে মালসও হইতে লাগিল। কিন্তু উলটা উৎপত্তি হইল;—মেয়ে দিন দিন কালো হইতে লাগিল । চার রাজা-বাহাদরের আসিবার আর একদিন মাত্র বিলম্ব আছে। আগামী কল্য প্রাতের ষ্ট্রেণে তিনি আসিয়া পেপছিবেন এবং অপরাহুকালে মেয়ে দেখিতে আসিবেন । কি উপায় হইবে, প্রাতঃকালীন চা-পানান্তে বিতলের বৈঠকখানায় বসিয়া ইহাই বরদাবাব চিন্তা বরদাবাব জানালা দিয়া মুখ বাড়াইয়া দেখিলেন, একজন প্রৌঢ়বয়স্ক ভদ্রলোক একটা ট্যাক্সি হইতে মামিতেছেন। দেহটি স্থল, গায়ে একটা আধময়লা সতি পিরাণ, তার উপর ময়লা একটা লাট হইয়া যাওয়া একটা সিলেকর চাদর। কিয়ৎক্ষণ পরে বারবান আসিয়া নিবেদন করিল, মকুন্দনগর রাজবাড়ীর একজন কমচারী দশনপ্রাথী ৷ "নিয়ে এস”—বলিয়া বরদাবাব গভীরভাবে ধমপান করিতে লাগিলেন । লোকটি বারবানের সহিত আসিয়া, বহিরে জুতা খলিয়া রাখিয়া প্রবেশ করিল। বিরক্ত করলাম না ত?” বরদাবাব বললেন, “না না বিলক্ষণ। বিরক্ত কেন করবেন ? বসন বসন।” লোকটি হাত যোড় করিয়া বলিল, “আজ্ঞে না, সে গোস্তাকৗ কি করতে পারি? আজ বাদে কাল হজের হবেন আমার অন্নদাতা মনিবের বৈবাহিক—সতরাং হজেরও মানবস্থানীয়। দ্য একটা কথা নিবেদন করবার জন্যে এসেছিলাম, হুকুম হ’লে বলতে পারি।” বরদাবাব বললেন, “বলন না, আমাদের সঙ্গে ও সব ফৰ্ম্মলিটির কিছ দরকার নেই। বসন বসন, দাঁড়িয়ে থাকবেন কতক্ষণ ?” লোকটি সঙ্কুচিতভাবে চেয়ারে বসিয়া বলিল, “আমাদের রাজা-বাহাদর কাল সকালের ট্রেণে আসবেন, এই স্থির ছিল। হজরকেও পত্রে তা জ্ঞাত করা হয়েছে। কিন্তু তিনি হঠাৎ আজকেই এসে পড়েছেন। ল্যান্সডাউন রোডে নাটোর রাজবাড়ীতে উঠেছেন। আমাকে আপনার কাছে জিজ্ঞাসা করতে পাঠালেন, কালকের পরিবত্তে আজ বিকেলে তিনি যদি মেয়ে দেখতে আসেন, তাতে আপনাদের কোনও অসুবিধে আছে কি ? কারণ কটা বা আ স তে গড়ে হলে আৰু ষ্টে আবার বানান নাে