পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একটু কষ্টও হবে না ?” বালিকা বঝিল, কথাটা ভুলক্রমে সে বেফাঁস বলিয়া ফেলিয়াছে। বড় লজ্জা হইল। মাতামহের দিকে ফিরিয়া, তাঁহার বকের পাকা চলে টানিতে টানিতে বলিল, “মনে কট হবে না? খাব হবে। কিন্তু বেশী দিন ত সেখানে থাকবো না দাদ, আবার শীগগির চলে আসবো। আর তোমার জন্যে একটা খুব ভাল পর্তুল কিনে আনবো। কলকাতায় অনেক পর্তুল প্লাওয়া যায়-হাজার হাজার, লক্ষ লক্ষ, দশো তিনশো।" মুখোপাধ্যায় হাসিয়া কমলার গাল টিপিয়া বলিলেন, “তাই নাকি ? কলকাতায় আর কি পাওয়া যায় রে ?” কমলা উত্তর করিল, “উঃ—অনেক জিনিষ। থিয়েটর পাওয়া যায়, চিড়িয়াখানা পাওয়া যায়, কালীঘাট পাওয়া যায়—আরও কত সব ভাল ভাল জিনিষ মা বলছিল, সব আমার মনে নেই।” এমন সময় ঝি আসিয়া বাহিরে দাঁড়াইয়া বলিল, ”খকী, মা ডাকছে, দুধ খাবি চল।” কত্তার দিকে চাহিয়া বলিল, “গিন্নীমা আপনাকে একবার ডেকেছেন।” “চল যাচ্ছি।”—বলিয়া দত্ত মহাশয় উঠিয়া বলিলেন, “সন্ধ্যার পর মুখুয্যে আসছে ত ?” “হ্যাঁ, আসবো বইকি। জামাই বাবাজীর সঙ্গে দেখা করবো । জামাই বাবাজী সাতটার গাড়ীতে এসে পৌছবেন ত? তুমি কি নিজে যাবে ইটিশানে ?” “না, ষে জল কাদা ! লন্ঠন হতে রামাকেই পাঠিয়ে দেবো এখন।” “আচ্ছা, সন্ধ্যা-আহ্নিক সেরে, আমি তা হ’লে ৮টার মধ্যেই আসবো "—বলিয়া মুখোপাধ্যায় বিদায় লইলেন, দত্ত মহাশয়ও নাতিনীর হাত ধরিয়া অন্তঃপারে প্রবেশ করিলেন। তৃতীয় পরিচ্ছেদ রাত্রি ৮টার পর মুখোপাধ্যায় লাঠি ও লন্ঠন হতে দত্তভবনে আসিয়া দেখিলেন, বৈঠকখানা শান্য। শনিলেন, জামাইবাব আসিয়াছেন, এখন জলযোগ করিতেছেন। মুখোপাধ্যায় প্রতীক্ষায় রহিলেন। কিয়ৎক্ষণ পরে স-জামাতা দত্ত মহাশয় প্রবেশ করিলেন। “কি বাবা বসন্ত, ভাল আছ ত?”—বলিয়া মুখোপাধ্যায় সসম্প্রমে উঠিয়া দাঁড়াইলেন । “আন্দ্রে হ্যাঁ, ভাল আছি কাকা ।”—বলিয়া জামাতা, মুখোপাধ্যায়কে প্রণাম করিলেন। সকলে বসিলে মখোপাধ্যায় বলিলেন, “তোমার ভাল চাকরী হয়েছে, তোমার বশরের কাছে শুনে বড়ই সখী হলাম, বাবাজী ! সে দালালী-ফালালী ছেড়ে দিয়েছ, ভালই করেছ। তোমরা শিক্ষিত লোক, ঐ সব উদ্ধৃবত্তি কি তোমাদের পোষায় ? তা কোন আপিসে চাকরী হ’ল ?” “আজ্ঞে, ইংলিশম্যান আপিসে।” “কিসের করবার তাদের ?” "ইংলিশম্যান খবরের কাগজ। সাহেবদের কাগজ, খুব প্রতিপত্তি—বড় কাগজ। বড় বড় ইংরেজ কর্মচারীরা, জজ, ম্যাজিস্ট্রেট, কমিশনার সাহেবেরা পর্যন্ত বেনামীতে তাতে প্রবন্ধ লেখেন ।” মুখোপাধ্যায় বলিলেন, “বটে ; মস্ত কাগজ তা হ’লে। অনেক সব বাংগালী সেখানে চাকরী করে বোধ হয় ?” “বিস্তর I” কত মাইনে সব ?” "তার কি ঠিক আছে ? ত্রিশ, চল্লিশ, পঞ্চাশ, একশো, দশো—যার যেমন পদ।” মুখোপাধ্যায় বলিলেন, “বটে ! তোমার পদটি ত তা হ’লে বড় পদই বলতে হবে । তুমি যদি আমার একটি উপকার কর বাবা।” tr8