পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/১৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বসন্ত বলিল, “কেন মন্দ কি ? গবীর স্বামীর পরিবত্তে ধনী স্বামী পাবে! মস্ত মোটরে চড়ে চলে যাবে, আমি ব্যাচারী ফ্যাল ফ্যাল করে চেয়ে থাকবো!” নিশমলা বলিল, “দেখ, ফের যদি ঐ সব আকথা কুকথা আমায় বলবে, তা হলে তোমার সঙ্গে আমি আর কথাই কইব না।” দেখিতে দেখিতে অশিবন মাস আসিয়া পড়িল। সহাসিনীর স্বামী পশ্চিম হইতে আসিলেন : তিনি বসন্তের সমবয়সী। দুইজনে আলাপ-পরিচয় হইল। পঞ্চম পরিচ্ছেদ সপ্তমী পুজার দিন বেলা ৫টার সময় বসন্ত বলিল, “আজ আমি এখনই বেরচ্ছি। আপিসে কাজ বেশী পড়েছে—আজ আর সন্ধাবেলা আমি আসতে পারবো না।—কাল একবারে বেলা ৯টার সময় আসবো।” - নিৰ্ম্মলা বলিল, “ভ্যাল চাকরী হয়েছে বাপ, হ্যাঁ! পুজোর তিন দিনও ছুটী নেই!” বসন্ত বলিল, “ছািটী চলোয় যাক-—কাজের আরও বেশী ভিড়। রেল, পোট আপিস, খবরের কাগজের আপিসে, আর যারা থিয়েটারে চাকরি করে, তাদের পালে-পাবণে ছুটী ত নেই-ই; বরং কাজ চতুগুণ বেড়ে যায়।” স্বামী চলিয়া গেলে নিৰ্ম্মমল সহাসিনীর নিকটে দগণকে পাঠাইয়া একখানা উপন্যাস আনাইয়া তাহাই পড়িতে বসিল । অন্য দিন সন্ধ্যাবেলা সে গা ধোয়, বস্ত্র পরিবত্তন করে, আজ আর সে সব কিছু করার তার চাড় হইল না। ছয়টার সময় সহাসিনী আসিয়া বলিল, “তোমার ঝির কাছে শুনলাম দাদাবাব না কি আজ সন্ধোবেলা আর আসবেন না ?” “হ্যাঁ, সে ত সেই ৫টার সময়ই বেরিয়ে গেছে।” “এক কাজ করবে ভাই ?” “কি p” “আমরা থিয়েটারে যাচ্ছি। আমার আর মা’র জন্যে উনি একটা বক্স নিয়েছিলেন । মা প্রথমে যাবেন বলেছিলেন, এখন আর যেতে চাচ্ছেন না। তুমি খকেীকে নিয়ে, চল ম: ভাই আমার সঙ্গে !” নিশমালা বহি বন্ধ করিয়া বলিল, “যাব ? কিন্তু ওঁকে ত বলা হয়নি।” “তার জন্যে কি আর হয়েছে ?” “তোমার উনি কোথায় বসবেন ?” “উনি কখখনো বক্সে বসেন না। বলেন, মেয়েদের সঙ্গে বসতে আমার লজা করে। চল চল, কাপড়-চোপড় ছেড়ে নাও, খাকীকে দধ-টধ খাওয়াও, ঠিক ৭টার সময় বেরতে হবে।” “কি বই হবে ?” “কৃষ্ণকান্তের উইল।” “হ্যাঁ יין “যেতে ত ইচ্ছে করছে খুবই।” “রামাকেও নিয়ে চল। তুমি আমি একখানা গাড়ীতে যাব, রামা কোচবক্সে বসে যাবে এখন। উনি ট্রামে যারেন বলেছেন।” “আচ্ছা, রামাকে জিজ্ঞাসা করি।”-—বলিয়া নিম্পমালা তাহাকে ডাকিল। রামা আসিলে বাবকে কিছু জিজ্ঞাসা করা হয়নি, এ ভাবে গেলে তিনি শেষে রাগ করবেন না ত রামদা ?” brష్టి . * ...