পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৩৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শশিভূষণ এ নালিশে কিছুমাত্র মনোযোগ না করিয়া প্রস্থান করিল। ከ 8 በ সেদিন সারাদিন আর শশী আসিল না। মঠে গিয়া নিজের ঘরের দয়ার বন্ধ করিয়া দিল। প্রথমে কিছুক্ষণ চপ করিয়া বিছানায় পড়িয়া রহিল। মনে হইতে লাগিল যেন নেশা হইয়াছে। মাথাটা যেন ঝাঁ ঝাঁ করিতেছে। মস্তিক একটু শীতল হইলে, মনে হইতে লাগিল, আজ সে মহা একটা দলকম করিয়া আসিয়াছে। নিজের চিত্তচাঞ্চল্যের বিষয় সে অনবগত ছিল না। তাহার জন্য সে নিজেকে ক্ষমা করিত। এরপ চিত্তচাঞ্চল্য পাবে কখন-কখনও হইয়াছে—কিন্তু মনের প্রাপ কমে' কখনও আত্মপ্রকাশ করে নাই। এ চাঞ্চল্য রক্তমাংসের দরবচ্ছেদ্য ধম, উন্মলন করিবার উপায় নাই। সহ্য করিতে হইবে, সংযত থাকিতে হইবে। ইহাই ধামিকের, সজনের কৰ্ত্তব্য। কিন্তু অদ্য প্রভাতে সে সংযম তাহার কোথায় গেল ? অাজ সে কি করিয়া বসিল! আর কখনও আকাঙ্ক্ষা লইয়া কোনও সত্ৰীজাতিকে সে পশ করে নাই; আজ কি হইল ? নিজের প্রতি ধিক্কারে, অনুশোচনায় শশিভূষণ অস্থির। উঃ এই তার সন্ন্যাসধৰ্ম্মম ? এত গব্ব-এত তেজ–সব মহত্তের মধ্যে পথকদমে লঠিত হইল । পরাণ স্মরণ করিল-অপসরা পঠাইয়া দেবতাগণ মনিগণের তপোভংগ করিবার চেষ্টা করিতেন—চিৎশক্তির পরীক্ষা লইতেন। সে কত কঠিন পরীক্ষা ! তাহার তুলনায় এ কি ? কিছুই নয়। পরীক্ষাই নয়। তব ত তাহার এই লজ্জাকর পরাজয়! ক্লমে মনে হইল—মুনিগণের শত শত বষের সাধনী—সে ত পরশব জন্মগ্রহণ করিয়াছে মাত্র । আর, দশ বৎসর সে যাহা করিয়াছে তাহা ত তপস্যাও নহে!—খানকতক ব্যাকরণ পড়িয়াছে—কাব্য পড়িয়াছে—দর্শনের সত্ৰ মুখস্থ করিয়াছে—শ্রীতির ভাষ্য নকল করিয়াছে মাত্র। একটা একটা করিয়া তাহার মনে সান্ত্বনার আলোক ক্লমে পড়িতে লাগিল। ভাবিল, আ মরি, মুনিগণই বা কি চিৎশক্তির পরিচয় দিয়াছেন! অধিকাংশই ত পরাজিত। পরোণের আরও অনেক কথা মনে পড়িল, তাহাতে আত্মসান্ত্বনার পথ আরও পরিক্ত হইতে লাগিল। তখন চিন্তা করিল—এ ভ্রম মনে পোষণ করা কেন ? সে ত সন্ন্যাসী নহে; বিদ্যাশিক্ষার জন্য এতদিন ব্রহ্মচৰ্য্যব্রত পালন করিতেছিল মাত্র। তাহার পিতামাতার সপ্তাহব্যাপী করণোক্তিগল্লি ক্ৰমে ক্ৰমে মনে পড়িতে লাগিল— “আমার আর কেউ নেই বাবা—বাড়ী চল। আমার ঘর অন্ধকার-আমার চক্ষের মণি তুমি —বিয়ে কর,—বিয়ে কর,--বিয়ে করে সংসারী হও P ধর যদি সে বিবাহই করে, যদি সে সংসারণী হয়—তাহা হইলে কি হয় ? কি ভয়ানক, তাহা তখনও হয় ? গর, সাধনানন্দ বলিবেনু কি ? সহাধ্যায়ীবন্দ– বালগোপাল, কর্ণানন্দ, মাধো উপাধ্যায়, সীতাপতি বলিকে কি ? তখন ভাবিল—কি আশ্চৰ্য্য ! কে কি বলিবে না বলিবে তাহাই ভাবিয়া আমি নিজের কৰ্ত্তব্য সিথর করিব ? কি বলিবে ? যাহা ইচ্ছা বলক, যত পারে হাসকে, যত ছিলিম খসী গজিা ভস্ম করকে। আমার তাহাতে কি আসিয়া যাইবে ? নিজের ভবিষ্যৎ জীবন কল্পনা করিতে চেন্টা করিল। এ চল নাই, গৈরিক বসন নাই, দেশে গিয়াছে, বিবাহ করিয়াছে। ঘরে বধ-দেখি কেমন বধ ?—মনোরমা। ছি! মনোরমা নহে—আর কেহ। কিন্তু মন মানিল না। বালকের হাত হইতে একটি খেলনা কাড়িয়া লইয়া সেটি লুকাইয়া, অন্য শত শত খেলনা তাহার হাতে দিলেও সে যেমন S¢२