পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৪৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহিষের পরিধানে যেন একখানি বেগনি রঙের বোম্বাই শাড়ী; তাহার মড়ের স্থানে যেন জগদমবার মুখ, কেবল তাহাতে দুইটা শঙ্গে বাহির হইয়াছে। যখন বিবাহের আর তিন দিন মাত্র বাকী আছে, তখন ভবতোষ ভাবিল, মাকে একখানি পত্র লিখিয়া এ বিবাহ বন্ধ করিয়া ফেলবে। সেদিন অসুস্থতার ভাণ করিয়া সে কলেজে গেল না। সমস্ত দিন একাকী ঘরে বসিয়া মাকে একে একে অনেকগুলি চিঠি লিখিয়া ছিড়িয়া ফেলিল। বাসার লোকেরা যখন শুনিবে যে বিবাহ ভাঙ্গিয়া গিয়াছে, তখন তাহারা কি বলিবে ? তাহদের উপহাস, বিদ্রপে সে কেমন করিয়া সহ্য করিবে ? সেদিন রাত্রে শ্যইয়া ভাবিতে লাগিল, কাহাকেও কিছ না বল্লিয়া সে পশ্চিম পলাইয়া যাইবে। উঠিয়া প্রদীপ জালিয়া টাইমটেবল উলটাইয়া দেখিতে লাগিল। কিন্তু প্রভাতে আবার তাহার মতের পরিবত্তন ঘটিল। ছি ছি, শেষে কি এত কাণ্ড কারখানার পর সে ভীর নাম গ্রহণ করিবে? তাহা হইবে না, প্রতিজ্ঞা সে পরেণ করবেই. তাহার পর তাহার অদটে যাহাই থাকুক। যথাদিনে সে বাড়ী গেল। যথাসময়ে সে বিবাহমন্ডপেও উপস্থিত হইল। সেখানকার লোকসমাগম, আলোক ও কোলাহলে, আজ দশদিন পরে তাহার চিত্ত অনেকটা সিথর হইল। যন্ধকাল সমাগত হইলে ভীরতম সৈন্যও ভয় ভুলিয়া যায়। বিবাহু আরম্ভ হইল। তখন ভবতোষের চিত্ত নিবিকার। তখন তাহার মনে ভয় বা হৰ্ষ বা নৈরাশ্য কিছুই নাই। ক্লমে সী-আচারের সময় আসিল, শুভদটির জন্য বর ও কন্যার মস্তকের উপর বস্ত্রাবরণ পড়িল। কন্যাঁর পানে চাহিয়া দেখিয়া ভবতোষ আশ্চৰ্য্য হইয়া গেল। ইহা, তাহার দশদিনকার বিভীষিকা, নিদ্রার দঃস্বপন—জগদব্য নহে। এ সেই চমৎকার সন্দরী মেয়েটি যে রূপার ডিবায় পাণ রাখিয়া গিয়াছিল। ফলশয্যার রাত্রে যখন ভবতোষ তাহার নববধকে কথা কহাইবার জন্য বিশেষ চেষ্টা করিয়া অকৃতকাৰ্য্য হইল, তখন একটা বৃদ্ধি করিল। সে শনিয়াছিল, যে নববধ কিছুতেই কথা কহে না, সেও আপনার আত্মীয়স্বজনের অপবাদ - শুনিলে তৎক্ষণাৎ প্রতিবাদ করিয়া থাকে। তাই ভবতোষ বলিল—“তোমার মা আমার সঙ্গে এ চাতুরী করলেন কেন ?” পলিনা তখন বলিল, “আমি সন্দর বলে, তুমি নাকি আমায় বিয়ে করতে চাওনি ? কেমন জব্দ!” ভবতোষ এ পর্যন্ত এ প্রহেলিকার মীমাংসা করিতে পারে নাই। তাই জিজ্ঞাসা করিল, “যাকে দেখেছিলাম, সে মেয়েটি কে ?” “সে, পাড়ার বলদের মেয়ে। কেমন জব্দ " ক্ৰমে এমন দিনও আসিল, যখন ভবতোষ ডাক আসিবার পর্বে বাসার দরজার বাহিরে দাঁড়াইয়া থাকিয়া পিয়নের সহিত সাক্ষাৎ করিতে লাগিল। [ ভানু, ১৩১১ ] - খড়া মহাশয় በ S ፬ শরতের সন্ধ্যা উত্তীণ প্রায়। বড় ঘরের বারান্দায় মাদর পতিয়া বসিয়া গগন চক্রবত্তী তামাক খাইতেছেন। ঘরের মধ্যে তাঁহায় বন্ধ জ্যেষ্ঠভ্রাতটি পীড়িত, এখনি ডাক্তার আসিরার কথা আছে। ইহারা দুই ভাই, নবীন ও গগন। গ্রামটি নৈহাটির নিকটে চন্দ্রদেবপর। ইহারা 3 Σ Δ