পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৪৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নলিনী শুনিয়া গলে হাত দিয়া পলিলেন, “কি আশ্চর্ষ : আমি বলেছি । কখন বললাম তোমায় 'সুপনি লন

  • কখনো লা ” “তা না হতে পারে। কিন্তু তখন আপনার মুখ দেখে আমার মনে হয়েছিল, আপনার মনের ভিতর ঠিক ঐ রকম ভাবটাই জাগছে ।”

সকলে শুনিয়া হালিতে লাগিলেন । নলিনী বলিলেন, “তোমার ত আশ্চৰ্য্য ক্ষমতা ! মানয়ের মুখ দেখে তার মনের কথা বলতে পার নাকি ?” “আচ্ছা, আমার মনে এখন কি কথা হচ্ছে বল দেখি ”—বলিয়া নলিনী মুখখানি পরম গম্ভীর করিয়া প্রতীক্ষা করিতে লাগিলেন ৮ রজনী গভীরতর ভাবে পকেট হইতে তাহার চশমাখনি বাহির করিয়া চক্ষে লাগাইল । পরে অত্যন্ত বিচক্ষণভাবে, ঝুকিয়া, নলিনীর মুখখানি নিরীক্ষণ করিতে লাগিল । শেষে বলিল, “ভয়ে কব, কি নিভয়ে কব ?” “ভয ছেড়ে নিভয়ে কও।” “আপনার মনে হচ্চে, কতক্ষণে কলকাতায় পৌছবেন—কতক্ষণে একটি ব্যক্তিবিশেষের সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে।” নলিনীর সবামী তখন কলকাতায় ছিলেন। নলিনী বলিলেন, “ভুল। আমার মনে হচ্ছিল তুমি একটি প্রকাণ্ড গদভ i” রজনী অত্যন্ত বিনয়ের ভাণ করিয়া বলিল, “আহা অযথা আমায় কেন বাড়িয়ে তোলেন : আমি ক্ষুদ্র-প্রাণী মাত্র।” আবার হাসি পড়িয়া গেল। এইরুপ হাস্যামোদের মধ্যে দধিমঙ্গল সমাপ্ত হইল। তখন ভোর পাঁচটা। ছয়টার সময় ট্রেণ ছাড়িবে—সেই ট্রেণে সকলে কলিকাতা যাত্রা করিবেন। বহিরে ঘোড়ার গাড়ী আসিয়া দাঁড়াইয়া আছে। সকলে প্রস্তুত হইয়া বারান্দায় আসিয়া দাঁড়াইলেন। প্রভার মা রজনীকে বললেন, “খলে সাবধানে যাবে তোমরা। পথে যেন কোনও বিপদ ঘটিও না বাছা । আর, খুব সকাল সকাল পৌছতে হবে । বেলা আটটার বেশী দেরি না হয়। কলকাতায় গিয়ে তবে গায়েহলদে হবে। তোমাদের বাড়ী থেকে তেল আসবে, ক্ষীর আসবে, মাছ আসবে, তবে সেই তেল হলদে মেখে প্রভা সনান করবে—সেই ক্ষীর, মাছ প্রভা খাবে। আর, পথে যেন কৈছ খেও না। গায়েহলদের আগে কিছু খেতে নেই।” নলিনী বলিলেন, "খালি তেল, হলুদ, ক্ষীর, মাছ তাসবে কেন ? তার সঙ্গে সঙ্গে রজনীও আসকে না।” রজনী বলিল, “ফাউস্বরপ নাকি " " নলিনী বলিলেন, “না—বাহক হয়ে, বকশিস পাবে।" হাস্যালাপের সঙ্গে সঙ্গে ইহারা গাড়ীতে উঠিলেন। গাড়ী ছাড়িয়া দিল । তখনও প্রভার মা জানালা হইতে মুখ বাহির করিয়া বলিতেছেন, "খুব সাবধানে যাবে।” নলিনীর কণ্ঠস্বর শনা গেল, “গরজনের কথা না শন কাণে—।” আর শনা গেল না । গাড়ী ফটকের বাহিরে গিয়া পড়িল । በ © ፬ কমে আলো হইতে লাগিল। রজনীকে একাকী রাখিয়া প্রভা যাত্রার জন্য সজ্জিত হইতে গেল। কয়েক মিনিট পরে দইখানি বাইসিক্ল লইয়া দুজনে বারান্দার নিনে বাগানে আসিয়া দাঁড়াইল । তখনও আলোকের পরিমাণ অত্যন্ত অল্প। বাগানে দেশী বিলাতী অনেকগলি २२8