পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৪৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফল ফটিয়া রহিয়াছে—দরের ফল তখনও ভাল নজর হয় না। তাহাদের মিশ্রিত সৌরভটফু অনুভব করা যায় মাত্র। প্রভা ও রজনী কয়েক মহত্তে একাকী এই বাগানে দাঁড়াইয়া ২* I যাত্রার পর্বে সনেহে রজনী প্রভার হস্ত নিজ হস্তযুগলের মধ্যে ধারণ করিয়া প্রভার মনে উত্তর জাগিল, সখেসাগরে স্নান করিতে—কিন্তু লজায় সে কথা মুখ দিয়া বাহির হইল না। সে শধে সমীপন্থ একটি গাছ হইতে একটি শিশিরসিক্ত নবসফট গোলাপ তুলিয়া রজনীর কোটে লাগাইয়া দিল। রজনী ধন্যবাদ দেওয়ার হিসাবে স্বীয় প্রিয়তমার আরক্তিম ওঠপটে একটি চমবন মাদ্রিত করিয়া দিল। " তখন আরও একটু আলো হইয়াছে। আকাশ ধসেরতা পরিত্যাগ করিয়া নীলাভ হইয়া আসিতেছে। বাইসিক্লে আরোহণ করিয়া দুইজনে যাত্রা করিল। হুগলি সহরের সীমানা অতিক্ৰম করিতে অধিকক্ষণ লাগিল না। এ পথে পাবে ইহারা কতবার গিয়াছে—তবে কখন পাঁচ সাত মাইলের বেশী যায় নাই। বেশ শীত করিতে লাগিল। বইসিক্ল দইখানি দ্রতভাবে পাশাপাশি যাইতেছে। পথের দুইধারে তরংগমের সারি। বামে মাঝে মাঝে গঙ্গা দেখা যায়। দক্ষিণে মাঠ। খানিকটা মাঠ—তাহার পরেই রেলওয়ে লাইন। কিয়ৎক্ষণ পরে সশব্দে কলিকাতাভিমুখে প্যাসেঞ্জার ট্ৰেণ বহির হইয়া গেল। তাঁহাতে প্রভার পিতামাতা প্রভৃতি ছিলেন, কিন্তু কাহারও মুখ দেখা গেল না। - ক্ৰমে সয্যোদয় হইল—তখন শীতক্লেশ অনেকটা নিবারিত হইল। এখন ইহারা পাব পাব বারের ভ্ৰমিত পথের বাহিরে আসিয়া পড়িয়াছে। পথে দুই একটি করিয়া লোকসমাগম আরম্ভ হইয়াছে। দই একখানি গরর গাড়ীও চলিতে আরম্ভ করিয়াছে । রেলওয়ে লাইন আর দেখা যায় না। পথ গঙ্গার সন্নিকট দিয়া যাইতেছে । মাঝে মাঝে দক্ষিণ পাশেৰ দরে বক্ষাবলীর মধ্যে কোনও গ্রামের মন্দিরচড়া জাগিয়া উঠে, আবার দেখিতে দেখিতে তাহা দ্রুতগামী আরোহিদ্বয়ের পশ্চাতে পড়িয়া যায়। ক্ৰমে সৰ্য্যে উচ্চে উঠিল, বেশ রোঁদ হইল। কিন্তু এখন একট অসুবিধা বোধ হইতে লাগিল। ঠিক সম্মখে সৰ্য্যে। উত্তাপে প্রভার মুখখানি লাল হইয়া উঠিল। এ সম্ভাবিত অসুবিধাটির কথা কিন্তু পর্বে প্রভা বা রজনী কাহারও মনে হয় নাই। নবপ্রণয়ীয়া ভবিষ্যৎ ভাবিয়া কবেই বা কায করিয়া থাকে ? যখন অনমান পনেরো ষোল মাইল অতিক্লান্ত হইয়াছে, তখন সন্মুখরোঁদ্রে প্রভার বিশেষ কষ্ট হইতে লাগিল। রজনী বেশ বঝিতে পারিল যে প্রভার কষ্ট হইতেছে, কিন্তু প্রভা তাহা স্বীকার করিবে না। সবীকার কারলেই বা উপায় কি ? কিন্তু প্রভার যখন অত্যন্ত পিপাসা পাইল—তখন আর প্রভা থাকিতে পারিল না-- BBBB BBB S BBBBBB BBS BBBB BBB BBDSTeBBB BBBS BBBB গিয়া তাহারা উভয়ে জলপান করিয়া আসিবে। পথে একজন রাখাল-বালক চলিতেছিল, বকশিসের লোভে সে বাইসিক্ল দুইখানা আগলাইতে সন্মত হইল। প্রভা ও রজনী বাইসিক্ল হইতে অবতরণ করিয়া গঙ্গাভিমুখে চলিল। রাস্ত হইতে নামিয়া শস্যক্ষেত্র—মধ্যে সর, আল-পথ। গঙ্গার ঠিক তীরের উপর আমের বাগান। ঘাটে পেশছিয়া, ঠিক সেইখানটাতেই জল খাইবার সুবিধা হইল না। একটকু ওদিকে সরিয়া যাইতে হইল। সেখানে একটা বহৎ পাথর অন্ধ জলমগ্ন অবস্থায় পড়িয়াছিল। তাহার উপর বসিয়া প্রভা ও রজনী মখে হাতে জল দিয়া শ্রান্তি দর করিল। অঞ্জলি গুরিয়া শীতল গঙ্গার নিম্নমাল জল পান করিয়া বাঁচিল । ঈষৎ বায়সঞ্চারে গঙ্গাবক্ষ তরঙ্গায়িত। সেই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র তরঙ্গের উপর রোঁদু পড়িয়া ঝলমল করিতেছে। ওপারে একটি গ্রাম দেখা যাইতেছে। দই একখানি জেলে-নৌকা মাচিতে নাচিতে অনেক দর দিয়া চলিয়া গেল। ¢१२ ج) لاحمص