পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৪৭২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ছাড়িয়া, এখন সে ঘরে বসিয়া আছে। বৈশাখ মাস। সমস্ত দিন প্রচন্ড গ্রীমের পর এখন সন্ধ্যাবেলা একটা শীতল বাতাস বাঁহতে আরম্ভ করিয়াছে। হস্তিদন্তের রোলাযুক্ত একযোড়া খড়ম পায়ে দিয়া, নগ্নগাত্রে, রাম অওতার তাহদের সদর বাড়ীর বারান্দায় আসিয়া দাঁড়াইল। ভূত্য একটি চেয়ার আনিয়া দিল। রাম অওতার উপবেশন করিয়া বলিল, “চতুরি—ভাঙ তৈয়ারী হইয়াছে ? লইয়া আয়।” কিয়ৎক্ষণ পরে চতুরি ওরফে চতুভূজ, একটি রাপার গেলাসে করিয়া গোলাপ দেওয়া সিদ্ধি আনিয়া দিল। রাম অওতার অবস্থাপন্ন লোক । বাড়ীটি ঠিক সদর রাস্তার উপর। পথানটা বাজার হইতে কিছদরে, সতরাং কিছ নিরিবিলি। পথচারী লোক বেশী নাই, কেবল মাঝে মাঝে দই একখানা এক্কা ঝমঝেম শব্দ করিয়া যাইতেছে। রাস্তার মোড়ে একটি শিরীষ গাছ—তাহাতে অজস্র কোমল ফল ধরিয়াছে। অপর পাবে মিউনিসিপ্যালিটির একটি লন্ঠন ক্ষীণ আলোক বিতরণ করতে চেষ্টা করিতেছে। রাম অওতার বসিয়া আরাম করিয়া সিদ্ধি পান করিতে লাগিল। সহসা আদরে চাঁচা গলায় শব্দ উত্থিত হইল—“গলাব-ছড়ী।” গলাবছড়ি-ওয়ালা তীব্র কেরোসিনের আলোক সহ পসরা কন্ধে লইয়া, বাড়ীর সম্মখে আসিয়া হাঁকিল— ক্যা মজাদার গলাব-ছড়াঁ! যে খাওয়ে— মজা পাওয়ে; যো চাখখে- ইয়াদ রাখখে; श्रादनाक्-छ्ख्नौं ! বাটীর মধ্য হইতে তৎক্ষণাৎ একটি পঞ্চবষীয় বালক বাহির হইয়া আসিল । রাম অওতারের কাছে আসিয়া বাহান ধরিল, “ভাইয়া, আমি গলাব-ছড়ি খাইব।” একথা শনিবামাত্র ফিরিওয়ালা রাস্তায় দাঁড়াইয়া, বারান্দার উপর তাহার পসরা হালয়া—কি লইবে বল।” বালক গলাব-ছড়িরই বেশী পক্ষপাতী—তাঁহাই কয়েকটা ক্ৰয় করিল। ফিরিওয়ালা স্বীয় কক্ষতল হইতে একখানা হিন্দী সংবাদপত্র বাহির করিয়া, তাহার কিয়দংশ ছিন্ন করিয়া, গলাবছড়িগুলি জড়াইয়া মোহনলালের হাতে দিল। তাহার পর পয়সা উঠাইয়। মোহনলাল পরম আনন্দে বারান্দাময় নত্য করতে করিতে ভোজনে প্রবত্ত হইল। কিয়ৎক্ষণ পরে ভ্রাতার কাছে আসিয়া ছিন্ন কাগজটা দেখাইয়া বলিল, “দেখ ভাইয়া, একটা হাঁথীর তসবীর।” রাম অওতার কাগজখানি হাতে লইয়া দেখিল, একটা হস্তীমাকৰ্ণ ঔষধের বিজ্ঞাপন । কিন্তু তাহার পাবেই যাহা দেখিল, তাহাতে রাম অওতারের কৌতুহল অত্যন্ত উদ্দীপ্ত হইয়া উঠিল। পাশেব রহিয়াছে—“বিবাহের বিজ্ঞাপন।” বামহস্তে সিদ্ধির গেলাস ধরিয়া, দক্ষিণে ছিন্ন কাগজখানি লইয়া, রাম আওতার বৈঠকখানার ঘরে প্রবেশ করিল। আলোকের কাছে দাঁড়াইয়া পড়িল ৪— বিবাহের বিজ্ঞাপন প্রার্থনাসমাজভুক্ত ভদ্রলোকের একটি সপ্তদশবর্ষীয়া সন্দেরী কন্যা আছে। বিবাহেরু জন্য একটি সচ্চরিত্র সুশিক্ষিত কায়স্থজাতীয় পাত্র আবশ্যক। বিবাহন্তে যুবকটিকে শিক্ষালাভের জন্য আমরা বিলাতে পাঠাইতে ইচ্ছা করি। পর্বে পত্র লিখিয়া পাত্র বা २२8 --