পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৪৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“এই লউন।”—বলিয়া লোকটি তাহার চাদরের প্রান্ত হইতে টাকায় নোটে একশত টাকা গণিয়া দিল। আমি তাহাকে কিঞ্চিৎ অপেক্ষা করিতে বলিয়া, বাটির ভিতরে প্রস্তুত হইতে গেলাম । টীকাগুলি বাক্সে বন্ধ করিতে করতে, আলিপুর বারের সেই নিরন্ন দিনগুলির কথা মনে পড়িল। সেই একদিন আর এই একদিন। তখন সারাটা দিন কাছারিতে হত্যা দিয়৷ পড়িয়া থাকিয়াও মক্কেলদেবতার দশন পাওয়া যাইত না;—আর এখন সেই দেবতা দই গহিণীকে অভয় দিয়া, ভূতগণকে জাগাইয়া, প্রস্তুত হইয়া বাহির হইলাম। অবারোহণ করিতে করিতে জিজ্ঞাসা করিলাম, “বন্ধটি কৈ ?” আমার সঙ্গী বলিল, “সবেদার অযোধ্যানাথ।” “সবেদারজী ? তাঁহারই আসন্নকাল উপস্থিত ?”—বলিয়া আমি দঃখে মৌন হইয়া রাঁহলাম। এই যে পনেরো দিন হইল তাঁহার কাছে বসিয়া কত যন্ধেকাহিনী শ্রবণ করিয়্য আসয় छ् ि। . . - ঘণ্টাখানেক অর্থবারোহণের পর আমার সেই পাব পরিচিত গ্রামটিতে গিয়া উপনীত হইলাম। :" " ཝཱ་ཎཱ་ཐལོའི་ আমাকে বললেন, “বাব আসিয়াছেন? আসনে—বসন। আমি ভ 5 t". , ? আমি বলিলাম, “না সবেদারজী ও কথা কেন বলেন? আপনি ভাল হইবেন। আবার আপনার কাছে কত যন্ধের গলপ শুনিব।” শনিয়া সবেদারজীর মখে একট ক্ষীণ হাস্যরেখা দেখা দিল। বললেন, “রামজীর ইচ্ছা। তাঁহার যাহা ইচ্ছা হইবে তাহাই হইবে। এখন আমার একটি কায করন। অনেক রাত্রে আপনাকে কট দিয়া আনিয়াছি।” আফুি বলিলাম, “আজ্ঞা করন।” সবেদারজী বলিল্লেন, “আপনি জানেন বোধ হয়, আমি নিঃসন্তান। আমার একটি মাত্র পত্র ছিল, সে বীরের ন্যায় যন্ধক্ষেত্রে প্রাণ দিয়াছে-বগে গিয়াছে। হতভাগ্য আমাকে রোগশয্যায় প্রাণত্যাগ করতে হইল। রামজীর ইচ্ছা। আমার সেই পত্রের একটি কন্যা আছে। তাহাকে বকে করিয়া আমি জীবনের শেষভাগ কাটাইলাম। আমার একটি ভ্রাতুপেত্র আছে, সে পঞ্জাবে চাকরী করে। আমার যাহা কিছু সম্পত্তি আছে, তাহাকে এবং আমার পৌত্রীকে বণ্টন করিয়া দিতে ইচ্ছা করি। আপনি এই মৰ্ম্মেম একটি উইল প্রস্তুত করন। আমার একটি স্বর্ণনিমিত সিংহ আছে। আমি যখন বীমাৰ্য্যন্ধে । গিয়াছিলাম, সেই সময় রাজবাটী লট করিতে গিয়া সেটি পাই। সিংহটি ওজনে ত্রিশসেরের উপর। সোণাটার দাম প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকা হইবে। আমার পৌরীকে যে বিবাহ করবে, সে ওই সিংহটি যৌতুক পাইবে। আমার লোহার সিন্ধাকটিতে ঐ সিংহ রক্ষিত আছে। এ কথা এতদিন কেহ জানিত না। জানিলে ডাকাতেরা আসিয়া সিংহটি লইয়া যাইত। লোহার সিন্ধকে আমার এক হাজার টাকা আছে। ঐ টাকা আমার পৌত্রী পান্নার নামে লিখিয়া দিন। আর আমার এই বাড়ী, সামান্য জমিজমা যাহা আছে, বাসনপত্র, আর মেডেলগলি, সমস্ত আমার ভ্রাতুপত্রের নামে লিখিয়া দিন।" . উপরিউক্ত কথাগুলি বন্ধ ধীরে ধীরে বলিয়া যাইতে লাগিলেন—আর আমিও সঙ্গে সঙ্গে নোট করিয়া যাইতে লাগিলাম। লিখিবার জন্য কাগজ ভাঁজ করিতে করিতে জিজ্ঞাসা করিলাম, “আপনার এ উইলের অছি কাহাকে নিযুক্ত করবেন ?” বন্ধ বলিলেন, “এই দেখন। আসল কথাই ভুলিয়া যাইতেছিলাম। অছি আপনি হইবেন। ইহাও লিখিয়া দিন, আপনার মনোনীত পায় পান্নাকে বিবাহ করিলে তবেই সে ঐ সিংহ পাইবে। আপনি সন্দেরলালের বন্ধ। আপত্তি আছে কি ?” - আমি বলিলাম, “আমি আহমাদের সহিত আপনার উইলের অছি হইতে প্রস্তুত 35 సె -