পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Alice in Wonderland নামক সেই অৰিতীয় শিশরঞ্জন পস্তকখানি কণ্ঠস্থ করিয়া রাখে নাই। বলিলাম, “সে একখানি চমৎকার বহি আছে। পড় নাই ?” “না, আমি ত পড়ি নাই।” বলিলাম, “তোমার মাতা যদি আমায় অনুমতি করেন, তবে আমি তোমাকে সে বাঁহ একখানি উপহার দিব।” এইরুপ কথোপকথন করিতে করিতে, সেস্ট মাটি’স চাচ্চের পাশ দিয়া চেয়ারিং ব্রুশ স্টেশনের সম্মখে আসিয়া পৌছিলাম। ট্র্যান্ড দিয়া হহেন করিয়া বহদাকার দ্বিতল অমনিবসগুলি উভয় দিকে ছটিয়া যাইতেছে। ক্যাবেরও সংখ্যা নাই। টেলিগ্রাফ অফিসের সম্মুখে ফুটপাথে দড়িাইয়া বালিকাকে বললাম, “এস, আমরা এইখানেই ওয়েণ্টমিন্টার বাসের জন্য অপেক্ষা করি।” বালিকা বলিল, “চলিয়া যাইতে আপনার আপত্তি আছে কি ?” আমি বলিলাম, “কিছমাত্র না। কিন্তু তোমার কােট হইবে না ?” “না, আমি ত রোজই চলিয়া বাড়ী যাই।” কোথায় সে কম করে, এইবার তাহাকে জিজ্ঞাসা করিবার সুযোগ পাইলাম। ইংরাজি হিসাবে এরূপ প্রশন জিজ্ঞাসা করাটা নিয়ম নহে, কিন্তু সকল নিয়মেরই ফাঁকি আছে কিনা। যেমন রেলগাড়ীতে উঠিয়া সহযাত্রীকে, “কোথায় যাইতেছেন মহাশয় ?” জিজ্ঞাসা করা ভয়ানক পাপ, তবে, "অধিকদর যাইবেন কি?” ইহা জিজ্ঞাসা করিতে দোষ নাই। সহযাত্রী ইচ্ছা করিলে বলিতে পারে, “আমি অমক স্থান অবধি যাইব।” ইচ্ছা না করিলে বলিতে পারে, “না এমন বেশী দরে নয়।” আমার প্রশ্নেরও উত্তর দেওয়া হইল, তাহার পদাও বজায় রহিল! সেই হিসাবে আমি বালিকাকে জিজ্ঞাসা করিলাম, “এদিকে তুমি প্রায়ই আস বঝি ?” - বালিকা বলিল, “হাঁ। আমি সিভিল সাভিস টেসে টাইপরাইটারের কাষ করি। রোজ সন্ধ্যাবেলা বাড়ী যাই। আজ শনিবার বলিয়া শীঘ্ৰ ছটি পাইয়াছি।” আমি তাহাকে বলিলাম, "চল, ট্র্যান্ড দিয়া না গিয়া এমব্যাঙ্কমেন্ট দিয়া যাওয়া যাউক। ভীড় কম।” বলিয়া তাহার বাহনধারণ করিয়া সাবধানতার সহিত রাস্তা পার করিয়া দিলাম । টেমস নদীর উত্তর কল দিয়া এমব্যাঙ্কমেন্ট নামক রাস্তা গিয়াছে। চলিতে চলিতে বলিলাম, “তুমি কি সচরাচর এই রাস্তা দিয়াই যাও ?” বালিকা বলিল, “না, এ রাস্তায় যদিও ভীড় কম, তথাপি ময়লা কাপড়পরা লোকের সংখ্যা অধিক। আমি তাই ট্র্যাড় এবং হোয়াইট হল দিয়াই বাড়ী যাই ।” আমি মনে মনে এই অশিক্ষিতা দরিদ্রা বালিকার নিকট পরাজয় স্বীকার করিলাম। ইংরাজ জাতির সৌন্দৰ্য্য-প্রিয়তার নিকট আমার আত্মপরাজয় ইহাই প্রথমবার নহে। কথোপকথনে আমরা ওয়েন্টমিনস্টার ব্রিজের নিকটবৰ্ত্তী হইলাম। আমি বলিলাম, “তোমাকে কি অ্যালিস বলিয়া ডাকিব, না মিস ক্লিফড বলিব ?” মদ হাসিয়া বালিকা বলিল, “আমি ত এখনও যথেষ্ট বড় হই নাই। আমাকে যাহা ইচ্ছা বলিয়া ডাকিতে পারেন। লোকে আমাকে ম্যাগি বলিয়া ডাকে।" “তুমি কি বড় হইবার জন্য উৎকণ্ঠিত ?” “হ্যাঁ।” ”কেন বল দেখি ?” “বড় হইলে আমি কাম করিয়া অধিক উপাজন করিতে সমর্থ হইব। আমার মা বন্ধ হইয়াছেন।” “তুমি যে কম কর, তাহা তোমার মনঃপত ?” “না। আমার কম বড় যন্মের মত। আমি এমন কাম করিতে চাহি, যাহাতে ২৬১