পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বারীন্দ্র প্রবেশ করিয়া প্রথমে মিস ম্যানিংকে অন্বেষণ করিতে লাগিল। কিয়ৎপরে, করিল। মিস ম্যানিংয়ের পরিধানে একটি কৃষ্ণবর্ণ মহাঘ পরিচ্ছদ। তাঁহার মুখমণ্ডল প্রশান্ত, প্রফুল্ল ও হাস্যোভাসিত। তাঁহার শুক্ল কেশগুচ্ছ বিদ্যুতের আলোকে অপর্বে শোভাযুক্ত। হইয়াছি।” আরও দই চারিটি এইরুপ স্নেহগভর্ণ সম্ভাষণ করিয়া তিনি বারীন্দ্রকে কয়েকটি পরষ ও মহিলার সহিত পরিচিত করিয়া দিলেন। বারীন্দ্র দাঁড়াইয়া তাঁহাদের সঙ্গে কয়েক মিনিট আলাপ করল। এমন সময় হলের এক প্রান্তে বেহালার শব্দ উত্থিত হইল। একজন ইংরাজ মহিলা, সার এডুইন আৰ্ণলন্ড রচিত একটি ভারতবষীয় কবিতার অনুবাদ সরসংযোগে গান করিলেন। ইতস্ততঃ পদচারণা করিতে করিতে বারীন্দ্ৰ দেখিল তাহার একটি বন্ধ, ভুবনচন্দ্র দত্ত, একজন বর্ষীয়সী ইংরাজ মহিলায় সহিত আলাপ করিতেছে। বারীন্দুকে দেখিয়া সে তাহাকে মহিলাটির নিকট পরিচিত করিয়া দিল, “মিস্টার চাটাডিজ-মিস l” | মিস টেম্পল একটি দীঘসিনে বসিয়া ছিলেন। তিনি বারীন্দ্রকে বলিলেন, “আসন, —আমার কাছে উপবেশন করুন।” বারীন্দ্র উপবেশন করিয়া বলিল, “আপনি কৃতক্ষণ আসিরাছেন ?” “আমি আসিয়াছি আধ ঘণ্টা হইবে। আপনার নামটি কি ভাল শুনিতে পাইলাম না।” বারীন্দ্র বলিল, “আমার নাম চাটাঙ্গিজ।” - “চাটাৰিজ ? চাটাঙ্গিজ ? চ্যাটোপাডিয়া ম. আপনি ব্রাহ্মণ ?” । - “তাহাই বটে। আপনি সব জানেন দেখিতেছি।”—বলিয়া বারীন্দ্রনাথ হাস্য করিল। মিস টেম্পল তাহার কৌতুকহাস্য মোটেই লক্ষ্য না করিয়া, স্বীয় যামহস্ত প্রাচ্যভাবে ললাটের নিকট উত্তোলন করিয়া বলিলেন, “নমস্কার।” হাসিতে হাসিতে বারীন্দ্রনাথও বলিল, “নমস্কার—নমস্কার। আপনি এ সব শিখিলেন কোথা ? * ভুবন দত্ত বলিল, “মিস টেম্পল ষে সম্প্রতি ভারতভ্রমণ করিয়া আসিয়াছেন।” বারীন্দ্র বলিল, “Oh, how interesting ! কতদিন আপনি ভারতবষে ছিলেন ?” “ছয় মাস।” “আপনার এই সময় আমোদে কাটিয়াছিল ত ?” ভাল লিমা আন কি নাং শিক্ষা করিতে গিয়াg יין মিস টেম্পলের এই ভাব দেখিয়া ও এই কথা শুনিয়া বারীন্দ্র মনে মনে কিঞ্চিৎ কৌতুক অনুভব করিল। কিন্তু মৌখিক গাভীয্য অবলম্বন করিয়া বলিল, “আমি শনিয়া সখী হইলাম। এদেশের অধিকাংশ লোকেই আমোদের উদ্দেশ্যে ভারতভ্রমণ করিতে যান। ভারতবর্ষের বহুসহস্ৰ বৎসরের জ্ঞান গরিমার সন্ধান তাঁহারা পান না!” মিস টেম্পল বললেন, “আপনি যথাৰ্থ বলিয়াছেন। আমার সৌভাগ্যবশতঃ দই চারিটি মহাংমার সহিত সেখানে আমার সাক্ষাৎ হইয়াছিল। হিন্দুধর্মের ব্যাখ্যা তাঁহাদের মুখে শনিয়া আমি ধন্য হইয়া আসিয়াছি।” - বারীন্দ্র পরম ধাৰ্ম্মিক সাজিয়া বলিল, “হিন্দধাম জগতের শীর্ষস্থানীর ধৰ্ম্ম। হিন্দুধৰ্ম্মম ও সংস্কৃত সাহিতা—এই দুইটিই আমাদের চিরগৌরবের বিষয়।” মিস টেম্পল বলিলেন, “আপনি কি সংস্কৃত শিক্ষা করিয়াছেন ?” “সামান্য গ “আমি সংস্কৃত শেলাক শুনিয়াছি। সে ধনি যেমন মধরে তেমনই গভীর। আপনি - २१२ - -